শিক্ষা ব্যবস্থা ও অভিভাবক ভাবনা

newsgarden24.com    ০২:৪৩ পিএম, ২০২২-১২-২৫    76


শিক্ষা ব্যবস্থা ও অভিভাবক ভাবনা

মাহমুদুল হক আনসারী: শিক্ষা মানবজাতির শক্তি। সুশিক্ষা মানবসমাজের অলংকার। শিক্ষা ছাড়া মানব সমাজ এগিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। একটি জাতিকে এগিয়ে নিতে হলে আদর্শিক শিক্ষার বিকল্প নেই। বাংলাদেশে শিক্ষা বিস্তারে সরকারের ব্যপকভাবে কর্মসূচী রয়েছে। দেশের জনগণকে শিক্ষার সাথে সম্পৃক্ত করতে সরকারের শিক্ষা মন্ত্রনালয় প্রতিনিয়ত কর্মসূচী প্রনয়ন ও বাস্তবায়ন করছে। সরকারের সৎ উদ্দেশ্য কর্মসূচী বাস্তবে কী পরিমান বাস্তবায়িত হচ্ছে সেটা মূল্যায়ন ও হিসেব নিকেশ করার যতেষ্ট দরকার আছে। শিশু স্কুল থেকে কলেজ ভার্সিটি পর্যন্ত শিক্ষা কেন্দ্র সমূহে বাস্তবে শিক্ষার গুনগত মান কী পর্যন্ত বিস্তার হচ্ছে সেটা মূল্যায়ন

পর্যালোচনা দরকার।

সরকারী বেসরকারী স্কুল কলেজ সংখ্যায় হিসেব করলে হিসেব করে কূল কিনারা বের করা কঠিন হবে। সরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের হিসেব খাতা কলমে সরকারের দপ্তরে পাওয়া গেলেও প্রাইভেট কেজি, প্রাইমারী স্কুলের পরিসংখ্যান বের করা কঠিন হবে। প্রতিদিন সারা দেশে শত শত প্রাইভেট বিদ্যালয় , কেজী স্কুল, প্রাইভেট নুরানী, মাদ্রাসা স্কুল প্রতিষ্ঠা স্থাপন অব্যাহত আছে। এ সকল বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠানের হিসেব সরকারের খাতায় নেই বলা যায়। এখানে কী কী পাঠ্য পুস্তুক পড়ানো হয়। তাও সরকার, শিক্ষা মন্ত্রনালয় জানে না। শহর থেকে গাঁ গ্রাম, পর্যন্ত ছড়িয়ে ছিঠিয়ে থাকা এসব বিদ্যালয় গুলো কতিপয় মানুষ ইচ্ছে মতো প্রতিষ্ঠা করছে। এ সব প্রতিষ্ঠানে ভর্তির চাক চিক্য নিয়মনীতি দেখা যায়। পাঠ্য তালিকা, খাতা পত্র সংশ্লিষ্ঠ বিদ্যালয় সর্বরাহ করে। খরচের চেয়ে অনেক গুন বেশী অর্থ আদায় করা হয়। অভিভাবক মহল ভালো লেখা পড়ার উদ্দেশ্য তাদের সন্তানদের ওই সব প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করায়। এখানে পড়া লেখার চেয়ে শিক্ষর্থীদের ভেষ ভূষ পোশাক বই পত্রের আধিক্য বেশী। একজন শিশুর ইচ্ছা ও শক্তির বাইরে পাঠ্য তালিকা দেয়া হয়। মেধা ও ক্ষমতা নিরপন না করে কোমলমতি ছাত্রদের উপর অধিক পরিমান পাঠ্যবই চেপে দেয়া হয়। বেতন, ভর্তি ফি ১০,০০০ থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত এক কালিন প্রাইভেট স্কুল কর্তৃপক্ষ গ্রহণ করার অভিযোগ শোনা যায়।

