সুস্থ থাকার ১৫টি উপায়

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৯ জুন ২০১৮ ইংরেজী, শনিবার: স্বাস্থ্য সকল সুখের মূল। শরীর ঠিক তো সব ঠিক। একটি সুস্থ ও সুন্দর জীবন যে কারও প্রতিদিনের সব কাজে প্রভাব ফেলে। স্বাস্থ্য ঠিক নেই তো সবকিছু এলোমেলো। কিন্তু শরীর তো আর আপনাআপনি ভালো থাকবে না, নিয়মিত সারা দিনের কর্মব্যস্ততা শরীরকে ক্লান্ত করে তুলতেই পারে। তাই দেহকে সুস্থ, সবল আর কর্মক্ষম রাখতে অবশ্যই মেনে চলতে হবে স্বাস্থ্যবিধি।
শরীরকে সুস্থ ও সবল রাখে এমন কিছু স্বাস্থ্য টিকা :
১. প্রতিদিন আপনি ন্যূনতম ৬ ঘণ্টা ঘুমানোর অভ্যাস করুন। কারণ ৬ ঘণ্টা ঘুমানো একজন সাধারণ মানুষের জন্য জরুরি।
২. রাতে একটু আগে ঘুমাতে গেলেও ভোরে ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করুন। প্রথমে কষ্ট হলেও এটাকে ধীরে ধীরে অভ্যাসে পরিণত করুন।
৩. প্রতিদিন কমপক্ষে আধাঘণ্টা শারীরিক ব্যায়াম করুন। তবে ব্যায়াম শুরুর আগে অবশ্যই ওয়ার্মআপ করে নিতে হবে।
৪. বিশেষ কারণে প্রতিদিন সকালে শরীরচর্চা সম্ভব না হলে প্রতিদিন বিকেলে হাঁটার অভ্যাস করতে পারেন।
৫. ইদানীং স্বাস্থ্যসচেতন অনেক নারী-পুরুষকে জিমে যেতে দেখা যায়। আপনি যেতে পারেন সামর্থ্যবান হলে। তবে জিমে যন্ত্রপাতি ব্যবহারে প্রশিক্ষকের পরামর্শ মেনে চলা উচিত।
৬. চেষ্টা করুন সব ধরনের ফাস্টফুড ও তৈলাক্ত খাবার থেকে বিরত থাকতে। কারণ, এগুলো আপনার স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়াবে।
৭. শর্করাজাতীয় খাবার কখনো বেশি পরিমাণে খাবেন না।
৮. সকালের খাবারের তালিকায় রাখুন রুটি এবং সবজি। তবে সঙ্গে ফল থাকলেও সমস্যা নেই।
৯. শাকসবজি ও ফলমূল বেশি বেশি খাবেন। সপ্তাহে দুদিনের বেশি গোশত না খাওয়াটাই স্বাস্থ্যসম্মত।
১০. অনেকে কোমল পানীয় পান করতে খুব পছন্দ করেন। এতে প্রচুর ফ্যাট থাকে। তাই কোমল পানীয় বেশি খাওয়া উচিত নয়।
১১. হালকা শারীরিক সমস্যায় ওষুধ বা অকারণে ওষুধ সেবন থেকে নিজেকে বিরত রাখবেন। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ সেবন করতে হবে।
১২. নেশা জাতীয় দ্রব্য (পান, সিগারেটসহ সব ধরনের নেশাদ্রব্য) গ্রহণ করবেন না। এটি আপনার শারীরিক, মানসিক এবং অর্থনৈতিক তিন ধরনের ক্ষতি সাধন করে।
১৩. অফিসের সহকর্মী, পরিবারের সদস্য ও বন্ধুদের সঙ্গে সব সময় হাসিখুশিভাবে সময় কাটান। কোনো সমস্যা বোধ করলে সম্ভব হলে তা কারও সঙ্গে আলোচনা করে হালকা করে নিতে পারেন।
১৪. পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ভালো পরিবেশে থাকুন। নিজের পরিধেয় কাপড় সব সময় পরিষ্কার রাখুন। এতে শরীর-মন দুটোই ভালো থাকে।
১৫. রাতে ঘুমানোর আগে এক গ্লাস হালকা গরম দুধ খেয়ে দাঁত ব্রাশ করে নিন।
মনে রাখতে হবে, শরীরটা আপনার। এটাকে দেখাশোনা করার দায়িত্বও আপনার। কথায় আছে সুস্থ দেহে বাস করে সুন্দর মন।

Leave a Reply