বিটুমিনের মূল্য বৃদ্ধির তৎপরতায় বিপিসি

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৭ জুন ২০১৮ ইংরেজী, বৃহস্পতিবার: বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কোম্পানী নিয়ন্ত্রিত ইস্টার্ন রিফাইনারী কর্তৃপক্ষ আবারো বিটুমিনের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে। চলতি জুন মাসে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। এতে করে চলমান সড়ক ও মহাসড়কের উন্নয়ন কাজ ব্যাহত হবে। সংশ্লিষ্ট মহলের এই সিদ্ধান্ত সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে। কারণে জুন মাসের মধ্যে কার্য সম্পাদন করতে হয় বিধায় এর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে উন্নয়নের ক্ষেত্রে।
উল্লেখ্য গত এক বছরে দু’দফায় বিটুমিনের মূল্য বৃদ্ধি করেছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ। এতে করে বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সড়ক নির্মাণে কর্মরত ঠিকাদারবৃন্দ ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে নিম্নমানের বিদেশী বিটুমিন ক্রয়ে বাধ্য হয়ে পড়ে। উল্লেখ্য ইস্টার্ন রিফাইনারীতে উৎপাদিত বিটুমিন অনেক উন্নতমানের। কিন্তু বিপিসি নিজেদের স্বার্থে সরকারের উর্ধ্বতন মহলের সিদ্ধান্ত ব্যাতিরেকে মূল্য বৃদ্ধির নামে বিদেশী নিম্নমানের বিটুমিন আমদানী করার সুযোগ করে দিচ্ছে। এতে সড়ক ও মহাসড়কগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। উল্লেখ্য বিদেশ থেকে আমদানীকৃত ক্রুড অয়েল থেকে বিটুমিনের উৎপাদন হয়। এ প্রেক্ষাপটে সরকার তেল খাত থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা আয় করছে। ইআর এ উৎপাদিত বিটুমিনের মূল্য আমদানীকৃত বিটুমিন থেকে কম মূল্যে বিক্রীত করলে সরকারের ক্ষতি হয় না। অবিক্রীত থাকে না বিটুমিন। বর্তমানে বিপিসি এক ড্রাম বিটুমিন বিক্রী করে ৯৭০০ টাকায়। আর বেসরকারী আমদানীকারকরা নিম্নমানে বিটুমিন বিক্রী করে ৯০০০ টাকা। ই আর এ উৎপাদিত বিটুমিনের মূল্য না বাড়িয়ে বিক্রী করলে সড়ক ও মহাসড়কে কাজের গুণগত মান ভাল হবে। সরকারী মেরামত কাজে সাশ্রয় হবে। সংশ্লিষ্টরা জুন মাসে বিটুমিনের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা করছে। এতে করে সড়ক ও মহাসড়ক নির্মাণ ও মেরামত কাজে ভয়াবহ সংকট দেখা দিয়ে পাতে পারে। একটি চক্র সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার লক্ষ্যে মূল্যবৃদ্ধির পাঁয়তারা করছে বলে বিপিসির কর্মচারীরা জানিয়েছে।

Leave a Reply