অনিন্দ্য সুন্দর পর্যটনের সম্ভাবনাময়ী এলাকা দোহাজারীর ধোপাছড়ি

newsgarden24.com    ০৪:১৯ পিএম, ২০২০-০১-১৭    112


অনিন্দ্য সুন্দর পর্যটনের সম্ভাবনাময়ী এলাকা দোহাজারীর ধোপাছড়ি

মো. দেলোয়ার হোসেন, চন্দনাইশ, ১৭ জানুয়ারী ২০২০, শুক্রবার: পাহাড় নদীতে ঘেরা দোহাজারী পৌরসভার পাহাড়ি এলাকা ধোপাছড়ি হয়ে উঠতে পারে পর্যটন এলাকা তথা ইকোপার্ক। দোহাজারী পৌরসভার সীমান্তে অবস্থিত ধোপাছড়িতে ৯টি ওয়ার্ডের অধিকাংশ এলাকা পাহাড়। ইউনিয়নের পূর্ব প্রান্তে পার্বত্য জেলা বান্দরবান, দক্ষিণে সাতকানিয়া, উত্তরে রাঙ্গুনিয়া। ইউনিয়নটির দক্ষিণ পার্শ্বে শঙ্খ নদী বয়ে যাওয়ায় পাহাড় নদীর মধ্যখানে হাতছানি দেয় মেঘ পাহাড়ের দেশের মত। ইউনিয়নের পুরো এলাকা জুড়ে পাহাড়ের পাদদেশে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ ও মৌসুমী শাকসবজি। বনজ গাছগুলো সারিসারি দেখতে অপূর্ব লাগে।
১৪ হাজার ২ শত ৭৭ বর্গ

একর এলাকার এই ইউনিয়নে প্রায় ১০ হাজার লোকের বসতি রয়েছে। তৎমধ্যে পাহাড়ি, বাঙ্গালি, রোহিঙ্গা, মগসহ বিভিন্ন ধর্মের লোক বসবাস করে থাকে। সবাই মিলে যেন একটি পরিবার। এ এলাকার মানুষের নিরাপত্তার জন্য একটি পুলিশের তদন্ত কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। স্বাস্থ্য সেবার জন্য একটি ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র, একটি উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ও রয়েছে। দোহাজারী উপশহরের বিচ্ছিন্ন এ ইউনিয়নটির সাথে যোগাযোগের মাধ্যম হচ্ছে শঙ্খ নদীতে ইঞ্জিনবাহী বোট। তাছাড়া সাতকানিয়া, কেরানীহাট-বান্দরবান সড়ক হয়ে শঙ্খের পাড়ে গিয়ে নদী পারাপারের মাধ্যমেও এ ইউনিয়নে যাওয়া যায়। সম্প্রতি বর্তমান সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী দোহাজারীর উপর দিয়ে চৌকিদার ফাঁড়ি থেকে সড়ক নির্মাণের মাধ্যমে ধোপাছড়ি যাতায়াতের সু-ব্যবস্থা করেছেন। যা এ এলাকার মানুষের জন্য একটি অনন্য পাওয়া।
 ধনে ধান্যে পুষ্প ভরা আমাদের এ বসুন্ধরা। দেশাত্ববোধক এ গানটির সাথে কতটাই যথার্থ তা বোঝা যায় বাংলাদেশে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরূপ দৃশ্যপটগুলো পরিদর্শন করলে। বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে এখনো পড়ে আছে অজস্র প্রাকৃতিক দৃশ্যপট। সেগুলোতে পরিদর্শনে গেলে মন একবার হলেও নেচে উঠবে অপার আনন্দে। সেরকম একটি প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যের স্থান হচ্ছে দোহাজারী পৌরসভার এ ধোপাছড়ি ইউনিয়ন। নামের সাথে ধোপাছড়ির মিল খুঁজে পাওয়া যায় যাওয়ার জন্য পা বাড়ালে। নদী পাহাড় বেষ্টিত এ ধোপাছড়িকে দেখতে অন্যরকম লাগে। চট্টগ্রাম শহর থেকে ৬০ কিলোমিটার দুরে প্রত্যন্ত পাহাড়ি জনপদে ঘেরা এ ধোপাছড়িতে প্রকৃতি তার সমস্ত সৌন্দর্য অকৃপণভাবে ঢেলে দিয়েছে। যা না দেখলে বোঝায় যায় না। বাংলাদেশের সবচেয়ে বৃহত্তম সেগুন বাগান গড়ে উঠেছে এ ধোপাছড়িতে। আর এ সেগুন বাগানগুলো আরো মহিমান্বিত করে তুলেছে ইউনিয়নকে। চতুর্দিকে পাহাড় ঘেরা এ ধোপাছড়িতে স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরও উল্লেখযোগ্য কোন উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি। অথচ সামান্য একটু পরিকল্পনা গ্রহণ করা হলে ধোপাছড়িতে গড়ে উঠতে পারে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র ও বোটানিকেল গার্ডেন। এক নাগারে ২ ঘন্টার নদীপথে ধোপাছড়িতে আসা-যাওয়া একটি রোমাঞ্চকর মুহূর্তও অনেকে অনুভব করেছেন। দোহাজারীর উপর দিে নদীপথে যেতে হলেও এ ধোপাছড়ির সৌন্দর্য্য এখনো ভ্রমণ পিপাসু মানুষকে হাতছানি দিয়ে ডাকে। যারাই একবার নৌপথে ধোপাছড়িতে গেছেন তারাই বারবার যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।


