তৌফিকুল ইসলাম বাবরের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় মামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৪ জুলাই ২০১৭, মঙ্গলবার: চট্টগ্রামের দৈনিক সমকালের সিনিয়র রিপোর্টার তৌফিকুল ইসলাম বাবরের বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ (২) ধারায় মামলা হয়েছে। চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থানায় রোববার রাতে মামলাটি দায়ের করেছেন ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন চৌধুরী মিল্টন। তিনি উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং রাঙ্গুনিয়ার সাংসদ হাছান মাহমুদের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।
রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ ভূঁইয়া বলেন, সমকাল পত্রিকার অনলাইনে গত ২২ জুন ‘খুনের মামলার আসামিরা হাছান মাহমুদের ক্যাডার’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রচার করা হয়। প্রতিবেদনে বাদীকে সাংসদ হাছান মাহমুদের খাস লোক উল্লেখ করে সন্ত্রাসীদের আশ্রয়দাতা বলা হয়েছে। এতে বাদী ও হাছান মাহমুদের সুনাম ক্ষুন্ন হয়েছে বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে। ওসি বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ (২) ধারায় মামলাটি হয়েছে। তদন্ত করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
মামলার বাদী আওয়ামী লীগের নেতা ইকবাল হোসেন গতকাল বিকেলে মুঠোফোনে দাবি করেন, মিথ্যা, কাল্পনিক সংবাদটি প্রচারিত হওয়ায় তাঁর রাজনৈতিক, সামাজিক, অর্থনৈতিক ক্ষতি হয়েছে। এলাকার জনগণের কাছে তাঁর মানসম্মানের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।
পাহাড়ধসে রাঙামাটির ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাওয়ার পথে গত ১৮ জুন রাঙ্গুনিয়ার ইছাখালী বাজারে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের গাড়িবহরে হামলা হয়। এ ঘটনার পর রাঙ্গুনিয়ার সাংসদ ও তাঁর অনুসারীদের কর্মকাণ্ড নিয়ে সমকালএ ওই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এতে মামলার বাদীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ আনা হয়।
এ বিষয়ে সাংবাদিক তৌফিকুল ইসলাম বাবর বলেন, তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি করা হয়েছে। সাংবাদিক হিসেবে তিনি শুধু পেশাগত দায়িত্ব পালন করেছেন।

সাংবাদিক তৌফিকুল ইসলাম বাবরের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় মামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে সাংবাদিক সংগঠনগুলো। গতকাল  গণমাধ্যমে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়েছে। তবে বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতারা অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান। অন্যথায় আন্দোলনের কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। এ ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বিএফইউজের সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল ও মহাসচিব ওমর ফারুক, সিইউজের সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী। তাছাড়া বিএফইউজের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সহ-সভাপতি শহীদ উল আলম, যুগ্ম মহাসচিব তপন চক্রবর্তী, নির্বাহী সদস্য আসিফ সিরাজ ও নওশের আলী খান, রেলওয়ে রিপোর্টাস ইউনিটি চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মো. মহিউদ্দিন, সুজিত সাহা, নাছির উদ্দিন রকি। একই সঙ্গে পটিয়া উপজেলা, বোয়ালখালীসহ বিভিন্ন উপজেলা প্রেস ক্লাবের নেতারা নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

 

Leave a Reply

%d bloggers like this: