রাশান বিশ্বকাপের খেলায় মাঠে নামছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০২ জুলাই ২০১৮, সোমবার: শোনা গিয়েছিল, শনিবার ব্রাজিলের অনুশীলনে যোগ দিয়েছিলেন মার্সেলো। নক আউটে মেক্সিকোর বিপক্ষে মাঠে নামবেন তিনি। কিন্তু খেলা শুরু আগে দুঃসংবাদ শোনালেন কোচ তিতে। জানালেন, আজ মাঠে নামবেন না মার্সেলো। তবে প্রয়োজন হলে কোনো এক সময় নামতেও পারেন তিনি। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে সার্বিয়ার বিপক্ষে বেশিক্ষণ খেলতে পারেননি মার্সেলো। পিঠের চোটের কারণে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল তাকে। ব্রাজিল দলের চিকিৎসক রোদ্রিগো লাসমার জানিয়েছিলেন, ঘুমের সমস্যার কারণে পিঠের চোট হতে পারে। মার্সেলোর সমস্যাকে ‘সামান্য’ হিসেবে উল্লেখ করলেও তার মাঠে ফেরার ব্যাপারে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেননি তিনি। তবে জানান, দ্রুত সেরে উঠছেন তিনি।
গতকাল দলের সাথে অনুশীলনও করেছেন তিনি। কিন্তু খেলার মতো পুরোপুরি সুস্থ নন তিনি। ব্রাজিল কোচ তিতে জানান, ‘দলের এই গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় মেক্সিকোর বিপক্ষে খেলতে পারছেন না। তবে দলের প্রয়োজনে কোনো একটা সময়ে তাকে মাঠে নামানো হতেও পারে।’
তিনি আরো জানান, ‘মার্সেলো দলের সাথে অনুশীলন করেছে। তার কাছে জানতে চেয়েছিলাম, দলে তাকে বিবেচনা করব কি না, সে ইতিবাচক সাড়াই দিয়েছে। কিন্তু আমাদের মনে হচ্ছে, সে তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে কিছু লুকাতে চাচ্ছে। লুকাতে চাওয়াটাই স্বাভাবিক, দলের প্রতি তার আবেদন অন্য রকম। সে এই ম্যাচ খেলতেই চাইবে। তবে আমি এমন ম্যাচে কোনো ঝুঁকি নিতে চাই না।’
এদিকে গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে আজ মার্সেলোর বদলে খেলবেন ফিলিপে লুইস। সার্বিয়ার বিপক্ষেও দুর্দান্ত পারফরমেন্স ছিল তার। তাই একাদশে রাখা হচ্ছে তাকে। রাশান বিশ্বকাপে ব্রাজিলের স্বপ্নপূরণ নেইমার ও কুতিনহোর নৈপুণ্যে নির্ভরশীল বলেই দাবি করেছেন দেশটির সাবেক কিংবদন্তি ডিফেন্ডার রর্বাতো কার্লোস। প্রতিভাবান ওই দুই ফুটবলারের ক্রমোন্নতিতেও দারুণ সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক ডিফেন্ডার। তার বিশ্বাস, প্রতি ম্যাচেই ফিটনেসের উন্নতি হচ্ছে নেইমারের। প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের তারকার ঠাণ্ডা মাথায় মাঠের উপস্থিতি টিম ব্রাজিলের জন্য সুখবর বলেও জানান কার্লোস। তার মতে, পুরোপুরি ফিটনেসবিহীন নেইমার কঠিন সময়ে কুতিনহোকে পাশে পেয়েছেন। চলমান বিশ্বকাপ জেতার সক্ষমতা বর্তমান ব্রাজিলের রয়েছে বলেও দাবি করেন কার্লোস।
রর্বাতো কার্লোস বলেন, ‘নেইমার উন্নতির মধ্যেই আছেন। তাকে শান্ত দেখতে পাচ্ছি। দীর্ঘকালীন ইনজুরি থেকে তার সেরে ওঠার প্রক্রিয়ায় আমি সন্তুষ্ট। ব্রাজিলের জন্য তিনি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার। সবচেয়ে স্পর্শকাতর বিষয়টি পূর্ণাঙ্গ মনোযোগের সাথে অনুসরণ করছেন নেইমার। তিনি পুরোপুরিই শান্ত আছেন। এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। অস্থির নেইমার মোটেও কাম্য নয় ব্রাজিলের। তার মধ্যে স্থিরতার অর্থই হচ্ছে প্রতিপক্ষের সর্বনাশ।’
প্রায় তিন মাস দীর্ঘ ইনজুরি দুঃস্বপ্ন পেছনে ফেলে রাশান বিশ্বকাপে ব্রাজিলের প্রথম তিন ম্যাচেই প্রতিনিধিত্ব করেন নেইমার। কোস্টারিয়ার বিপক্ষে গোলও করেছেন একটি। তবে প্রতিপক্ষের ফুটবলারদের ট্যাকলে তার ঘন ঘন মাটিতে পড়ে যাওয়ায় ঘটনা দখলে নেয় শিরোনাম। ভক্তদের মধ্যে অনেকেরই গ্রহণ করতে পারেননি নেইমারের ওই আচরণ। উল্টো সমালোচনাও করেন। গ্রুপের প্রথম দুই খেলায় অনুজ্জ্বল নেইমারের ঘাটতি পূরণে ব্রাজিলীয় ভক্তদের প্রশংসার কেন্দ্রবিন্দু দখলে নেন সম্প্রতি বার্সেলোনায় যোগ দেয়া প্লে-মেকার ফিলিপ কুতিনহো। এই মুহূর্তে কাবের পাশাপাশি জাতীয় দলের জন্যও তার নৈপুণ্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই দাবি করেছেন রর্বাতো কার্লোস। তিনি বলেন, ‘মাঠের সময় দারুণ কাটছে কুতিনহোর। বার্সার পাশাপাশি ব্রাজিলের জন্যও তিনি গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার। চাপের সময় তাকে পাশে পেলেন নেইমার। বর্তমান ব্রাজিল ফিফার ২১তম বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম যোগ্য দল।’
আজ রাশান বিশ্বকাপের রাউন্ড অব সিক্সটিনের খেলায় অংশ নিতে মাঠে নামছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। তাদের প্রতিপক্ষ মেক্সিকো। শেষ ষোলোয় জয়ী হলে কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলের সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ বেলজিয়াম।

Leave a Reply