   সুন্দরবনের আদলে গড়ে উঠা ধোপাছড়িতে কৃত্রিমভাবে সৃষ্ট কোন দর্শনীয় স্থান না থাকলেও এখানকার সেগুন, গর্জন, গামারি, চাপালিশ, একাশিসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছের বাগান যে কারো মন কেড়ে নেবে প্রথম দর্শনে। এক কথায় বলা যায় পুরো ধোপাছড়িটাই যেন একটি বোটানিকেল গার্ডেন এবং পাহাড়ের নিম্মাংশে যেন সবজির ভান্ডার। কোন সরকারি বা বেসরকারি সংস্থা দায়িত্ব নিয়ে এ ধোপাছড়িকে পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তুললে এটিও হয়ে উঠবে বিনোদনের বিশাল একটি কেন্দ্র। অথচ স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরও অনিন্দ্য সুন্দর এলাকাটি উন্নয়নে কেউ এগিয়ে আসেনি। পাহাড়ি সমতল মিলে বিশাল আয়তনের এ ধোপাছড়িতে যাতায়াতের জন্য নির্মাণাধীন খাঁনহাট- ধোপাছড়ি- বান্দরবান সড়কটি নির্মাণ কাজ গত দুই যুগেও শেষ হয়নি। এ সড়কটি গাছবাড়িয়া কলেজ গেইট থেকে শুরু হয়ে মংলার মুখ পর্যন্ত সম্পন্ন হয়েছে। নির্মাণাধীন এ সড়কটির কাজ শেষ করলেই প্রতিষ্ঠিত হবে ধোপাছড়ির সাথে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। সে সাথে ধোপাছড়ি-দোহাজারী ধোপাছড়ি নদীপথে দ্রুত গতির ইঞ্জিনবোট চালু করা হলেই চট্টগ্রামে প্রতিষ্ঠিত হয়ে উঠবে এ ধোপাছড়ি।
    বাংলাদেশের এ ধোপাছড়ি একমাত্র ইউনিয়ন যেখানে ২টি বনবিট স্থাপন করা হয়েছে। ২টি বনবিট প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে বুঝা যায় ধোপাছড়িতে কি পরিমাণ বৃক্ষ রাজিতে সজ্জিত। বিট কর্মকর্তাদের মতে সুন্দরবন ছাড়া আর কোথাও ধোপাছড়ির মতো সৌন্দর্য্য খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাছাড়া পাহাড় নদী বেষ্টিত ধোপাছড়িকে ঘিরে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা হাতে নেয়া হলে এ ইউনিয়নটি হয়ে উঠতে পারে আন্তর্জাতিক মানের অনিন্দ্য সুন্দর একটি পর্যটন কেন্দ্র। যা থেকে আয় হতে পারে বিপুল পরিমাণ অর্থ। একই সাথে সৃষ্টি হবে হাজার হাজার মানুষের কর্মসংস্থান। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ একটু মনোযোগী হলে ধোপাছড়ি জাতীয় অর্থনীতিতে একটি অবদান রাখতে পারবে নি:সন্দেহে। ইউনিয়নটির পূর্ব সীমান্তে বান্দরবান যাওয়ার পথে ‘গোলা পাহাড়’ নামে ঐতিহ্যবাহী পাহাড়টি ধান রাখার গোলার মত। দুই পাশে বিশাল উচু উচু পাহাড় মধ্যখানে ধোপাছড়ি বান্দরবান সড়কটি প্রতিটি মানুষেরই স্মৃতিতে দাগ কাটে। অনেকে বলে উঠে কি অপরূপ প্রকৃতি যা ভোলা যায় না। একইভাবে বলেছিলেন এক