চট্টগ্রাম কক্্রবাজার সড়কে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ে নৈরাজ্য দেখার কেউ নেই

এম এম রাজা মিয়া রাজু, ০৯ সেপ্টম্বর ২০১৭, শনিবার: চট্টগ্রাম কক্্রবাজার সড়কে অতিরিক্ত বাস ভাড়া আদায় করা চালক হেলপারদের নিয়মে পরিণত হয়েছে বলে জানা যায়। পরিবহন বিভাগ কর্তৃক ভাড়া নেয়ার একটি তালিকা প্রণয়ন করলে ও উক্ত নিয়ম দক্ষিণ চট্টগ্রামের চালক হেলপার মানতে নারাজ। কারণ তারা যাত্রীদের জিম্মি করে নিজের পকেট ভারী করতে মরিয়া হয়ে উঠে। এত্রেক্ষে জনপ্রতিনিধি কিংবা প্রশাসনের কোন ভূমিকা নেই বললে ও চলে। ফলে তারা সড়কে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।তারা অতিরিক্ত টাকার আনন্দে গাড়ী চালাতে গিয়ে দূর্ঘটনায় পতিত হচ্ছে। এতে প্রাণ হারাচ্ছে যাত্রীরা। সম্প্রতি এই সড়কে কয়েকটি দূর্ঘটনা ঘটেছে। এতে নবদম্পতিসহ কয়েকজন নিহত হয়েছে। এর দায় দায়িত্ব কে নেবে সেই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে জনমনে। জানা যায় নির্ধারিত ভাড়ার ৩/৪গুন বেশী নেয়া হয়।তাদের এই অযৌক্তিক অতিরিক্ত ভাড়া কোন অবস্থাতে যাত্রীরা মেনে নিতে পারছে না। ফলে অতিরিক্ত ভাড়া নিয়ে যাত্রীদের সাথে বাস শ্রমিকের প্রায়শঃ তর্কাতর্কি ও হাতা হাতির ঘটনা ঘটে। জানা যায় দক্ষিণ চট্টগ্রামে ঈদ পুজাসহ সরকারী ছুটির দিনে তাদের ইচ্ছামাফিক ভাড়া আদায় করা হয়। এই প্রথা জেলার কোন সড়কে নেই। অথচ সর্বত্রেক্ষে সবকিছুর নিয়ম প্রযোজ্য থাকলে ও উক্ত নিয়ম রহস্যজনক কারণে এই সড়কের গাড়ীর ভাড়ার বেলায় প্রয়োগ হচ্ছেনা। কর্মজীবী মানুষ প্রতিদিন চরম ভোগান্তির শিকার হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। এই অতিরিক্ত ভাড়াকে কেন্দ্র করে যাত্রী ও শ্রমিকদের যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হওয়ার আশংকা রয়েছে। সূত্র মতে যাত্রীরা পরিবহনের নির্ধারিত ভাড়া দিতে কোন সময় গড়িমসি করেনি। বরঞ্চ ডাবল ভাড়া দিতে ও অনীহা প্রকাশ করে না। এরপরও তারা ৩০/৪০ টাকার ভাড়ার স্থলে ১৫০ থেকে ২০০টাকা আদায় করতে বাঁধ সাজে।

Leave a Reply