বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মালিকানা দুজন লোকের হাতে : মির্জা ফখরুল

নিউজগার্ডেন ডেস্ক : ১২ মে ২০১৮

মহাকাশে উৎক্ষেপিত বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট (কৃত্রিম উপগ্রহ) বঙ্গবন্ধু-১ এর মালিকানা দুজন ব্যাক্তির কাছে রয়েছে, দাবি করে এর কঠোর সমালোচনা করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে তিনি বলেন, ‘ওটার (বঙ্গবন্ধু-১) মালিকানা চলে গেছে, জানেন তো। এই স্যাটেলাইটের মালিকানা চলে গেছে দুজন লোকের হাতে এবং সেখান থেকে আপনাদেরকে কিনে নিতে হবে।’

স্যাটেলাইটের মালিকানা নিয়ে বিস্তারিত কিছু না বলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এটা আগে ঘুরুক, আবর্তন করুক, পৃথিবী পরিক্রম করুক, তখন দেখা যাবে।’

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং ডা. সামীউল আলম সুধীনের ওপর হামলায় প্রতিবাদে এর আয়োজন করে ডক্টর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)।

ভারতের সঙ্গে পাঁচটি প্রতিরক্ষা চুক্তি স্বাক্ষরের খবর গণমাধ্যমে দেখার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এই চুক্তি করার অধিকারটা তাকে (প্রধানমন্ত্রী) কে দিয়েছে? কারণ এই পার্লামেন্ট তো নির্বাচিত নয়। জনগণের পক্ষে যত চুক্তি করেন আপনি, সেই চুক্তি তো জনগণের চুক্তি নয়।’

তিনি বলেন, ‘সব চুক্তি আমরা দেখব। যেমন: মিয়ানমারের সঙ্গে চুক্তি করেছে, একটা লোকও (রোহিঙ্গা) যেতে পারেনি। যেটা আমার সবচেয়ে বেশি দরকার, সেই তিস্তার পানি চুক্তি এখন পর্যন্ত হয়নি।’

খালেদা জিয়ার কারান্তরীণের প্রসঙ্গ তুলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গতকাল বেগম খালেদা জিয়ার রাজনীতির ৩৪ বছর পূর্ণ হয়েছে। অথচ এ সময় তিনি কারাগারে। তার মতো এরকম ত্যাগী রাজনীতিবিদ আর নেই। তিনি স্বামী, বাস্তুভিটা, সন্তান সবই হারিয়েছেন। তারপরও তিনি মানুষের অধিকার আদায়ে এই ৭৩ বছর বয়সে কারাগারে বন্দি।’

সরকারের উদ্দেশে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন। নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। নির্বাচনের জন্য সেনাবাহিনী মোতায়েন করুন। তাহলেই দেশে গণতন্ত্রের সুবাতাস বইবে। তিনি দেশের সবচেয়ে ত্যাগী নেত্রী। তাকে ছাড়া কোনো নির্বাচন হতে পারে না।’

মালয়েশিয়ার নির্বাচন থেকে শিক্ষা নিয়ে একটি জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানান বিএনপির মহাসচিব।

তিনি বলেন, ‘জাতীয় ঐক্য ছাড়া আমাদের কোনো উপায় নেই। গোটা মানুষকে এক করতে হবে। ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে এই ভয়াবহ দানবকে সরাতে হবে।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক আবদুল মান্নান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ড্যাবের মহাসচিব এ জেড এম জাহিদ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব এস এম রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, অধ্যাপক সিরাজ উদ্দিন আহমেদ, অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দস, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আখতার হোসেন খান, শেরেবাংলা নগর কৃষি বিশ্ববিদ্যলয়ের অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্যজোটের সভাপতি সেলিম ভুঁইয়া, অ্যাবের প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলাম রিজু।

Leave a Reply