সময়ের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খালিদ মেহেদী হাসান ও  ইশরাত রেজা, দেখলে মনে হয় মেঘ পাহাড়ের ছোয়া ছুয়ে দেখতে যান। যা বর্ষাকালে ঝর্ণার মত জল চলাচলও করে থাকে এ পাহাড়ের পাশ দিয়ে। সড়কের দুপাশ দিয়ে সবুজ টিলার যেন সমাহার। স্বপ্নের নীল মেঘে যেন ডাকা এ ধোপাছড়ি। কান পাতলেই শোনা যায় পাখির গান আর হাত বাড়ালেই রঙধনুর ছোয়া পাওয়া যায়। নাকে ভেসে আসে কনকচাপার মাতাল গন্ধ জড়ানো সুবাতাস। এখানে জোসনা রাতে চাঁদ নেমে আসে মাথার উপরে। আর কৃষ্ণপক্ষে আকাশ ঢেকে থাকে লক্ষ কোটি তারায় তারায়। উপজাতিরা নিজেরাই থাকার জন্য রয়েছে তাদের নিজেদের গড়া ছোট ছোট বাঁশের কটেজ। বন, ধনেশ, মুনিয়া, টুনটুনি বা মার্মা আদিবাসীদের বাড়ীর আদলে তৈরী এক একটি ঘর। ভেতরে পুরোপুরি আধুনিক ফিটিংস। তাদের ঘরের নিচে খালি থাকে ভাসমান অবস্থায় খুটির উপরে স্থাপন করা হয়েছে। দক্ষিণ চট্টগ্রামের সুন্দরবন নামে খ্যাত ধোপাছড়িকে ঘিরে একটি বোটানিকেল গার্ডেনসহ পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলা হলে হবে এটাই ভ্রমন পিপাসুদের প্রত্যাশা।
পাহাড়গুলি ছোট বড় গাছে ঢাকা তাই পাখির দেখা মিললেই অভয়াশ্রমই বলা যায়। দিনরাত ২৪ ঘন্টা পাখির কিচিরমিচির তো রয়েছেই। এমনকি তক্ষকের ডাকও। নগর জীবনের যান্ত্রিকতা থেকে দুদন্ড শান্তি দিতে বনলতা সেন নাই বা থাকুক ধোপাছড়ি তো রয়েছে। পাহাড়ের উঁচু নিচু বুক ছিড়ে একে বেকে গেছে পিচ ঢালা পথ। আকাশে ভেসে বেড়ায় নীল-সাদা মেঘের বেলা। মেঘলা আকাশে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য প্রান্তিক ছোট ছোট জলদ্বারা শান্তসৌম্য পরিবেশ, অপূর্ব প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে লীলা ভূমি ছেয়ে আছে কারো প্রতিক্ষায়। এ অবিরাম নৈসর্গিক পরিবেশের ধোপাছড়ি স্বপ্নীল যেখানে মেঘ হাতছানি দিয়ে ডাকছে আয়, আয়, আয়, তোরা আয়।
৭ হাজার একরের বিশাল বনাঞ্চল রক্ষা করতে বনবিভাগের স্বল্প সংখ্যক জনবলের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। ফলে ধোপাছড়িকে ঘিরে দীর্ঘ সময় গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি গাছ চোরের সিন্ডিকেট। এ গাছ চোরেরা মূলত সংরক্ষিত বনাঞ্চল থেকে অবৈধভাবে গাছ কেটে অনেকে কোটিপতি হয়ে গেছে। ফলে এ বনভূমির প্রাকৃতিক সম্পদগুলো রক্ষা হচ্ছে না যথাযথভাবে। ধোপাছড়ির অপার সৌন্দর্যের বর্ণনা একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচারিত হওয়ার পর থেকে চট্টগ্রাম থেকে বেশ কয়েকটি প্রতিনিধি দল এ অঞ্চলে দেখতে আসে।

