চসিক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রী নির্যাতনের অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠন

newsgarden24.com    ০৮:৩২ পিএম, ২০২০-১১-১৯    92


চসিক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রী নির্যাতনের অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: নবম দশম শ্রেণির ছাত্রীদের শারীরিক, মানসিক নির্যাতন, ক্লাসে উপস্থিত না থাকা, সহকর্মীদের সাথে খারাপ আচরণ সর্বশেষ স্কুলের দফতরীকে মেরে আহত করাসহ ১২ অভিযোগ জমা হয়েছে চসিক প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয়ে।
গত দুই বছর ধরে অভিযোগের পর অভিযোগ জমা হওয়ায় চলতি মাসে শাস্তি স্বরূপ তাকে অন্য বালিকা বিদ্যালয়ে বদলী করা হয়েছে। চসিকের উদ্যোগে গঠন করা  হয়েছে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি। কাপাসগোলা সিটি কর্পোরেশন কলেজের অধ্যক্ষ মনোয়ারা জাহান বেগমকে প্রধান করে গঠিত তদন্ত কমিটির অন্য দুই সদস্য হচ্ছেন পোস্তারপাড় আসমা খাতুন সিটি কর্পোরেশন কলেজের সহকারী অধ্যাপক রুপনা দাশ, সরাইপাড়া সিটি কর্পোরেশন কলেজের সহকারী অধ্যাপক এবিএম মাহাবুবুল হক।
এইসব অনিয়মের বিষয়ে চসিক প্রশাসক খোরশেদুল আলম সুজন বলেন, অভিযোগ পাওয়ায় উক্ত শিক্ষককে বদলী করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়া সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
চট্টগ্রাম কতোয়ালী থানাধীন কৃষ্ণকুমারী সিটি কর্পোরেশন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন সহকারী শিক্ষক তানসেন দেওয়ানজী। নিজের হাত অনেক লম্বা বলে সহকর্মী ও ছাত্রীদের মধ্যে খারাপ আচরণ করতেন হরহামেশা। যখন তখন ছাত্রীদের গায়ে হাত তুলেছেন। তার মারধর থেকে রেহায় পায়নি ৫৭ বছর বয়স্ক দপ্তরি।
নিজের প্রভাব খাটিয়ে গত ১০ বছর ধরে স্কুলের ১৩ শত ছাত্রীকে টিফিন সরবরাহকারী কমিটির আহবায়ক তিনি। গত দশ মাসের লক ডাউনে গনিত, পদার্থ বিজ্ঞানের শিক্ষক হওয়া সত্ত্বেও একদিনও স্কুলের অনলাইন প্লাটফর্মে ক্লাস নেননি।
স্কুলের ভুক্তভোগী ছাত্রী ও অভিভাবকরা জানান, কৃষ্ণ কুমারী উচ্চ বিদ্যালয়ের গনিত এবং পদার্থ বিজ্ঞানের শিক্ষক তানসেন দেওয়ানজী ঠিক মতো ক্লাস নিতেন না। স্কুলের অদূরে নিজ বাসায় ছাত্রীদের প্রাইভেট পড়তে বাধ্য করতেন। অনিয়মিত ক্লাসে এসে তার কাছে প্রাইভেট পড়তে না যাওয়া ছাত্রীদের শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন করতেন।
৭ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে স্কুলের প্রধান শিক্ষক বরাবরে লিখিত অভিযোগে একজন অভিভাবক জানান, নির্বাচনি পরীক্ষা গনিত বিষয়ে পরীক্ষার দিন তানসেন দেওয়ানজীর নির্দেশে প্রশান্ত কুমার নামে অপর শিক্ষক আমার মেয়েসহ ১১জন ছাত্রীর খাতা সোয়া একঘন্টা আটকে রাখে। অভিভাবক এই বিষয়ে কথা বলতে গেলে তাকে অপমান করে স্কুল থেকে বের করে দেয়া হয়। শিক্ষক অন্যায়ভাবে খাতা আটকে রাখা ও বাবাকে অপমান করায় সেই ছাত্রী মানসিক সমস্যাগ্রস্থ হয়ে পড়ে। যে কারণে সে পরবর্তী এসএসসি পরীক্ষায় খারাপ ফলাফল করে।
উক্ত স্কুলের দুইজন আয়া, একজন দপ্তরি তাদের শারীরিক নির্যাতন করে আহত করেছে মেয়র ও প্রধান শিক্ষক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। দপ্তরি ৫৭ বছর বয়সি মুক্তিযোদ্ধা সন্তান অজয় দাশ বলেন, চা নিয়ে তানসেন স্যারের কক্ষে গেলে অনুমতি না নেওয়ার অভিযোগে আমাকে কিল-ঘুষি ও লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেন। আমি আগে থেকে অসুস্থ। তানসেন দেওয়ানজীর আঘাতের কারণে এখন চলাফেরা করতে সমস্যা হয়।
কাপাসগোলা কলেজের অধ্যক্ষ মনোয়ারা জাহানকে প্রধান করে চসিক গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গত মঙ্গলবার সকালে স্কুলে অভিযোগের তদন্ত করতে আসেন। ওই দিন সরেজমিন স্কুলে গিয়ে দেখা যায়, পাঁচজন ছাত্রী, তাদের অভিভাবক নিয়ে, চারজন অভিভাবক তানসেন দেওয়ানজীর বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগের সাক্ষী দিতে এসেছেন। নবম শ্রেণীর এক ছাত্রী জানান, স্যার পূর্ব থেকে আমাকে ওনার কাছে প্রাইভেট পড়তে বলতেন। আমি প্রাইভেট না পড়ায় একদিন ক্লাসে আমাকে চড় থাপ্পড় মারেন। ছাত্রীটির মা বলেন, আমরা কখনও মেয়েকে টোকা পর্যন্ত দি নাই। তানসেন মেয়েকে মারার পর সে মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত। আমরা তদন্ত কমিটি কাছে এই অভিযোগের সাক্ষী দিতে এসেছি।
তদন্তের বিষয়ে অধ্যক্ষ মনোয়ারা জাহান বলেন, আমরা তদন্ত শুরু করেছি। অভিভাবক ছাত্রীরা এসেছেন সাক্ষী দিতে। তদন্তে যা পাওয়া যাবে তা চসিক প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরে প্রদান করবো।
অভিযুক্ত শিক্ষক তানসেন দেওয়ানজী বলেন, আমি শিক্ষার স্বার্থে ছাত্রীদের শাসন করি। স্কুল থেকে নির্বাচিত করায় গত ১০ বছর টিফিন কমিটির আহবায়ক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছি।