সামর্থবান, উচ্ছ ফ্যামিলির অভিজাত্য পরিবারের সন্তানরা এ সব নামী দামী প্রাইভেট স্কুলে যেতে দেখা যায়। আসলে এসব স্কুলে ছাত্রদের কী পড়ানো হয়, সিলেবাসে কী রয়েছে, ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষার্থীরা সঠিকভাবে শিক্ষা গ্রহণ অনুশিলন করতে পারছে কী না, এসব কে দেখছে? এসব প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমের উপর সরকারের সংশ্লিষ্ট শিক্ষা মন্ত্রানালয়ের নজর ও খবরদারী কতটুকু আছে তা অভিভাবক মহল দেখছেনা। ইচ্ছে মতো ভর্তি ফি, বেতন, আনুসাঙ্গিক অর্থ আদায় করছে প্রাইভেট স্কুল কলেজ ভার্সিটি কর্তৃপক্ষ। শিক্ষার মৌলিক উদ্দেশ্য যতটুকু তারা বাস্তবায়ন করছে তার কোনো হিসেব দেয়ার কোনো দায়িত্বশীল ভূমিকা তাদের মধ্যে দেখা যায়না। একটা স্বাধীন দেশে, গণতান্ত্রিক সরকারের চত্র ছাঁয়ায় বাস করে দেশের মাটি জমি ব্যাবহার করে সরকারের নিয়ম নীতি তোয়াক্কা না করে তারা এসব প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলছে কী ভাবে। সরকারের নির্দিষ্ট সিলেবাস, নিয়ম-কানুন, কারিকুলাম থাকা সত্ত্বেও ওই সব প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান তাদের ইচ্ছে মাফিক চিন্তা চেতনায় চলছে। তাদের চিন্তার সাথে রাষ্ট্রের ব্যবস্থা পনার সাথে মিল না থাকলেও তারা কিন্তু তাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

বাংলাদেশে সধারণ শিক্ষা, মাদ্রাসা শিক্ষা, ধর্মীয় শিক্ষা, কারিগরী শিক্ষার নানা মূখী শিক্ষা তৎপরতা আমরা দেখছি। শিক্ষার নামে ভিন্ন ভিন্ন নামে প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান তৈরী হচ্ছে। কারিগরি শিক্ষা বলেন, আবার ধর্মীয় শিক্ষা বলেন, সব জায়গাতে একটি মহল বাণিজ্যিক ভাবে ফয়দা লুটে নিচ্ছে। সমাজ ও মানুষকে অন্ধকারে রেখে আদর্শিক জাতি গঠন করার কথাবলে ধর্মীয় শিক্ষার অন্তরালে অর্থনৈতিক ভাবে বাণিজ্য গড়ছে। উচ্ছশিক্ষার নামে প্রাইভেট ভার্সিটি গুলো গলাকাটা করে অভিভাবকদের থেকে  অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। কেউ কেউ বলেন, মূলত! প্রাইভেট ভার্সিটিতে গুলোর কর্মকান্ডে মনে হয় একটা কোচিং সেন্টার। সেমিষ্টার ফি, প্রদানকরার সময় দেরী হতে পারবেনা, ঠিক ভাবে ক্লাস না হলেও সেমিষ্টার ফি প্রদানে বিলম্ব মোটেও সহ্যকর হয় না। এ সকল উচ্ছ শিক্ষার একাডেমীক ভবনে বিদ্যুৎ, পানি, বাথরুম থেকে শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় শিক্ষার উপকরণ না থাকলেও অর্থ আদায়ে তাদের আদেশ শতভাগ কার্যকর।

এক কথায় প্রাইভেট শিক্ষা প্রতিষ্টান, কেজি স্কুল বলেন, কলেজ বলেন, মাদ্রাসা বলেন, আর ভার্সিটি বলেন, কোথাও কোনো আদর্শিক বিদ্যালয়ের পরিবেশ পাওয়া যায়না। শিক্ষার মৌলিক গুণাবলীর কোনো বাচ বিচার তাদের শিক্ষা কার্যক্রমে খুবই অপ্রতুল্য।তবুও এসব প্রতিষ্টান শিক্ষা বিস্তারের নামে চলছে এবং  বিস্তার লাভ করছে। তাদের সাথে সরকারী আমলা রয়েছে। রাজনৈতিক দলের চত্র ছায়া আছে। ক্যাডার বাহিনী আছে। ফলে তারা কোনো সৎ অভিভাকের কথা শুনতে রাজি নয়। তারা চলছে তাদের মতো করে। শিক্ষার্থীরা সেখান থেকে সার্টিফিকেট নিয়ে, কোথায় গিয়ে কি করবে সে চিন্তা ও ভূমিকা তাদের মধ্যে দেখা যায় না। হাজার হাজার শিক্ষার্থী প্রতি বছর প্রাইভেট বিশ^বিদ্যালয়, কলেজ মাদ্রাসা হতে বের হচ্ছে, মাদ্রাসা অর্থ এখানে কওমী মাদ্রাসার কথায় বলছি। তারা কোথায় গিয়ে দাড়াবে সমাজের কী কাজে আসবে, তাদের শিক্ষার সনদপত্র, সেটা শিক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান সমূহের কর্তৃপক্ষ মোটেও ভাবছেন বলে মনে হয়না। তাই আজ বাংলাদেশে মানহীন, কর্মহীন, শিক্ষিত বেকার যুবকদের  সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাদের সংখ্যা শিক্ষিত বেকার যুবকদের মধ্যে আধিক্য লাভ করছে। বাংলাদেশের সরকারী স্কুল, কলেজ , বিশ^বিদ্যালয় মাদ্রাসা শিক্ষার বিপরীত প্রাইভেট শিক্ষার কারিকুলাম এবং সার্টিফিকেটের মধ্যে ব্যপক ভাবে তফাৎ অব্যাহত আছে। যার কারনে সরকারি কলেজ ভার্সিটি থেকে পাশ করা শিক্ষার্থীদের  সাথে প্রতিবেশী তার প্রাইভেট প্রতিবেশীর শিক্ষার্থীরা পেরে উঠছেনা। সব জায়গায় সরকারী প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের সনদের মান ও শিক্ষার অগ্রাধিকার পাওয়া যায়। আর প্রাইভেট শিক্ষার্থীরা বেকার ও মান হীন ভাবে সমাজে অবহেলার মধ্যে পড়ে থাকতে দেখা যায়। একটা দেশে শিক্ষার নামে বিভিন্ন পদ্ধতি ধারার শিক্ষার কী প্রয়োজন সচেতন মহল বুঝে উঠতে পারছেনা । সমাজে শিক্ষার আলো প্রসারের নামে এসব কী হচ্ছ্ েকারা এসব কর্মকান্ড ব্যবস্থাপনা থেকে ফায়দা নিচ্ছে,বাস্তবে কারা উপকৃত হচ্ছে , সে সব ধারনা ও চিন্তা করার সময় দেরী হয়ে যাচ্ছে। শিক্ষার নামে শিক্ষিত যুবকদের হতাশার ঝট ভাঙ্গতে হবে। তাদেরকে মানসিক ভাবে শান্তনার রাস্তা বের করতে হবে। সামাজকে বিশাল এ শিক্ষিত  যুবকদের সমাজে সম্মানের সাথে বেঁচে থাকার ব্যাবস্থা করে দিতে হব্

যদি তা না হয়, তাহলে সমাজে অস্থিরতা বেকারত্ব বাড়বে। হতাশা, আত্বহত্যা বাড়বে। খুন চিন্তাই মাদকের ব্যবহার বাড়বে। পারিবারিক অশান্তি বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক শৃংখলা ধ্বংসহবে।শিক্ষিত বেকার যুবকদের উপযুক্ত ভাবে কর্মসংস্থানের ব্যবহার করুন। সার্টিফিকেট সবর্স শিক্ষা ব্যাবস্থাপনা বন্ধ করুন । প্রাইভেট শিক্ষার মৌলিক পরিবর্তন আনুন। শিক্ষার নামে ইচ্ছে মতো সুবিধাবাদী ব্যবস্থাপনা বন্ধ করুন। বানিজ্যিক শিক্ষা কার্যক্রম  রাষ্ট্রীয় ভাবে নিয়ন্ত্রন চাই। দেশের শিক্ষা খাতকে সঠিকভাবে উপযুক্ত নিয়মে পরিচালনা মন্ত্রনালয়ের সঠিক তদারকী থাকা চায়। নৈতকি শিক্ষার উপযুক্ত পরিবেশ তৈরীর জন্য আদর্শ ও মেধাবী শিক্ষিত যুবকদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সর্বাত্বক ও সৎ প্রচেষ্টা বাস্তবায়িত হ্উক। এর সাথে সরকারি শিক্ষা কার্যক্রম হতে দুর্নীতি বাজ কর্মকর্তাদের দুর্নীতির তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি রয়েছে অভিভাবক মহলের । আদর্শিক জাতি গঠনে প্রকৃত আদর্শিক শিক্ষার বাস্তবায়ন চায় অভিভাবক মহল। লেখক: সংগঠক, গবেষক ও কলামিষ্ট। 
 

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল


রিটেলেড নিউজ

হালিশহর বেগমজান উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭৫ বছর পূর্তির প্লাটিনাম জুবলী অনুষ্ঠান ১৭ ও ১৮ মার্চ

হালিশহর বেগমজান উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭৫ বছর পূর্তির প্লাটিনাম জুবলী অনুষ্ঠান ১৭ ও ১৮ মার্চ

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: বন্দর নগরী চট্টগ্রাম এর ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ ”হালিশহর বেগমজান উচ্চ বিদ্যাল... বিস্তারিত

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সিভাসু উপাচার্য’র শ্রদ্ধা 

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সিভাসু উপাচার্য’র শ্রদ্ধা 

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন ... বিস্তারিত

জিয়াউর রহমান’র ৮৭তম জন্মবার্ষিকীতে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের দোয়া মাহফিল

জিয়াউর রহমান’র ৮৭তম জন্মবার্ষিকীতে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের দোয়া মাহফিল

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: মহান স্বাধীনতার ঘোষক বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি'র প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্... বিস্তারিত

জুলুম নির্যাতন থেকে বাঁচতে হাসিনার পতনের বিকল্প নেই: মীর হেলাল 

জুলুম নির্যাতন থেকে বাঁচতে হাসিনার পতনের বিকল্প নেই: মীর হেলাল 

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: জুলুমবাজ অবৈধ আওয়ামী সরকারের দুর্নীতি ও লুটপাটে দেশ আজ অর্থনৈতিকভাবে পঙ্গু হ... বিস্তারিত

চবিতে ছাত্রদল’র ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবাষিকী উদযাপনে পুলিশী বাঁধা

চবিতে ছাত্রদল’র ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবাষিকী উদযাপনে পুলিশী বাঁধা

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আনন্দ শোভা যা... বিস্তারিত

সাইফুল আলমকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ

সাইফুল আলমকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের বিক্ষোভ

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের আহ্বায়ক সাইফুল আলমকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে ও মুক... বিস্তারিত

সর্বশেষ

রাষ্ট্র কাঠামো মেরামতের রুপরেখা- ব্যাখ্যা ও বিশ্লেষণ শীর্ষক সভা ৮ ফেব্রুয়ারি 

রাষ্ট্র কাঠামো মেরামতের রুপরেখা- ব্যাখ্যা ও বিশ্লেষণ শীর্ষক সভা ৮ ফেব্রুয়ারি 

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ (বিএসপিপি) চট্টগ্রাম শাখার উদ্যোগে আগামী ৮ ফ... বিস্তারিত

বিভাগীয় সমাবেশ সফল করতে বাগমনিরাম ওয়ার্ড বিএনপির প্রস্তুতি সভা

বিভাগীয় সমাবেশ সফল করতে বাগমনিরাম ওয়ার্ড বিএনপির প্রস্তুতি সভা

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন বলেছেন, বর্তমান সরকা... বিস্তারিত

দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে সরকার: ডা. শাহাদাত হোসেন

দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে সরকার: ডা. শাহাদাত হোসেন

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, বর্তমান অবৈধ সরকার ল... বিস্তারিত

শনিবার বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমাবেশ গণসমুদ্রে রূপান্তর হবে: মাহবুবের রহমান শামীম

শনিবার বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমাবেশ গণসমুদ্রে রূপান্তর হবে: মাহবুবের রহমান শামীম

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমন্বয়কারী মা... বিস্তারিত