বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর শাখার ওলামা শিক্ষাবিদ সমাবেশ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ সেপ্টম্বর ২০১৭, সোমবার: বহুমুখী অপশক্তির গ্রাসে বিপন্ন ঈমানিয়াত ও ইনসানিয়াতের সুরক্ষায় বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর শাখার উদ্যোগে জিইসি কনভেনশন হলে গত ২৩ সেপ্টেম্বর এক বিশাল ওলামা শিক্ষাবিদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। স্মরণকালের বৃহত্তম এ ওলামা সমাবেশে প্রায় পাঁচ সহস্রাধিক বিশিষ্ট পীর, আলেম, শিক্ষবিদ ও নেতৃবৃন্দ এতে অংশগ্রহন করেন।
প্রধান মেহমান হিসেবে শুভাগমন করেন তফসিরে কোরআন মাশাহেদুল ঈমানের প্রণেতা ও পবিত্র বোখারী শরীফের ব্যাখ্যাগ্রন্থ প্রণেতা, ওস্তাজুল ওলামা, শায়খুল হাদিস, ইমামে আহলে সুন্নাত, পীরে হাক্কানী, ওলীয়ে রাব্বানী হজরত আল্লামা সৈয়দ সাইফুর রহমান নিজামী শাহ।
দুনিয়াব্যাপী ঈমানিয়াত ও ইনসানিয়াতের বিরাজমান মহাসংকটের কারণ ও তা থেকে মুক্তির বাস্তব দিকনির্দেশনা উপস্থাপন করেন সমাবেশের প্রধান বক্তা বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন এর প্রতিষ্ঠাতা এবং আহলে সুন্নাতের নির্দেশিত জীবন ব্যবস্থার মানবিক রূপরেখা খেলাফতে ইনসানিয়াত তথা সর্বজনীন মানবিক রাষ্ট্রব্যবস্থা ও মুক্ত মানবতার অখন্ড বিশ্বব্যবস্থার দিকদর্শন বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের প্রবর্তক হজরত আল্লামা ইমাম হায়াত।
ইমামে আহলে সুন্নাত সৈয়দ আল্লামা আজিজুল হক শেরে বাংলা (রঃ) এর সাহেবজাদা আল্লামা সৈয়দ আমিনুল হক আল কাদেরী এতে সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ মেহমান হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইমামে আহলে সুন্নাত আল্লামা সৈয়দ আবেদ শাহ মোজাদ্দেদী (রঃ) এর সাহেবজাদা পীর আল্লামা সৈয়দ জাহান শাহ, অধ্যাপক আল্লামা ডঃ আতাউর রহমান মিয়াজী (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), অধ্যাপক আল্লামা ডঃ আবদুল্লাহ আল মারুফ (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), পীরে তরিকত আল্লামা মোশাররফ হোসেন হেলালী (হাক্কানী দরবার শরীফ, ঢাকা), অধ্যাপক ডঃ আল্লামা নুরুন্নবী (এশিয়ান ইউনিভার্সিটি, ঢাকা), অধ্যাপক আল্লামা ডঃ আব্দুল কাদির (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), অধ্যাপক আল্লামা আহসানুল হাদী (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), ফয়েজ লেক দারুল হুদা দরবার শরীফের পীর আল্লামা বেলায়েত হোসেন।
দুনিয়ায় সত্য ও মানবতার মুক্তিসূর্য্যের উদয়স্থল ঈমানী রাজধানী মদিনাতুল মুনাওয়ারা ও মক্কাতুল মোকাররমা পবিত্র কেবলা ভূমি আল-আরবে পবিত্র কলেমা ও মহান শাহাদাতে কারবালার সম্পূর্ন বিপরীত চেতনায় ১৯৩২ সালের ২৩শে সেপ্টেম্বর সৌদি গোত্রবাদী ওহাবীবাদি স্বৈরদস্যুতন্ত্রের অবৈধ প্রতিষ্ঠার দিবসকে দ্বীন-মিল্লাত ও মানবতার বিরুদ্ধে প্রলয়ংকর আঁধার দিবস হিসেবে আল্লামা ইমাম হায়াতের ঐতিহাসিক ঘোষণার সাথে উপস্থিত সকল ওলামা ও শিক্ষাবিদগণ একাত্মতা পোষন করেন এবং বাতিল ওহাবীবাদ-শিয়াবাদ ও সালাফিবাদকে ইসলামের ছদ্মনামে সকল জংগীবাদ ও বিপর্যয়ের প্রধান কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন।
প্রধান বক্তা হিসেবে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্যে বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন ও বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের প্রতিষ্ঠাতা আল্লামা ইমাম হায়াত বলেন, সত্য সাধনা ও জীবনের সুরক্ষা এবং মানবতার কল্যাণ সাধনই ধর্মের প্রকৃত শিক্ষা এবং মানবিক রাজনীতির মূল লক্ষ্য, কিন্তু বর্তমানে ধর্মের প্রকৃত শিক্ষা লঙ্ঘন করে সব ধর্মের নামে এক শ্রেণীর হিংস্র অধর্ম উগ্রবাদ ও রাজনীতির নামে মানবতা বিধ্বংসী দস্যুনীতি চলছে।
ইমাম হায়াত বলেন, দুনিয়াব্যাপী একক ধর্মের নামে অধর্ম উগ্রবাদ ও বস্তুবাদী জাতীয়তাবাদের পাশবিক অপরাজনীতির কারসাজিতে রাষ্ট্রসমূহ অপশক্তির কুক্ষিগত হয়ে একক গোষ্ঠিবাদী দানবীয় স্বৈরতান্ত্রিক হাতিয়ারে পরিণত হয়ে পড়েছে, যার ফলে সত্য রূদ্ধ ও মানবতা ভয়ংকর বিপন্ন হয়ে পড়েছে। একক গোষ্ঠিবাদী হিংস্র সাম্প্রদায়িক অপরাজনীতির ভিত্তিতে ঐতিহাসিক মহাবিপর্যয়কর ইন্ডিয়া বিভক্তির ফলেই উপমহাদেশে বিভিন্ন অপশক্তির উদ্ভব ও বার্মায় চলমান মর্মান্তিক গণহত্যা ও নারকীয় রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস সম্ভব হচ্ছে বলে তিনি বলেন।
ইমাম হায়াত বলেন, দুনিয়াব্যাপী বাতিল জালিম অপশক্তির বিনাশী গ্রাস থেকে মুক্তির একমাত্র পথ সর্বকল্যাণের উৎস প্রাণাধিক প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া আলিহী ওয়া সাল্লাম প্রদত্ত সর্বজনীন মানবাধিকার তথা সবাই মানুষ এবং দুনিয়া সবার এই প্রাকৃতিক সত্যের ভিত্তিতে মানবতার বিপ্লব। তিনি বলেন, মানবতার বিপ্লবের মাধ্যমে একক গোষ্ঠির স্বৈরতামুক্ত সর্বজনীন মানবিক রাষ্ট্র ও মানবতার মুক্ত বিশ্ব খেলাফতে ইনসানিয়াত ব্যতীত রূদ্ধ সত্য ও বিপন্ন মানবতার মুক্তি নেই।

 

Leave a Reply