 

সাবস্ক্রাইব ইউটিউব চ্যানেল


রিটেলেড নিউজ

নওগাঁয় কোভিড রোগীর সংখ্যা ১৪০০, করোনা মোকাবিলায় সন্ধ্যার পর দোকানপাট বন্ধ

নওগাঁয় কোভিড রোগীর সংখ্যা ১৪০০, করোনা মোকাবিলায় সন্ধ্যার পর দোকানপাট বন্ধ

newsgarden24.com

নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি: নওগাঁয় গত ২৪ ঘণ্টায় সাতজন ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছ... বিস্তারিত

১৫ ডিসেম্বরের আগেই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন!

১৫ ডিসেম্বরের আগেই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন!

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম ডেকোরেটার্স মালিক সমিতি, কমিউনিটি হল মালিক সমিতি ও দোকান মালিক সমিত... বিস্তারিত

প্রজেক্ট বিল্ডার্স’র চেক প্রতারণা, এমডি’র বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

প্রজেক্ট বিল্ডার্স’র চেক প্রতারণা, এমডি’র বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চেক প্রতারণা মামলায় নির্মাণ প্রতিষ্ঠান প্রজেক্ট বিল্ডার্স লিমিটেডের ব্যবস্থ... বিস্তারিত

সাতকানিয়ার পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের ব্যাখ্যা চেয়েছে স্থানীয় সরকার

সাতকানিয়ার পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের ব্যাখ্যা চেয়েছে স্থানীয় সরকার

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: সাতকানিয়ার পৌর মেয়র মোহাম্মদ জোবায়েরের বিরুদ্ধে আনীত ক্ষমতার অপব্যবহার, স্বে... বিস্তারিত

নগরীতে শতাধিক বিলবোর্ড সাইনবোর্ড অপসারণ

নগরীতে শতাধিক বিলবোর্ড সাইনবোর্ড অপসারণ

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: নগরীর  লালখান বাজার মোড় হতে গরীবুল্লাহ শাহ্ (র.) মাজার পর্যন্ত ২টি বড় বিলবোর্ড, ... বিস্তারিত

চট্টগ্রাম বন্দরের ক্রেন ক্রয় দরপত্রের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন সংবাদের প্রতিবাদ

চট্টগ্রাম বন্দরের ক্রেন ক্রয় দরপত্রের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন সংবাদের প্রতিবাদ

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: চট্টগ্রাম বন্দরের ৭০ কোটি টাকার ১০ টন ক্ষমতাসম্পন্ন ২৩টি ক্রেন ক্রয় দরপত্রের ... বিস্তারিত

সর্বশেষ

ইসলামী মূল্যবোধে মডেলিং ছাড়ছেন হালিমা আদেন

ইসলামী মূল্যবোধে মডেলিং ছাড়ছেন হালিমা আদেন

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: ধর্মের জন্য মডেলিং ছাড়ছেন বিখ্যাত ফ্যাশন মডেল হালিমা আদেন। মার্কিন এই মডেল ব... বিস্তারিত

নাইজেরিয়ায় ধানক্ষেতে ৪৩ কৃষককে গলা কেটে হত্যা

নাইজেরিয়ায় ধানক্ষেতে ৪৩ কৃষককে গলা কেটে হত্যা

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক: নাইজেরিয়ায় একটি ধানক্ষেতে কর্মরত ৪৩ শ্রমিককে একসঙ্গে হত্যা করেছে হামলাকারী... বিস্তারিত

সবজির দাম নির্ধারণ করে দেবে সরকার

সবজির দাম নির্ধারণ করে দেবে সরকার

newsgarden24.com

নিউজগার্ডেন ডেস্ক:     মূল্য বৃদ্ধির অস্বাভাবিক প্রবণতা ঠেকাতে চাল ও আলুর পর এবার বাজারে সবজ... বিস্তারিত

মাদারবাড়ী শোভনীয়া ফুটবল একাডেমি শুভ উদ্বোধনী ও গুণিজন সংর্বধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

মাদারবাড়ী শোভনীয়া ফুটবল একাডেমি শুভ উদ্বোধনী ও গুণিজন সংর্বধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

newsgarden24.com

মাদারবাড়ী শোভনীয়া ফুটবল একাডেমি শুভ উদ্বোধনী ও গুণিজন সংর্বধনা অনুষ্ঠান সম্পন্ন নিউজগার্ডেন ড... বিস্তারিত