আসাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সিভাসু’র সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৩ সেপ্টম্বর ২০১৭, বুধবার: “বন্যপ্রাণি স্বাস্থ্য ও ব্যবস্থাপনা” বিষয়ে প্রশিক্ষণ ও গবেষণার লক্ষ্যে ভারতের আসাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে কাজ করবে। আজ বুধবার বেলা ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের কনফারেন্স রুমে এ উপলক্ষে একটি দ্বি-পাক্ষিক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। সমঝোতা চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ এবং আসাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. কে.এম. বুজার বড়–য়া।
চ্ুিক্তর আওতায় এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা প্রতিবছর কমপক্ষে এক মাস ভারতের উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে “বন্যপ্রাণি স্বাস্থ্য ও ব্যবস্থাপনা” বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণের সুযোগ পাবেন। চুক্তি অনুযায়ী উভয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে গবেষণা উপকরণ, প্রকাশনা ও তথ্য বিনিময় এবং যৌথ গবেষণা কার্যক্রম পরিচালিত হবে।
আসাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. কে.এম. বুজার বড়–য়া বলেছেন, গবেষণা কর্ম একটি বিশ্ববিদ্যালয়কে র‌্যাংকিং এর শীর্ষে নিয়ে যায়। প্রতিবেশী দু’টি দেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে যৌথ গবেষণা কার্যক্রম গ্রহণ করলে উভয় প্রতিষ্ঠান লাভবান হতে পারবে। তাঁর বিশ্ববিদ্যালয় বায়োটেকনোলজি, ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরি ও কৃষি বিজ্ঞানে উন্নত প্রযুক্তি সমৃদ্ধ উল্লেখ করে তিনি বলেন, সিভাসু’র শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা প্রাচীন এ প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অভিজ্ঞতা সঞ্চয়ের সুযোগ পাবেন।
এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ বলেন, বর্তমানে সিভাসুর সাথে ইউএসএ, ইউকে, জাপান, ভারত, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়াসহ আরও কয়েকটি বৈদেশিক স্ব-নামধন্য বিশবিদ্যালয়ের প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে ফরমাল একটি স্টুডেন্ট একচেঞ্জ প্রোগ্রাম চালু রয়েছে। আসাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সমঝোতা চুক্তির মাধ্যমে স্টুডেন্ট একচেঞ্জ প্রোগ্রাম আরও একধাপ এগিয়ে গেল। অদূর ভবিষ্যতে মালয়েশিয়ার আরও একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সমঝোতা চুক্তির সম্ভাবনা রয়েছে।
তিনি আরও বলেন, ভারতের অংংধস অAssam Agricultural University’র সাথে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা বিনিময়ের লক্ষ্যে সম্পাদিত সমঝোতা চুক্তি বাস্তবায়িত হলে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে। যৌথ গবেষণা কার্যক্রম, গবেষণা উপকরণ ও প্রযুক্তি বিনিময় এবং এ সংক্রান্ত তথ্য আদান-প্রদানের মাধ্যমে উভয় প্রতিষ্ঠান লাভবান হবে
দ্বি-পাক্ষিক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আসাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ অব ভেটেরিনারি মেডিসিন-এর ডিন প্রফেসর ড. আর.এন. গোস্বামী, বায়োটেকনোলজি বিভাগের স্বনামধন্য অধ্যাপক ড. প্রবোধ বরাহ এবং সিভাসু’র ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন প্রফেসর মো. আ. হালিম, মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ নুরুল আবছার খান, ফুড সায়েন্স এ- টেকনোলজি অনুষদের ডিন প্রফেসর ডা. মো. রায়হান ফারুক, পোল্ট্রি রিসার্চ এ- ট্রেনিং সেন্টারের পরিচালক প্রফেসর ড. পরিতোষ কুমার বিশ্বাস, ওয়ান হেলথ ইন্স্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ড. এ.এম.এ.এম. জুনায়েদ সিদ্দিকী, বহিরাঙ্গণ কার্যক্রম পরিচালক প্রফেসর ড. এ.কে.এম. সাইফুদ্দীন, গবেষণা পরিচালক প্রফেসর ড. মো. কবিরুল ইসলাম খান, রেজিস্ট্রার মীর্জা ফারুক ইমাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন হেকেপ উপ-প্রকল্প সিপিএসএফ-২১৮০ এর উপ-ব্যবস্থাপক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রফেসর ড. আশরাফ বিশ্বাস।
বুধবার সকাল ১০টায় সফরকারী প্রতিনিধি দলের সদস্যরা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণাগার, পোল্ট্রি রিসার্চ এ- ট্রেনিং সেন্টার, এনাটমি মিউজিয়াম, ফিশারিজ মিউজিয়াম ও ভেটেরিনারি হাসপাতালের কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। এরপর বেলা ১১টায় উপাচার্যের কার্যালয়ে উপাচার্য, ডিন ও বিভাগীয় প্রধানদের সাথে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন।

 

Leave a Reply