তরুণ উদ্যোক্তাদের প্রমোট করতে চায় ইয়াং বাংলা ও মাইক্রোসফট

তরুণ উদ্যোক্তাদের প্রমোট করতে কাজ করে যেতে চায় ইয়াং বাংলা ও মাইক্রোসফট। এর অংশ হিসেবে শুরু করা হয় মাইক্রোসফট-ইয়াং বাংলা ইন্টার্ন সামিট ২০১৮। চার দিনব্যাপী চলা এই ইন্টার্ন সামিটের শেষ দিন রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে গতকাল দেশের শীর্ষ পাঁচ স্ট্যার্টআপ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয় সামিটে যোগ দেওয়া ইন্টার্নদের। সেই সঙ্গে জানানো হয় বিজয়ী প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি ভালো আইডিয়া দেওয়া প্রতিটি দলকে ইয়াং বাংলার প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে দেওয়া হবে।

পুরস্কার বিতরণের আগে জানানো হয়, বিজয়ী দলগুলোর পাশাপাশি এই সামিটে অংশ নেওয়া সব দলকে নিয়ে কাজ করবে ইয়াং বাংলা। তাদের স্ট্যার্টআপ আইডিয়াগুলোর সঙ্গে অন্য মন্ত্রণালয়, এনজিও বা প্রতিষ্ঠানকে যুক্ত করে দেওয়ার জন্য ইয়াং বাংলা চেষ্টা করবে। ইয়াং বাংলা সব বিন্দুকে সংযুক্ত করবে।

সিআরআই ট্রাস্টি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক বলেন, ইয়াং বাংলার স্লোগান কানেক্টিং দ্য ডটস। তরুণদের লবিস্ট হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে ইয়াং বাংলা। বর্তমান প্রজন্মের চিন্তাভাবনা ও আইডিয়ার সঙ্গে দেশের নীতিনির্ধারকদের সেতুবন্ধ তৈরির উদ্দেশ্যে কাজ করে যাবে প্রতিষ্ঠানটি। আমরা যখন তরুণ ছিলাম, তখন মাইক্রোসফট ছিল আমাদের কাছে বর্তমান সময়ের ফেসবুক- টুইটারের মতোই জনপ্রিয়। ইয়াং বাংলার পাশে মাইক্রোসফটের নাম দেখে ভালো লাগছে। ইয়াং বাংলার মাধ্যমে দেশের প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষের সঙ্গে মাইক্রোসফটের মতো একটি ব্র্যান্ডকে যুক্ত করতে পেরেছি আমরা।

মাইক্রোসফটের কান্ট্রি ডিরেক্টর সোনিয়া বশির কবির এ সময় তাঁদের ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসাডরদের উদ্দেশ্যে ঘোষণা দিয়ে জানান, ‘আমাদের ৫০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে থাকা ১০০টি ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসাডর এখন মাইক্রোসফট ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হয়ে যাচ্ছেন। এ সময় তিনি দেশের সাত জেলায় ইয়াং বাংলার সহায়তায় প্রতিষ্ঠিত মাইক্রোসফটের ল্যাবগুলোর প্রশংসা করে বলেন, এই ল্যাবগুলোতে কাজ করে অনেকে স্বাবলম্বী হয়ে উঠছেন দেখে ভালো লাগছে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: