বিশ্বের ক্রিকেটমহল অশ্বিনকে নিয়ে সরব!

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৮ মার্চ ২০১৯ ইংরেজী, বৃহস্পতিবার: রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে জস বাটলারকে যেভাবে আউট করেছিলেন রবীচন্দ্রন অশ্বিন তা নিয়ে সরব বিশ্বের ক্রিকেটমহল। বাটলারকে করা ওই ম্যানকাড আউট নিয়ে মাইকেল ভন, ইয়ন মরগ্যান, ডেল স্টেইন সহ অনেকে অশ্বিনের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। বুধবার কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সের সমর্থকরাও বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, অশ্বিনের করা সেই রান আউট তাঁরা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারেননি। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) বুধবার ইডেন গার্ডেন্সে মুখোমুখি হয় কলকাতা নাইট রাইডার্স ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। এই ম্যাচে ২৮ রানে হারে অশ্বিনের দল পাঞ্জাব। বোলিংয়ে চার ওভারে ৪৭ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি অশ্বিন। ম্যাচে ঠিক টসের আগের মুহূর্তে যখন অশ্বিনের মুখ জায়ান্ট স্ক্রিনে ভেসে ওঠে, ইডেনের বেশির ভাগ গ্যালারি থেকে তাঁর উদ্দেশে ভেসে আসে কটূক্তি। প্রথম ওভার বল করতে আসার সময় ‘কে’ ব্লকের গ্যালারিতে শোনা যায় মন্তব্য, ‘গো ব্যাক অশ্বিন। ইডেনে তুমি খেলার যোগ্য নও।’ তাঁদেরই মধ্যে পাটনা থেকে আসা এক সমর্থকের হাতে দেখা যায় একটি পোস্টার। অশ্বিন সেই পোস্টার দেখলে হয়তো দুই রাত আগের সেই মুহূর্তের কথা আরেকবার ভাবতেন। পোস্টারে পরিষ্কার লেখা রয়েছে, ‘নো মার্সি অশ্বিন।’ অর্থাৎ, ইডেন তোমাকে কখনো ক্ষমা করবে না। কথায় আছে, কর্মের ফল ভোগ করতেই হয়। অশ্বিন নিজেও হয়তো দর্শকদের বিদ্রুপে বেশ কিছুটা ঘাবড়ে গিয়েছিলেন। বাউন্ডারি লাইনে ফিল্ডিং করতে যেতে দেখা যায়নি তাঁকে। একবার গেলেও ফিরে আসেন মিড-অনে। ম্যানকাড আউটের চাপ হয়তো তাঁর বোলিংয়েও প্রভাব ফেলেছে। দলের সবচেয়ে খরুচে বোলার ছিলেন তিনি। উইকেট পাননি একটিও। এমনকি সুযোগও তৈরি করতে পারেননি। অনায়াসে তাঁর বল একের পর এক বাউন্ডারির বাইরে পাঠান নিতিশ রানা, রবিন উথাপ্পারা। অশ্বিনের বলে যখন চার-ছয় হাঁকাচ্ছিলেন ব্যাটসম্যানরা, তখন গ্যালারি থেকে স্লোগান ভেসে আসছিল, ‘কর্মের ফল ভোগ করতেই হবে।’

এ দিন নেতৃত্ব দিতে গিয়েও ভুল করে ফেলেন অশ্বিন। ১৬.৬ ওভারে মহাম্মদ শামির বলে বোল্ড হয়ে গিয়েছিলেন আন্দ্রে রাসেল। তখন তাঁর রান ছিল তিন। কিন্তু উপস্থিত আম্পায়ার রাসেলকে অপেক্ষা করতে বলেন। কারণ, আম্পায়ার গুনে দেখেন ৩০ গজের লাইনের মধ্যে মাত্র তিনজন ফিল্ডার ছিলেন। থাকার কথা ছিল চার ফিল্ডারের। যা তাঁর মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারের কাছ থেকে আশা করা যায় না। তার ফলও ভোগ করতে হয় হাতে-নাতে। ১৭ বলে ৪৮ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস খেলেন রাসেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*