সরকার দেশের মানুষের সকল গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে: আবুল হাশেম বক্কর

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৯ মে ২০১৮ ইংরেজী, শনিবার: বর্তমান অগণতান্ত্রিক সরকার দেশের মানুষের সকল গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিয়েছে। শুধু তাই নয় রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। আজ ১৯ মে শনিবার দুপরে নগরীর পূর্ব মাদারবাড়ি এলাকা সদরঘাট থানা যুবদলের উদ্যোগে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আলোচনা সভা ও গরীবদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেম বক্কর এ কথা বলেন। এতে তিনি আরও বলেন, গণতান্ত্রিক অধিকার ও ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে শুধু নির্বাচন কমিশন এবং আইনশৃংখলা বাহিনীই জড়িত তা নয়, এর বাইরে বিচার বিভাগ, দুদকও জড়িত। কেউ প্রত্যক্ষভাবে আর কেউ পরোক্ষভাবে। খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে দলীয় ও রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের মাধ্যমে দেশের মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। দেশের মানুষ ভোট ডাকাত ও রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস থেকে মুক্তি চায়।
তিনি বলেন, দেশে আজ শান্তিপূর্ণ নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন করা যায় না। সব জায়গায় প্রশাসনের কঠোর নজরদারি। অবস্থাদৃষ্টে মনে হয় দেশটা কেউ দখল করে নিয়েছে। আমরা সবাই শত্রু পক্ষের মানুষ আর দখলদাররা আমাদের ওপর সার্বক্ষণিক নজর রাখছে। তাদের দখলদারিত্ব চলে যাওয়ার ভয়ে বিএনপিসহ সকল বিরোধী দল ও মতের নেতাকর্মীদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে ও গুম করছে। মিথ্যা ও সাজানো মামলায় সাজা দিয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, গুম, খুন, করে ভয় দেখিয়ে অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখার যে নীল নকশা করছেন তা দেশের মানুষ কখনোই সফল হতে দিবে না। এই অবৈধ সরকারের সময় শেষ হয়ে গিয়েছে। সরকারের সকল অন্যায় অবিচারের জবাব দিতে দেশের সর্বস্তরের জনতা আজ ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। আর জনতার ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো এবং দখলদার ফ্যাসিষ্ট অগণতান্ত্রিক সরকারের পতন ঘটিয়ে দেশের গণতান্ত্রিক সরকার পুনঃপ্রতিষ্ঠা করবো।
সদরঘাটা থানা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ব মোঃ রাশেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আলোচনা সভা ও গরীবদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপিন সহ সাধারণ সম্পাদক ও সদরঘাট থানা বিএনপির সভাপতি হাজী সালাহ উদ্দিন, প্রচার সম্পাদক সিহাব উদ্দিন মবিন, অর্থনীতি বিষয়ক সম্পাদক মশিউল আলম স্বপন, সদরঘাট থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, চবি ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান চৌধুরী শপথ, ৩০ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আবু মুছা বাবলু, সদরঘাট থানা বিএনপির সহসভাপতি ইমতিয়াজ আহমদ, মাহবুবুর রহমান মুকুল, কোতোয়ালী থানা যুবদলের আহবাক ইকবাল হোসেন সংগ্রাম, নগর যুবদল নেতা মো. সালাহউদ্দিন জুয়েল, নূর জাহেদ বাবলু, মো. আনোয়ার, মো. খোকন, ছাত্রদল নেতা মো. তৌওসিফ, মো. তানভীর, মো. শাকিব, মো. ইমন, মো. মারুফ প্রমুখ।

Leave a Reply