 

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল


রিটেলেড নিউজ

২৮ ফেব্রুয়ারি ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস

২৮ ফেব্রুয়ারি ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস

newsgarden24.com

খন রঞ্জন রায়, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, মঙ্গলবার: সামাজিক, পারিবারিক, সাংগঠনিক যে কোন কোলাহলমূখর স... বিস্তারিত

ভুয়া রেডক্রিসেন্টের প্রতারণার শিকার ইউপি সদস্য!

ভুয়া রেডক্রিসেন্টের প্রতারণার শিকার ইউপি সদস্য!

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, রবিবার: চট্টগ্রামের পটিয়ায় ভূয়া ‘রেডক্রিসেন্টে&rsquo... বিস্তারিত

সংসদ নির্বাচনের ভোট গণনা চলছে ইরানে

সংসদ নির্বাচনের ভোট গণনা চলছে ইরানে

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, শনিবার: ইরানের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহ... বিস্তারিত

 ‘রাষ্ট্র ভাষা বাংলা চাই’: প্রেক্ষিত আজকের বাংলাদেশ

‘রাষ্ট্র ভাষা বাংলা চাই’: প্রেক্ষিত আজকের বাংলাদেশ

newsgarden24.com

রায়হান আজাদ, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, শুক্রবার: ভাষা মহান আল্লাহর অমূল্য দান। আল্লাহ পাক মানুষকে... বিস্তারিত

চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনীতরা

চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনীতরা

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, বৃহস্পতিবার: চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে আওয়ামী ল... বিস্তারিত

ফেনিতে পাওনা টাকা চাওয়ায় মালিক-শ্রমিকের হামলায় গুরুতর আহত ২

ফেনিতে পাওনা টাকা চাওয়ায় মালিক-শ্রমিকের হামলায় গুরুতর আহত ২

newsgarden24.com

সদর প্রতিনিধি, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, বুধবার: অগ্রিম টাকা পরিশোধ করেও যথাসময়ে ইট দেয়নি ফেনী সদ... বিস্তারিত

সর্বশেষ

শার্শায় ফেনসিডিল ও বাইসাইকেলসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক

শার্শায় ফেনসিডিল ও বাইসাইকেলসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক

newsgarden24.com

মেহেদী হাসান, বেনাপোল প্রতিনিধি, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, মঙ্গলবার: যশোরের শার্শা থেকে ৩৩ বোতল ফ... বিস্তারিত

ডা. শাহাদাত হোসেন চট্টগ্রাম আসছেন কাল, সংবর্ধনা রেল স্টেশনে

ডা. শাহাদাত হোসেন চট্টগ্রাম আসছেন কাল, সংবর্ধনা রেল স্টেশনে

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, মঙ্গলবার: চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ... বিস্তারিত

 বেগম খালেদা জিয়া’র জনপ্রিয়তায় ভীত আওয়ামীলীগ: আবুল হাশেম বক্কর

বেগম খালেদা জিয়া’র জনপ্রিয়তায় ভীত আওয়ামীলীগ: আবুল হাশেম বক্কর

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, মঙ্গলবার: চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ... বিস্তারিত

পেসার নিল ওয়াগনারের দলে ফেরা কেবল সময়ের অপেক্ষা

পেসার নিল ওয়াগনারের দলে ফেরা কেবল সময়ের অপেক্ষা

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইংরেজী, মঙ্গলবার: ওয়ানডে সিরিজে ধোলাই করার পর প্রথম টেস্টে ভ... বিস্তারিত