বিএনপির সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ ১৯ মার্চ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১২ মার্চ ২০১৮, সোমবার: ১৯ মার্চ সোমবার আবারও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করবে। বিএনপি ১২ মার্চে সমাবেশ করার অনুমিত না পেয়ে বিএনপি আবারও শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করবে বলে দাবি বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের। এর জন্য প্রশাসনের সকল শর্ত পালন করা হবে। দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মলনে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এসময় মির্জা ফখরুল বলেন, অনেকেই মনে করে এটা আমাদের দুর্বলতা, আমি বলি এটা আমাদের দেশের প্রতি ভালোবাসা।আমরা চাই সংঘাত সংঘর্ষ এড়িয়ে চলতে। অনেক আগে থেকে আবেদন করে রাখলেও সরকার আমাদেরকে আজ জনসভার অনুমতি দেয়নি। তাই আগামী ১৯ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেই আমাদের জনসভা হবে। বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, আগামী ১৫ মার্চ চট্রগ্রামে, ৩১ মার্চ রাজশাহীতে এবং ২৪ মার্চ বরিশালে জনসভা করা হবে। ঢাকা শহরে সভা করার কোনো জায়গা নেই। খুব পরিকল্পিতভাবে রাজনৈতিক সভা করার স্থানগুলোকে সংকুচিত করতে বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। আগে মানিক মিয়া এভিনিউতে ছিল একটি বিশাল সড়ক, যে সড়কে আমরা জনসভা করেছি। কিন্তু ১৯৯৬ সালে যখন আওয়ামী লীগ সরকার আসে, তখন সেটি মাঝখানে ডিভাইডেট দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছে। ঐতিহাসিক পল্টন ময়দান যেখানে স্বাধীনতার পূর্বে বড় বড় জনসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে সেটাও কিন্তু বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং ছোট্ট একটা জায়গা নিয়ে ছিল মুক্তাঙ্গান সেটাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আর সেখানে এখন পার্কিং এর জায়গা করা হয়েছে। আমাদের দেশও নেত্রীকে যে বেআইনিভাবে, সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলা উপর ভিত্তি করে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে তার প্রতিবাদে গণতান্ত্রিকভাবে প্রতিবাদ করার যে পথ জনসভার করা, সেই জনসভা আমরা আরও শান্তিপূর্ণভাবে পালন করতে পারবো। কিন্তু এই সরকার মানুষকে এতো ভয় পায়, যে জনসভার মাধ্যমে প্রতিবাদ করার অধিকার সে অধিকারগুলোকে তারা বন্ধ করে দিয়েছে। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্থায়ী কমিটির সদ্যস নজরুল ইসলাম খান, ড. আবদুল মঈন খান, চেয়ারপার্সন উপদেষ্টা আবদুস সালাম, আহমেদ আজম খান, আতাউর রহমান ঢালী, রুহুল কবির রিজভী আহামেদ, খাইরুল কবির খোকন প্রমূখ।

Leave a Reply