চট্রগ্রামের সীতাকুণ্ড পাকবাহিনী প্রায় মুক্ত আজ, তবে ১৬ ডিসেম্বর হত্যা ও ব্রীজ ধ্বংসের মাধ্যমে সস্পূর্ণ মুক্ত

newsgarden24.com    ০৫:৫৬ পিএম, ২০২১-১২-১২    269


চট্রগ্রামের সীতাকুণ্ড পাকবাহিনী প্রায় মুক্ত আজ, তবে ১৬ ডিসেম্বর হত্যা ও ব্রীজ ধ্বংসের মাধ্যমে সস্পূর্ণ মুক্ত

কাইয়ুম চৌধুরী, সীতাকুণ্ড: চট্রগ্রামের প্রবেশ মুখ সীতাকুণ্ড সদর হানাদারমুক্ত হয় ১৯৭১ সালের ১৩ ডিসেম্বর,  তবে ১৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যা পর্যন্ত বাড়বকুণ্ড থেকে ফৌজদার হাট এলাকায় খণ্ড খণ্ড যুদ্ধ ও বেশ কয়েকজন কে হত্যা ও ভাটিয়ারীতে একটি ব্রীজ ধ্বংসের মাধ্যমে হানাদার বাহিনী সম্পূর্ন মুক্ত হন।
শুভপির এলাকা থেকে বিশাল একটি হানাদার বাহিনী বহর চট্রগ্রাম মুখী আসছেন খবর পেয়ে সীতাকুণ্ডের কুমিরায় সীতাকুণ্ডের মুক্তিযোদ্ধারা পূর্ব থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে নেয় প্রতিরোধের জন্য,বাড়বকুণ্ড বাজারে হানাদাররা পৌঁছলে বাদশা আলম নামা এক কৃষক গাড়ীর সামনে দাঁড়িয়ে প্রতিরোধ করার চেষ্টা করে,তার হাতে একটি মাত্র লাঠি ছিল,সে কয়েকজন কে লাঠি দিয়ে আঘাত করলেও হানাদাররা মেশিংগানের কাছে হার মানতে হয়,সীতাকুণ্ডে প্রথম হত্যা হয় বাদশা আলম।কুমিরা মুক্তিবাহিনীর সাথে হানাদার বাহিনীর  যুদ্ধের সূচনালগ্নে সংঘটিত যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধারা প্রাথমিকভাবে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করে যা তাঁদের মনোবল অনেক বাড়িয়ে দেয়। এই যুদ্ধে ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্ট ও ইপিআরের মাত্র শ’খানেক সৈন্যের আক্রমণে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর একটি কোম্পানি প্রায় নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়।
১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ সীতাকুণ্ডে খবর এল কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট থেকে বেলুচ রেজিমেন্টের সেনাবাহিনীর বিশাল বহর সীতাকুণ্ডের দিকে আসছে। খবর পেয়ে বাড়বকুণ্ডের শিল্পাঞ্চলের শ্রমিক-জনতা গাছ কেটে মহাসড়ক অবরোধ করে। বিকেলের দিকে পাকিস্তানি বাহিনী বাড়বকুণ্ড পৌঁছালে সাহসী যুবক বদিউল আলম বাদশা তাঁর হাতের লাঠি দিয়ে এক পাকিস্তানি সেনার অস্ত্র ছিনিয়ে নেন। পরে পাকিস্তানি সেনারা বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে তাঁকে নির্মমভাবে হত্যা করে। এ হত্যার খবর কুমিরায় পৌঁছালে ক্ষিপ্ত হয়ে জনতা গাছ কেটে মহাসড়ক অবরোধ করে। পাকিস্তানিদের সাঁজোয়া যান সেখানে পৌঁছাতেই কামাল উদ্দীন নামের এক ছাত্র পাকিস্তানি সেনাদের ইট নিক্ষেপ করে দৌঁড়ে পালানোর সময় সেনারা গুলি ছোঁড়ে। এতে শহীদ হন কামাল।
মুক্তিযুদ্ধা ক্যাপ্টেন ভূঁইয়া  জানায়, কুমিরার যুদ্ধে আমার নির্দেশমতো সবাই মাটিতে পজিশন নিয়ে নিল। পজিশনের অবস্থা ছিল অনেকটা ইংরেজি ‘ইউ’ অক্ষরের মতো। অর্থাৎ ডানে, বাঁয়ে এবং পেছনে আমাদের মুক্তিবাহিনী, যেদিক থেকে পাকিস্তানি সৈন্যরা এগিয়ে আসছে কেবল সেই সামনের দিকটাই খোলা। অল্প সময়ে পুরো এলাকা প্রস্তুত। স্থানীয়দের সহযোগিতায় একটি বড় গাছ কেটে ও ইট-পাথর ফেলে ইপিআর সৈন্যদের অবস্থানের সামনে পাকসেনাদের জন্য ব্যারিকেড তৈরি করা হয়।
তখন সন্ধ্যা সোয়া ৭টা। সামনে ব্যারিকেড দেখে পাকিস্তানি সৈন্যরা প্রতিবন্ধকতা সরানোর জন্য কনভয় থামাতে বাধ্য হয়। সামরিক যান থেকে নেমে পাকিস্তানি সৈন্যরা ব্যারিকেড সরানোর উদ্যোগ নেয়া মাত্রই অন্ধকারের নিস্তব্ধতা ভেঙে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী তাদের ওপর একযোগে হেভি মেশিনগান, এলএমজি ও রাইফেল দিয়ে গুলিবর্ষণ শুরু করেন ক্যাপ্টেন ভূঁইয়ার সৈন্যরা। আকস্মিক এই তীব্র আক্রমণে হতভম্ব, ভীত সন্ত্রস্ত শত্রু সৈন্যরা নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে ছুটোছুটি শুরু করে।

অবশ্য প্রাথমিক বিপর্যয় কাটিয়ে উঠে পাকিস্তানি সেনারা সংগঠিত হয়ে পাল্টা আক্রমণের চেষ্টা করে। মেশিনগান, মর্টার ও আর্টিলারির গোলা বর্ষণ করে। উভয়পক্ষে তুমুল যুদ্ধ শুরু হয়। আর্টিলারি ফায়ারের সাহায্যে মুক্তিবাহিনীর মেশিনগান ধ্বংস করার প্রয়াস ব্যর্থ হয়। প্রায় ২ ঘণ্টা প্রাণপণ লড়াই করে অবশেষে সুসজ্জিত পাকিস্তানি বাহিনী পরাজয় স্বীকার করে পিছু হটতে বাধ্য হয়। ফেলে যায় ২ ট্রাক অস্ত্র ও গোলাবারুদ। সে যুদ্ধে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ২৪ ফ্রন্টিয়ার ফোর্সের সিও (কমান্ডিং অফিসার) লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাহপুর খানসহ ১৫২ জন পাকিস্তানি সৈন্য নিহত হয়। এছাড়াও তাদের তিনটি গাড়ি ধ্বংস হয়। মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ১৪ জন শহীদ হন তখন।
সীতাকুণ্ড অংশে আক্রমণ ও প্রতিরোধ চলতে থাকে এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত।মুক্তিযোদ্ধা-সাংবাদিক নাসিরুদ্দিন চৌধুরী  বলেন, ১২ তারিখ সীতাকুণ্ড সদরে সম্মুখযুদ্ধ হয়। রাতে মুক্তিবাহিনী ও মিত্রবাহিনী সীতাকুণ্ড থানা ও উপজেলা সদর হানাদারমুক্ত করে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলো তাদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। রাতেই বাংলাদেশ ও মিত্রবাহিনী কুমিরায় পাকিস্তানিদের ডিফেন্সের সীমানায় পৌঁছে যায়। কুমিরায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে একটি গভীর খালের ওপরে থাকা ব্রিজ উড়িয়ে দিয়ে পাকিস্তানিরা ব্রিজের দক্ষিণে রাস্তার দুপাশে শক্তিশালী ডিফেন্স তৈরি করেছিল। ১৪ ডিসেম্বর গভীর রাত পর্যন্ত এখানে পাকিস্তানি বাহিনীর সাথে যৌথ বাহিনীর তুমুল লড়াই চলে। ভোর ৩টায় যৌথ বাহিনী কুমিরা মুক্ত করতে সক্ষম হয়।

