চট্টগ্রামে ভয়ংকর গ্যাং, নিষ্ক্রিয় অভিযান

newsgarden24.com    ০৭:৪০ পিএম, ২০২১-০৮-১২    395


চট্টগ্রামে ভয়ংকর গ্যাং, নিষ্ক্রিয় অভিযান

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রামে ২০১৮ সালে স্কুল ছাত্র আদনান ইসফার হত্যাকাণ্ডের পর চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ নগরের ১৬ থানায় কিশোর গ্যাং তালিকা প্রস্তুত করেন। পাশাপাশি উঠে আসে ৪৮ গডফাদার (কথিত বড়) ভাইদের নাম। যাদের অধিকাংশ সরকারি দলের নাম ভাঙিয়ে অপরাধের বিশাল নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে। সেই তালিকার তিনজন ইতিমধ্যে চসিকের কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছে।

ঢাকায় কিশোর গ্যাং ও সন্ত্রাস বিরোধী ব্যাপক অভিযান দেখা গেলেও, বন্দর নগরী চট্টগ্রামে আশানুরূপ অভিযান কিংবা সাফল্য দেখা মিলেনি। আলোচিত গ্যাং লিডার ও তাদের গডফাদাররা বরাবর ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে গেছে। এসব গ্রুপের হাতে থাকা অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার না হওয়ায় অপরাধে মাত্রা দিনদিন বাড়ছেই। তুচ্ছ বিষয়ে অস্ত্র হাতে সংঘর্ষ থেকে খুনোখুনিতে জড়িয়ে যাচ্ছে তারা।

বাকলিয়া থানাধীন বলিহারহাটে সম্প্রতি কবরস্থানের বিরোধ নিয়ে বেপরোয়া গুলি চালায় এয়াকুব বাহিনী। এঘটনায় অন্তত ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ ১৫ জন আহত হয়। আর তাদের অস্ত্র সরবরাহ করে ভয়ংকর গ্যাং লিডার দেলোয়ার হোসেন ওরফে ছোট দেলোয়ার। তার বিরুদ্ধে বাকলিয়া, চকবাজার ও চান্দগাঁও থানা এলাকায় বেপরোয়া কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ, চাঁদাবাজিসহ অস্ত্র ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। অপরাধ জগতে তার সহযোগী পাগলা মাসুদ ও পিচ্ছি ওসমান কবরস্থানের ঘটনায় অস্ত্রসহ আটক হয়ে কারাগারে আছে। এদিকে, দেলোয়ারের বিরুদ্ধে হত্যাসহ ডজন মামলা বিচারাধীন আছে। এছাড়া, চলতি বছর জানুয়ারী মাসে দেওয়ান বাজার এলাকায় রোহিত নামে এক ছাত্র সন্ত্রাসীদের ছুরিকাঘাতে মারা যায়।

২০১৯ সালের খালপাড়ে দুই গ্যাংয়ের বিরোধে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায় লোকমান নামে এক যুবক। এর একদিন পর পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মারা যায় প্রধান আসামী সাইফুলও। তবুও এলাকাটিতে কমেনি বেপরোয়া গ্যাং গুলোর ত্রাস। ২০১৮ সালের ২৭ এপ্রিল চকবাজার ডিসি রোডে ক্যাবল ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ফয়সাল ওরফে কিলার ফয়সালের গুলিতে মারা যায় ফরিদুল ইসলাম নামে আরেক সন্ত্রাসী। ২০১৪ সালে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইমনকেও রাস্তায় প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করেছিল সে। ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর বায়েজিদে শ্রমিক নেতা রিপন হত্যা মামলায় এজাহারনামীয় আসামী সে৷ তার বিরুদ্ধে নগরের বিভিন্ন থানায় অন্তত ১৮টি মামলা রয়েছে। এছাড়াও বাকলিয়ায় বেপরোয়া গ্যাং নিয়ন্ত্রণ করছে শেখ মহিউদ্দিন, সোহেল রানা ওরফে সেলু, এস এম সামাদ, রসুলবাগের তামিমসহ অনেকেই।

চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানা এলাকায় ভয়ংকর হয়ে উঠেছে ৬ মামলার আসামী মোঃ জুয়েল ওরফে ধামা জুয়েল। অপরাধ জগতে জুয়েল একা নন, রয়েছে তার ভাই রাজু বাদশা ওরফে হামকা রাজুও। গতবছর ৫ নভেম্বর র‌্যাবের অভিযানে বিদেশি পিস্তলসহ র‌্যাব-৭ হামকা রাজুকে আটক করে। সেই থেকে রাজু কারাগারে থাকলেও গ্রুপটির ত্রাস কমেনি। হাল ধরেছে রাজুর ভাই ধামা জুয়েল। এর আগে তাদের চাচাতো ভাই মো. ফারুক চান্দগাঁও থানার চাঞ্চল্যকর জোড়া খুনের ঘটনায় পিস্তলসহ র‌্যাবের হাতে আটক হয়। বহদ্দারহাট এলাকায় চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসা, ছিনতাই, জুয়ার আসরসহ পতিতালয় ও লোকজন আটকে রেখে অর্থ আদায়ের মত গুরুতর অপরাধে সক্রিয় ধামা জুয়েল ও তার সহযোগীরা। রয়েছে ভয়ংকর গ্যাং। আধিপত্য বিস্তার ও অপরাধ সাম্রাজ্য টিকিয়ে রাখতে অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার, মহড়া দিয়ে আতংক সৃষ্টি ও সংঘর্ষে জড়িয়ে যায় গ্রুপটি। তাদের ভাণ্ডারে বিপুল অস্ত্র-গুলি থাকার তথ্য থাকলেও, তা উদ্ধারে অভিযান নেই প্রশাসনের। এছাড়া বেপরোয়া গ্যাং নেতৃত্ব দিচ্ছে- শমসের পাড়ার ড্রিল জালাল, কিরিচ নেওয়াজ, শাহী আবাসিকের মাহাতাব কবির, বহদ্দারহাটের হামিদ শিকদার ও ইশতিয়াক আলী ওয়াসিফ।

ডবলমুরিং থানাধীন আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকায় চাঁদাবাজিকে ঘিরে প্রায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে যায় এখানকার গ্রুপ গুলো। শুদ্ধি অভিযানে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মারা যায় কিশোর গ্যাং গডফাদার খুরশিদ আহমেদ। তবুও কমেনি গ্যাং গুলোর ত্রাস। গত এক বছরে গ্রুপিংয়ের দ্বন্দ্বে আরো দুইটি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে এখানে। আগ্রাবাদ বাণিজ্য এলাকার ত্রাস হিসেবে পরিচিত সুমন ওরফে দাঁতলা সুমন। সে পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। রয়েছে ভয়ংকর বাহিনী। তার বিরুদ্ধে ডবলমুরিং থানায় মামলা রয়েছে ১৫টি। ২০১৯ সালে ঈদের দিন বাসা থেকে ডেকে নিয়ে সোহেল নামে এক শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে হত্যা করেছিল সুমনের গ্রুপ। অস্ত্রহাতে ছবিসহ পত্রিকার শিরোনামও হয়েছে বেশ কয়েকবার। এখানে অন্যান্য বেপরোয়া গ্যাং নেতৃত্ব দিচ্ছে পিচ্ছি আলো ও দেওয়ানহাট এলাকায় ছাত্রলীগের তওহীদুল ইসলাম।
চকবাজার থানা পুলিশের কিশোর গ্যাং তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে চার মামলার আসামী ছাত্রলীগের সাদ্দাম হোসেন ইভান। তার বিরুদ্ধে এলাকায় মারামারি ও ত্রাস সৃষ্টিসহ নানা অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগ দীর্ঘদিন। গত ৯ আগষ্ট চকবাজার সাফ আমিন মার্কেটে চাঁদা না পেয়ে তাণ্ডব চালিয়েছে এই গ্যাং লিডার। এর আগে ছেলের সাথে বিরোধের জেরে ৪ জানুয়ারী একটি চশমার দোকান পিতাপুত্রকে মেরে রক্তাক্ত ও পুরো দোকান ভেঙে তছনছ করে দেয় এই গ্রুপের সদস্যরা। ইভানের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে এক ব্যবসায়ীকে অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়ের ঘটনায় পাঁচলাইশ থানায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামী হয়, মামলা নং- ১৭(৭)১৭। সম্প্রতি চমেক হাসপাতালে চিকিৎসকের উপর বহিরাগত সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায়ও আসামী ইভান। তুচ্ছ বিষয়ে অস্ত্র প্রদর্শন কিংবা গুলাগুলিতে জড়িয়ে যায় রীতিমতো। এছাড়াও চকবাজারে বেপরোয়া গ্যাং নেতৃত্ব দিচ্ছে- নাইমুল হাসান তুষার, নাজমুল হাসান তোফা, মোস্তফা শাকিল, রবিউল ইসলাম রাজু।

