পর্যটন স্থানগুলোতে পর্যটক ও স্থানীয় জনসাধারণের পদচারণায় মুখরিত

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৯ জুন ২০১৮ ইংরেজী, মঙ্গলবার: হাওরবেষ্টিত সুনামগঞ্জের ভারতের খাসিয়া, মেঘালয় পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত পর্যটন স্থানগুলোতে পর্যটক ও স্থানীয় জনসাধারণের পদচারণায় মুখরিত। তবে সবচেয়ে আকর্ষণীয় তাহিরপুর উপজেলার টাঙ্গুয়ার হাওর, সীমান্ত লেক ও বারেকটিলা। সারাবছরেই এই পর্যটন স্পটগুলো শিক্ষার্থী, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তি ও প্রকৃতিপ্রেমীদের সঙ্গে স্থানীয় জনসাধারণের পদচারণায় মুখরিত থাকে। স্থানীয়রা জানায়, এখানে ঈদ উৎসব ছাড়াও ছুটির দিনে আসেন সহস্রাধিক পর্যটক। এখানে পর্যটন কেন্দ্র স্থাপন হবে বলে শুনছি, অথচ এখনো কোন কাজের লক্ষণ দেখছি না। বেড়াতে আসা সৌরভ দাস, নাজির হোসেন, নাইম, মেহেদী হাসান ভুঁইয়াসহ অনেকেই জানান, এবার হাওরের বোরো ধান অকাল বন্যায় পানিতে ডুবে ক্ষতির কারণে হাওরপাড়ে ঈদের আনন্দ না থাকলেও এ তাহিরপুর উপজেলার পর্যটনসমৃদ্ধ ও দৃষ্টিনন্দন স্থানগুলো ঈদ উপলক্ষে সৌন্দর্য দেখতে ভুলে যায়নি। এখানে এসে অনেকেই কষ্টের মাঝে একটু মনের আনন্দের খোঁজ পেয়েছে। পরিবার নিয়ে বেড়াতে আসা সুহেল আহমদ সাজু বলেন, ‘দেখতে ভাল লাগে তাই আমরা এসেছি প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে।’ তাহিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল জানান, ঈদে ও ছুটির দিনে এ উপজেলার প্রাকৃতিক সৌর্ন্দয়ের টানে হাজার হাজার পর্যটক আসেন। এখানে পর্যটন কেন্দ্র স্থাপন করা এখন সময়ের দাবি।

Leave a Reply