১৫ ডিসেম্বর কুমিরার দক্ষিণে পাকিস্তানিদের কতগুলো অস্থায়ী ডিফেন্স ভেঙে যৌথ বাহিনী ভাটিয়ারিতে পৌঁছে যায়। সেখান থেকে ফৌজদারহাট পর্যন্ত পাকিস্তানি সেনাবাহিনী প্রবল প্রতিরক্ষা অবস্থান তৈরি করেছিল। এখানে ১৬ ডিসেম্বর প্রায় সন্ধ্যা পর্যন্ত যুদ্ধ হয়। এক পর্যায়ে পাকিস্তানি বাহিনী পিছু হটতে থাকে। পালানোর সময় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ভাটিয়ারি অংশে তারা একটি সেতু ধ্বংস করে দিয়ে যায়। যে কারণে চট্টগ্রামের পথে আগুয়ান মুক্তিযোদ্ধা-স্বেচ্ছাসেবক ও ভারতীয় বাহিনীর অগ্রযাত্রা বিলম্বিত হয়। ১৬ ডিসেম্বর সারা রাত সেতুর পাশে খালের মধ্যে একটি বিকল্প সড়ক তৈরি করা হয়। এরপর বাংলাদেশ মুক্তি বাহিনী দ্রুত বিনাবাধায় চট্টগ্রাম শহরে প্রবেশ করে ।
মুক্তিযুদ্ধা সংগঠক ডাঃ এখলাছ উদ্দিন জানায়,হানাদার বাহিনী প্রথম দিনই সীতাকুণ্ডের বাড়বকুণ্ড বাধা পায়,বড় কুমিরায় সামনাসামনি যুদ্ধ হয়,প্রায় দেড় শতাধিক পাক বাহিনী মৃর্ত্যু বরন করে মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে।

 

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল


রিটেলেড নিউজ

করোনা আক্রান্ত সাংবাদিক কাউছার

করোনা আক্রান্ত সাংবাদিক কাউছার

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন সাংবাদিক কাউছার আলম। তিনি পটিয়া উপজেল... বিস্তারিত

এ বছরে চট্টগ্রামে হাইকোর্টের একটি সার্কিট বেঞ্চ হবে: আইনমন্ত্রী

এ বছরে চট্টগ্রামে হাইকোর্টের একটি সার্কিট বেঞ্চ হবে: আইনমন্ত্রী

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: আইনমন্ত্রী বলেন, দেশে আইন কর্মকর্তাদের সম্মানী সন্তোষজনক করার প্রক্রিয়া চলমা... বিস্তারিত

দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষর

দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষর

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: বাংলাদেশ ন্যাশনাল কোয়ালিফিকেশন ফ্রেমওয়ার্কের আওতায় ডিজিটাল মার্কেটিং এ দক্... বিস্তারিত

প্রধানমন্ত্রী বরাবরে পাটকল শ্রমিকদের চিঠি

প্রধানমন্ত্রী বরাবরে পাটকল শ্রমিকদের চিঠি

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: পাটকলের শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ ও কারখানা খুলে দেওয়ার দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর ক... বিস্তারিত

পরিচ্ছন্নতা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের রুচিবোধের প্রকাশ পায়: মেয়র

পরিচ্ছন্নতা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের রুচিবোধের প্রকাশ পায়: মেয়র

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী নগর উন্নয়নে ব্যবসায়ীদ... বিস্তারিত

চট্টগ্রামে মিথ্যা মামলায় সংবাদ কর্মীকে ফাঁসানোর অভিযোগ

চট্টগ্রামে মিথ্যা মামলায় সংবাদ কর্মীকে ফাঁসানোর অভিযোগ

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রামে প্রবাসীর ভাইয়ের পাঠানো পাওনা টাকা দাবি করায় এক সংবাদ কর্মীকে আরেক ... বিস্তারিত

সর্বশেষ

শহীদ জিয়া দেশকে সংকট থেকে মুক্ত করেছেন: মোশাররফ হোসেন দীপ্তি

শহীদ জিয়া দেশকে সংকট থেকে মুক্ত করেছেন: মোশাররফ হোসেন দীপ্তি

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশাররফ হোসেন দীপ্তি বলেছেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি ... বিস্তারিত

শহীদ জিয়ার ৮৬তম জন্মবার্ষিকীতে নগর ছাত্রদলের শ্রদ্ধাঞ্জলী

শহীদ জিয়ার ৮৬তম জন্মবার্ষিকীতে নগর ছাত্রদলের শ্রদ্ধাঞ্জলী

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: ১৯ জানুয়ারি মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপি'র প্রতিষ... বিস্তারিত

শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৬ তম জন্মদিনে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল

শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৬ তম জন্মদিনে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সহ সভাপতি আলাউদ্দিন মহশিনের নেতৃত্বে চট্ট... বিস্তারিত

সীতাকুন্ডের ভাটিয়ারী সাগর উপকূল থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

সীতাকুন্ডের ভাটিয়ারী সাগর উপকূল থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

newsgarden24.com

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি: চট্রগ্রামের সীতাকুণ্ড ভাটিয়ারী উপকূলীয় এলাকা  থেকে অজ্ঞাত (৫০) এক ব্যক্তির... বিস্তারিত