‘কওমী মাদ্রাসাকে জঙ্গী প্রজনন কেন্দ্র’ আখ্যা দেওয়ার প্রতিবাদে সভা

মোঃ উসমান গনি, হাটহাজারী, ১৪ সেপ্টম্বর ২০১৮, শুক্রবার: ‘কওমী মাদ্রাসা জঙ্গি প্রজনন কেন্দ্র নয়, আলোকিত মানুষ গড়ার কারখান! ‘ ইসলামী ফ্রন্ট ও বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন কর্তৃক ‘কওমী মাদ্রাসাকে জঙ্গি প্রজনন কেন্দ্র’ হিসেবে আখ্যা দেওয়ার প্রতিবাদে ফটিকছড়িতে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে কওমী মাদ্রাসার আলেম-ওলামা ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।
ফটিকছড়ি সচেতন পরিষদের ব্যানারে গত বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টায় উপজেলা নাজিরহাট পৌরসভাধীন এফ.টি.ওয়াই কনভেনশন সেন্টারে এই প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
সরকারীভাবে কওমী মাদ্রাসা সনদের স্বীকৃতি প্রদানের বিরোধী অপশক্তি ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে দাবী করে এতে বক্তারা বলেন,
‘কওমী মাদ্রাসা জঙ্গি প্রজন কেন্দ্র নয়, আলোকিত মানুষ গড়ার কারখানা। শিক্ষা ও সামাজিক শক্তি হিসেবে এ দেশের জনজীবনে আলেম-উলামাদের শেকড় অনেক গভীরে প্রোথিত। ব্রিটিশ বিরোধী ও স্বাধীনতা আন্দোলন সহ এ দেশে ইসলাম চর্চার ক্ষেত্রে কওমি আলেমরা ঐতিহাসিক অবদান রেখে যাচ্ছেন । এ সময় কওমী মাদরাসার স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে দারুল উলুম দেওবন্দের মূলনীতি সমূহকে ভিত্তি করে প্রধানমন্ত্রী কওমী আলেমদের দীর্ঘ দিনের দাবি কওমী সনদের স্বীকৃতি দেয়ায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বক্তারা।
বক্তারা আরো বলেন, ‘এ দেশের গরিব, অভাবী ও এতিম সন্তানদের বড় একটি অংশ কওমী মাদরাসায় পড়ে থাকে। মাদরাসাগুলো তাদের থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করে। এর মাধ্যমে কওমী মাদরাসাগুলো আর্থিক সীমাবদ্ধতার মাঝেও বড় ধরনের সামাজিক দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। সনদের স্বীকৃতির ফলে আলেমদের মহানুভবতার এই দিকটি সমাজে আলোচিত হবে, তাদের দেখে আরও অনেকেই এভাবে শিক্ষা বিস্তার ও সমাজসেবায় এগিয়ে আসবে।’
সচেতন ফটিকছড়ি পরিষদ এর শূরা সদস্য মাওলানা সেলিম উদ্দীন দৌলতপুরীর সভাপতিত্বে এতে প্রধান আলোচক ছিলেন বাবুনগর মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মুফতি মাওলানা মাহমুদ হাসান, নাজিরহাট বড় মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা সেলিমুল্লাহ, বাবুনগর মাদ্রাসার নির্বাহী পরিচালক মাওলানা আইয়ুব, রাঙ্গামাটিয়া মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা ইলিয়াছ, গোলাম রাব্বানী ইসলামাবাদী, আজাদী বাজার মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা হাবিবুলালাহ, জাফর নগর মাদ্রাসার নির্বাহী পরিচালক মাওলানা মজিব, কাজিরহাট মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা জোনাইদ বিন জালাল, পূর্ব সুয়াবিল মহিলা মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা আব্দুর রহিম ইসলামাবাদী, ধর্মপুর এমদাদুল উলুম মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা হাবিবুল্লাহ সাহেব।
হাফেজ মাওলানা সোলায়মান ও মাওলানা শহীদুল্লাহ’র যৌথ সঞ্চালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সচেতন পরিষদ এর আহবায়ক হাফেজ মাওলানা ফজলুল হক, য্গ্মু আহবায়ক মৌলানা শহীদুল্লাহ ধর্মপুরী, য্গ্মু আহবায়ক মাওলানা জোনাইদ জওহার, সূরা সদস্য মাওলানা সলীম উদ্দীন, হাফেজ রশিদ, মাওলানা মো. আজগর, মাওলানা ইলিয়াছ, মাওলানা সাইফুদ্দীন ও মহিউদ্দীন প্রমূখ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: