প্রজ্ঞাপন না হওয়া পর্যন্ত ছেলে আন্দোলন চালিয়ে যাবে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : ৮ জুলাই ২০১৮
কোটা সংস্কারের প্রজ্ঞাপন না হওয়া পর্যন্ত ছেলে আন্দোলন চালিয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খাঁনের বাবা নবাই বিশ্বাস। শনিবার বিকালে রাজধানীর ক্র্যাব মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা জানান।
কোটা সংস্কার আন্দোলনের সঙ্গে জড়িতদের ওপর নির্যাতন বন্ধে ও গ্রেপ্তারকৃতদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আয়োজিত ওই সংবাদ সম্মেলন থেকে দাবি করা হয়, গত ১ জুলাই পুলিশ রাশেদের সঙ্গে কোটা আন্দোলনের নেতা মাহফুজ খানকেও ধরে নিয়ে যায়।

পরে রাশেদকে একটি মামলার আসামি হিসেবে গ্রেপ্তার দেখালেও মাহফুজের বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি। রাশেদ খানের বাবা নবাই বিশ্বাস তার ছেলের সঙ্গে আন্দোলন করা অন্যদেরও মুক্তি চেয়েছেন ।

এসময় সাংবাদিকরা কোটা আন্দোলন নিয়ে তার অবস্থান জানতে চাইলে রাশেদের বাবা বলেন, ‘আমরা গরিব, আমার ছেলে চাকরির জন্য যৌক্তিক আন্দোলন করছে। যতদিন প্রজ্ঞাপন জারি না করা হবে, ততদিন সে এ আন্দোলন করবে।’

এরপরে সাংবাদিকরা রাশেদের পরিবারের সঙ্গে জামায়াতের সংশ্লিষ্টতা নিয়ে প্রশ্ন করলে দিনমুজুর নবাই বিশ্বাস বলেন, ‘যখন মুক্তিযুদ্ধ হয়, তখন আমার বয়স ছয় মাস। আমি কখনো কোনো রাজনীতিও করিনি, কখনো জামায়াত-শিবিরও করিনি। আমাকে রাজাকার বলা হচ্ছে, আমার ছেলেকে শিবিরের কর্মী বলে অপবাদ দেয়া হচ্ছে, অথচ আমি সাধারণ দিনমজুর। কষ্ট করে ছেলেমেয়েদের মানুষ করছি, শিক্ষিত করছি।’
বাংলাদেশের পাসপোর্ট থাকলে ভিসা লাগবে না তবে বিশেষ অনুমোদন লাগবে এমন দেশগুলো হলো : ১. কিউবা (টুরিস্ট কার্ড জোগাড় করতে হবে, মেয়াদ ৩ মাস), ২. সামোয়া (ঢোকার অনুমতিপত্র থাকলেই হলো, মেয়াদ ২ মাস), ৩. সেচেলেস (ভ্রমণের অনুমতিপত্র থাকতে হবে, মেয়াদ ১ মাস), ৪. সোমালিয়া (ওই দেশে থাকা কেউ স্পন্সর করলে ভিসা পৌঁছেও করা যাবে, যার মেয়াদ হবে ১ মাস। তবে সোমালিয়া পৌঁছানোর দুদিন আগে সেখানকার বিমানবন্দরে বিষয়টি জানিয়ে রাখতে হবে), ৫. শ্রীলংকা (ভ্রমণের জন্য ইলেকট্রনিক অনুমোদনপত্র, মেয়াদ ১ মাস), ৬. লাওস (সরকারি কোনো সফরের নথিপত্র থাকলে ভিসা প্রয়োজন হবে না)

Leave a Reply