সামদানি আর্কিটেকচার অ্যাওয়ার্ড প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থানে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপত্য বিভাগ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৪ সেপ্টম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার: আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও শিক্ষায় একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন বলেন, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষার্থী সামদানি আর্কিটেকচার অ্যাওয়ার্ড প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করার অর্থ হলো এই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য বিভাগে শিক্ষার্থীদের আন্তর্জাতিক মানের উচ্চ শিক্ষা প্রদান করা হচ্ছে। বাংলাদেশের পাবলিক ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের স্থাপত্য বিভাগের ১৩৫ জন শিক্ষার্থী ঢাকায় এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করলেও প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষার্থী মাকসুদুল করিম প্রথম স্থান অধিকার করে চট্টগ্রামের মুখ উজ্জ্বল করেছে।
১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার, বেলা ২ টায় নগরীর প্রবর্তক মোড়স্থ প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ভবনে উপাচার্য মহোদয়ের কার্যালয়ে সামদানি আর্কিটেকচার অ্যাওয়ার্ড প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জনকারী স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষার্থী মাকসুদুল করিমকে নিয়ে এই বিভাগের শিক্ষকরা উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেনের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হলে তিনি এসব কথা বলেন।
উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিতব্য ঢাকা আর্ট সামমিট অনুষ্ঠানে একটি প্যাভিলিয়ন নির্মাণের উদ্দেশ্যে সম্প্রতি ঢাকায় সামদানি আর্ট ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের পাবলিক ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের স্থাপত্য বিভাগের ১৩৫ জন শিক্ষার্থী নিয়ে ‘সামদানি আর্কিটেকচার অ্যাওয়ার্ড’ নামে নকশা প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। জুরার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অরেলিয়ান লেমনীর (ন্যাশনাল মিউজিয়াম অফ দ্য হিস্ট্রি অফ ইমিগ্রেশন,প্যারিস, ফ্রান্স), জিনেট প্লাট (কন্সট্রাক্ট, সান্তিয়াগো দ্য চিলি) এবং প্রফেসর শামসুল ওয়ারেস (ডীন এন্ড হেড, স্টেট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ)। এই প্রতিযোগিতায় প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপত্য বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী মাকসুদুল করিম ‘ছায়াতরী’ নামে পরিবেশ-বান্ধব নকশা প্রণয়ন করে প্রথম স্থান অধিকার করেন। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকার করেন বুয়েটের শিক্ষার্থীরা।
উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেনের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হওয়া স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষকরা হলেনÑ বিভাগীয় চেয়ারম্যান সোহেল এম শাকুর, প্রভাষক নোবেল মল্লিক প্রমুখ।

 

Leave a Reply