আওয়ামী দুঃশাসন থেকে মুক্তির একমাত্র পথ ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন: মীর মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৪ জুন ২০১৮ ইংরেজী, বৃহস্পতিবার: ইসলামী ঐক্যজোট চট্টগ্রাম মহানগরের উদ্যোগে এক ইফতার ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন। উক্ত দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন ইসলামী ঐক্যজোট চট্টগ্রাম মহানগর আহবায়ক মাওলানা নূর মোহাম্মদ খিলি ও আনোয়ার হোসাইন রব্বানীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন। বক্তব্য রাখেন নজাম ইসলাম পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সরোয়ার কামাল আজিজী, বাংলাদেশ খতমে নবুয়্যত আন্দোলনের মহাসচিব আবদুল আলীম নিজামী, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইলিয়াস, বাংলাদেশ ন্যাপের চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি ওসমান গণি সিকদার, বাংলাদেশ লেবার পার্টি চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি আলাউদ্দিন আলি, জমিয়তে ওলামায়ে ইসলামের চট্টগ্রাম মহানগর সমন্বয়কারী এম এ কাসেম ইসলামাবাদী, বিজিপির চট্টগ্রাম মহানগরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফিরোজ কবীর লিটন, ইসলামী ঐক্যজোট নেতা মাওলানা সুলতানুল ইসলাম, ইসলামী ঐক্যজোটের চট্টগ্রাম মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক নূর মোহাম্মদ কিবরিয়া, ইসলামী ঐক্যজোট নেতা দ্বীন মোহাম্মদ ন্যাপ নেতা কমল বড়–য়া বিজয়, ইসলামী ঐক্যজোটের মহানগর প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাফেজ মাহমুদুল হাসান, ইসলামী ছাত্র সমাজের সাবেক ছাত্র নেতা আবু তৈয়ব চৌধুরী, জমিয়ত নেতা এনায়েত উল্লাহ ফারুকী, মাওলানা রিদুয়ানুল হক, কারী রায়হান, শ্রমিক সমাজের নেতা ফরিদুল আলম প্রমুখ।
আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হাটহাজারী-২ নির্বাচনী এলাকার ২০ দলীয় জোটের সম্ভাব্য প্রার্থী মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন বলেন, ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী হিসেবে দেশের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখে হাহাজারীর মাটি ও মানুষের কল্যাণে উৎসর্গ করতে চাই, মাদক, ব্যভিচার, চুরি, ডাকাতিসহ অসামাজিক কাজকে ইসলাম স্বীকৃতি দেয় না। মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন আরো বলেন শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান রণাঙ্গনে যুদ্ধ করে স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব রক্ষা করে ছিলেন আর আওয়ামীলীগ সেই স্বাধীনতা ভোগ করেছেন। স্বাধীনতার পরবর্তীতে আওয়ামীলীগ বিচারহীনতা সংস্কৃতি চালু করেন, রক্ষীবাহিনী সৃষ্টি করেছিলেন। আর জিয়াউর রহমান এদেশের আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করে ছিলেন। দেশনেত্রী বেগম জিয়ার হাত ধরে এদেশ স্বৈরাচার মুক্ত হয়েছিলো। তার নেতৃত্বে আবারও গণতন্ত্র পুনঃরায় প্রতিষ্ঠা পাবে। তাই বেগম জিয়াকে বাদ দিয়ে জনগণ কোন নির্বাচন মেনে নিবে না। একটি নিরপেক্ষ নির্দলীয় নির্বাচন কালীন সরকার এবং শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠন করে সুষ্ঠু নির্বাচন দিন। তারা আরো বলেন, দেশের আজ আইনের শাসন নেই, আছে আওয়ামী দুঃশাসন, আর এই দুঃশাসন থেকে মুক্তির একমাত্র পথ হল ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন। পরে দেশ ও জাতির জন্য দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

Leave a Reply