বিগত এক দশকে আধিপত্যের লড়াইয়ে সর্বোচ্চ খুনোখুনি হয়েছে সদরঘাট থানা এলাকায়। অথচ, সম্প্রতি নগর পুলিশের তৈরি করা সন্ত্রাসী তালিকায় এখানে কোন সন্ত্রাসী নেই উল্লেখ করা হয়েছে। কদমতলিতে গুলি করে হত্যা করা হয় পরিবহন ব্যবসায়ী হারুনকে, দক্ষিণ নালা পাড়ায় পিটিয়ে হত্যা করা হয় নগর ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক সুদীপ্ত বিশ্বাসকে, কামাল গেইটে আব্দুল জাহেদ, সাহেব পাড়ায় ইদ্রিস ও আলকরণ মোড়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইব্রাহীম মানিককে গুলি করে হত্যা করা হয়। মামুন ও ওসমান নামে দুইজন প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে মারা যায়। রাজনৈতিক দাপুটে নেতাদের হয়ে এখানে ভয়ংকর গ্যাং নেতৃত্ব দিচ্ছে ছাত্রলীগ নামধারী মোশাররফ হোসেন ওরফে ডাবু ফয়সাল। আইস ফ্যাক্টরি রোড়ে মুজিব নগর ক্লাবের নামে গড়েছে বিশাল আখড়া। সেখান থেকেই নিয়ন্ত্রণ হয় ডাবু ফয়সাল গ্রুপের সমস্ত কার্যক্রম।

পাঁচলাইশ থানার ২নং গেইট এলাকার ত্রাস সোলেমান বাদশা। ২০১৮ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারী নাসিরাবাদ সিন্ডবি কলোনি থেকে তিনটি মোটরসাইকেল নিয়ে ৯ জনের একটি দল প্রতিপক্ষের উপর হামলার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। দুই নম্বর গেইট মোড় অতিক্রম করতেই সামনে পড়ে পুলিশের চেকপোস্ট। মুহূর্তেই তাদের একজন পুলিশের উপর গুলি চালায়। এ ঘটনায় পাঁচলাইশ থানার এ এস আই আব্দুল মালেক পাঁয়ে গুলিবিদ্ধ হন। গুলি করেছিল খোকন নামে এক কিশোর। আর তাদের অস্ত্র সরবরাহ করেছিল গ্যাং লিডার সোলেমান বাদশা। কিছুদিন আগেও ঠিকাদারের কাছে চাঁদাবাজির ঘটনায় আটক হয়েছিল। প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নাসিম আহমেদ সোহেল হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামী সে।

২০১৮ সালের এপ্রিলে দেশজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করা স্কুল ছাত্রী তাসফিয়া আমিন হত্যা মামলার মধ্যদিয়ে উঠে আসে 'রিচ কিডস' নামে একটি কিশোর গ্যাং। মামলার প্রধান অভিযুক্ত আদনান মির্জা গ্রুপটির নেতৃত্বে ছিল। তাদের বড় ভাই ছিল পাঁচলাইশ এলাকার টপ টেরর মো. ফিরোজ ওরফে ডাকাত ফিরোজ। মুরাদপুর এলাকায় কিশোর যুবকদের নিয়ে গড়ে তুলেছে ভয়ংকর গ্যাং। বায়েজিদ ও পাঁচলাইশ এলাকায় নতুন বাড়ি নির্মাণ করতে গেলে চাঁদা দিতে হয় তাকে। গতবছর চাঁদার জন্য এক প্রবাসীর ভবনে পেট্রোল বোমা হামলা চালায় গ্রুপটি। বিভিন্ন সময় অস্ত্রসহ তিনবার আটক হয়েছে। রয়েছে হত্যাসহ অন্তত এক ডজন মামলা।

কালারপুল ও খতিবেরহাট এলাকায় বেপরোয়া হয়ে উঠেছে কিশোর গ্যাং লিডার নাছির উদ্দিন ওরফে লম্বা নাছির। একছত্র অধিপত্য তার। বিভিন্ন সময় ভুক্তভোগীরা অভিযোগ কিংবা মামলা করেও রেহাই পাইনি। বহাল তবিয়তে রয়েছে। ২০১৯ সালের ১৩ ডিসেম্বর পাশ্ববর্তী ফরিদের পাড়া এলাকায় দিন দুপুরে প্রকাশ্যে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয় নুরুল আলম নামের এক যুবককে। এ ঘটনায় জড়িতরা সবাই ছিল নাছিরের গ্যাং সদস্য। এতে নেতৃত্ব দেয় ইমন ও আমজাদ নামে দুই কিশোর।

২০১৭ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি সিটি কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী ইয়াছিনকে আমতল এলাকায় দিন দুপুরে পিটিয়ে ও গলার রগ কেটে খুন করা হয়। এরপর রাণীরদিঘী থেকে ড্রামে ভর্তি এক যুবকের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় আটক হয় যুবলীগ ক্যাডার অমিত মুহুরী। পরে কারাগারের ভেতর অপর এক বন্দীর হাতে সেও মারা যায়। কোতোয়ালি মোড় ও নিউ মার্কেট এলাকায় বেপরোয়া কিশোর গ্যাং দিয়ে সন্ত্রাসী কার্যকলাপে সক্রিয় দশ মামলার আসামী আলকরণের শাহেদুল আলম ওরফে কালা জুয়েল। সম্প্রতি তার গ্রুপের তিন সদস্যকে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করেছে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। এর আগে অভয়মিত্র ঘাটে এক কিশোরকে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে জুয়েল। এসময় দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুটে এলাকায় আতংক ছড়িয়ে দেয়।

 

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল


রিটেলেড নিউজ

উপজেলা ও পৌরসভাগুলোকে শক্তিশালী করতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব

উপজেলা ও পৌরসভাগুলোকে শক্তিশালী করতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস বলেছেন, দেশের উপজেলা পরিষদ ও পৌরসভাগ... বিস্তারিত

‘চট্টগ্রামের ফুসফুস সিআরবিকে রক্ষার আহবান’

‘চট্টগ্রামের ফুসফুস সিআরবিকে রক্ষার আহবান’

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রামের ফুসফুস খ্যাত অনন্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যমন্ডিত এলাকা সিআরবি। যেখ... বিস্তারিত

বহদ্দারহাটে অভিযান, আবার দখল হকারদের!

বহদ্দারহাটে অভিযান, আবার দখল হকারদের!

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: কী নেই ফুটপাত জুড়ে! বিচিত্র সব জিনিস ঠেলে কিছুটা জায়গা করে নিয়ে চলাচল করলেও বেশ... বিস্তারিত

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: গত ৬ সেপ্টেম্বর  নিউজগার্ডেন অনলাইনে ‘‘সৈয়দ শাহাবুদ্দীন শামীম’র বিরুদ্... বিস্তারিত

আইপিটিভি বন্ধ ৫৯টি!

আইপিটিভি বন্ধ ৫৯টি!

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: ৫৯টি অনিবন্ধিত ও অবৈধ ইন্টারনেট প্রটোকল বা আইপিটিভি বন্ধ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ... বিস্তারিত

স্কুল-মাদরাসায় নির্দেশনা মানা হচ্ছে না!

স্কুল-মাদরাসায় নির্দেশনা মানা হচ্ছে না!

newsgarden24.com

এম এম রাজা মিয়া রাজু: স্কুল মাদরাসায় সরকারী নির্দেশনা মানা হচ্ছে না। স্কুল মাদরাসায়  প্রতিবেঞ্চ... বিস্তারিত

সর্বশেষ

‘পাহাড় ও পরিবেশ ধ্বংস বন্ধ করতে চট্টগ্রামের মানুষকে এক করবে সবুজ আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর’

‘পাহাড় ও পরিবেশ ধ্বংস বন্ধ করতে চট্টগ্রামের মানুষকে এক করবে সবুজ আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর’

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: সবুজ আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির পরিবেশ ও জলবায়ু বিপর্যয় রোধে সচেতনতা তৈর... বিস্তারিত

উপজেলা ও পৌরসভাগুলোকে শক্তিশালী করতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব

উপজেলা ও পৌরসভাগুলোকে শক্তিশালী করতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস বলেছেন, দেশের উপজেলা পরিষদ ও পৌরসভাগ... বিস্তারিত

জিরি ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাংগঠনিক কর্মী সভা

জিরি ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাংগঠনিক কর্মী সভা

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপি'র আহ্বায়ক কমিটির বিপ্লবী সদস্য, পটিয়া বিএনপি'র... বিস্তারিত

গণতন্ত্রকে অক্ষুন্ন রাখতে ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিএনপির নেতাকর্মীরা লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে: আবু সুফিয়ান

গণতন্ত্রকে অক্ষুন্ন রাখতে ও জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিএনপির নেতাকর্মীরা লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে: আবু সুফিয়ান

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আলহাজ্ব আবু সুফিয়ান বলেন, বিএনপি এখন সবচ... বিস্তারিত