হৃদয়ে মানুষের ভালবাসা!!!

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২০ মার্চ ২০১৮, মঙ্গলবার: পতেঙ্গা থানাধীন কাটগড় এলাকায় পতেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্মুখে বৈদ্যুতিক খুটিতে শর্ট সার্কিট থাকার কারণে সাধারণ মানুষের জীবন বাচাঁতে এগিয়ে আসে মোঃ সুমন নামের এক ব্যক্তি। তিনি নোয়াখালি সেনবাগ এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা সাইফুল ইসলামের পুত্র। বর্তমানে তিনি কাটগড় মুসলিমাবাদ রোডে মেকানিক ইলিয়াছের দোকানের কর্মচারী।
সরেজমিনে তার সাথে কথা বলে জানা যায় ১৯ মার্চ বিকাল ৫ টায় তিনি স্কুলের মূল ফটকের সামনে দাড়িয়ে থাকলে দেখেন এক গামেন্টস কর্মী মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে ২২০ ভোল্টের বৈদ্যুতিক খুটি ধরা মাত্র ঝাকুনিতে পরে যান। তখনি বড় ধরনের দুঘর্টনা এড়াতে সুমন সেই বৈদ্যুতিক খুটির সামনে দাড়িয়ে রাত ১১ টা পযন্ত সাধারণ মানুষকে খুটির আশপাশ থেকে দূরে থাকার আহ্বান জানান এবং বিদ্যুৎ অফিসে ফোন করেন। বিদ্যুৎ অফিসের গাড়ী আসতে দেরি করার কারণে তিনি সিটি কর্পোরেশনের বিদ্যুৎ বিভাগের সহযোগীতা নিয়ে বৈদ্যুতিক খুটির লাইনটি বিছিন্ন করান। ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা রাজমিস্ত্রি মোঃ আব্দুল খালেক ও মোঃইমতিয়াজ নামক এক সি এন জি চালক বলেন সুমন নামের ছেলেটি এগিয়ে না আসলে এতক্ষনে অনেক বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারতে। জীবন বাচাঁতে সে এগিয়ে এসেছে।
এ ব্যপারে ৪০ নং ওয়াড কাউন্সিলর জয়নাল আবেদীনের সাথে মুঠোফোন যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আগামী কাল পরশুর মধ্যো বিছিন্ন লাইনে সংযোগ দেওয়া হবে। তবে সুমনের নিকট আমরা কৃতজ্ঞ। ছেলেটি মানবতার পরিচয় দিয়েছে।

Leave a Reply