কোটা আন্দোলনের নেতাকে হত্যার হুমকি ছাত্রলীগের

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৬ মে ২০১৮ ইংরেজী, বুধবার:

কোটা সংস্কার আন্দোলনের এক নেতাকে গুলি করে মারার হুমকি দিয়েছে ছাত্রলীগের সদ্য বিদায়ী কমিটির দুই নেতা। এ সময় তাকে কুপিয়ে হত্যার করারও হুমকি দেয় তারা।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলে এ ঘটনা ঘটে।

কোটার আন্দোলকারী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদে যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হকের কক্ষে (১১৯) গিয়ে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় ছাত্রলীগ।

মুহসীন হল শাখা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান সানী, ছাত্রলীগ নেতা লিমন এবং ছাত্রলীগের সদ্য বিদায়ী কমিটির সহসভাপতি ইমতিয়াজ বাপ্পী বুলবুল এ হুমকির ঘোষণা দেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে

সরেজমিনে ঘটনাস্থলে থেকে ইমতিয়াজ বুলবুল বাপ্পীকে নুরুল হক নুরের প্রতি আগ্রাসী দেখা যায়। তাকে বলতে শোনা যায়, কেবল আমার হাতটা বাধারে নুর, না হলে তোকে ৩০ সেকেন্ডে…।

মেহেদী হাসান সানী নুরকে নেড়ি কুত্তার মতো না পিটিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে যাবেন বলে হুমকি দেন।

এ বিষয়ে নুরুল হক বলেন, তারা আমাকে মারার জন্য এসেছিল। আমাকে তারা গুলি করে ও কুপিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছে। আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, আশিকসহ কয়েকজন তাকে বাঁচিয়েছে। তিনি জীবন নিয়ে শঙ্কাবোধ করছেন। তবে হুমকির মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি থেকে তারা সরে আসবেন না বলে নয়া দিগন্তকে নিশ্চিত করেন নুর।

এ বিষয়ে ইমতিয়াজ বাপ্পী বলেন, এমন কিছুই হয়নি। বরং আমরা যদি বলি তারা আমাদের হুমকি দিয়েছে?

এ বিষয়ে জানতে, হল ছাত্রলীগের যুন্ম সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান সানী, কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইররহমন সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইনকে একাধিকবার ফোন দিলেও তারা রিসিভ করেননি।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টার অধ্যাপক ড এ কে এম গোলাম রব্বানি বলেন, আমরা ঘটনাটি শুনেছি। বিষয়টি খোঁজ নিয়মে জানতে হবে। পরে জানাবে।

Leave a Reply