মুমিনুল হকের ১২০ বলে ১৫২ রানের অসাধারণ এক ইনিংস

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৬ এপ্রিল ২০১৭, বুধবার: মুমিনুল হকের ১২০ বলে ১৫২ রানের অসাধারণ এক ইনিংস। আজ বিকেএসপিতে দোলেশ্বরের বিপক্ষে। ছবি-শামসুল হকমুমিনুল হকের ১২০ বলে ১৫২ রানের অসাধারণ এক ইনিংস। আজ বিকেএসপিতে দোলেশ্বরের বিপক্ষে। ছবি-শামসুল হক
৯ রানের মধ্যে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের দুই ওপেনারকে তুলে নিয়ে দিনের শুরুতেই খুশির ঢেউ ছড়িয়ে পড়ে প্রাইম দোলেশ্বরের ড্রেসিংরুমে। কিন্তু মুমিনুল হকের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে তাদের সেই হাসিটা মিলিয়ে যেতে সময় লাগেনি বেশিক্ষণ। বাঁহাতি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানের ১২০ বলে ১৫২ রানের অসাধারণ এক ইনিংসের সৌজন্যে আজ বিকেএসপিতে দোলেশ্বরকে ৩০৮ রানের বড় লক্ষ্য দিয়েছে গাজী।
গত ১৮ এপ্রিল বিকেএসপিতেই জাতীয় দলের আরেক ওপেনার তামিম ইকবালের ব্যাটে উঠেছিল ঝড়! মোহামেডানের হয়ে তিনি খেলেছিলেন লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ডটা (১৫৭)। আজ তামিমকে তো বটেই, শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যান চামারা কাপুগেদারার লিস্ট ‘এ’ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ ১৬১ রানের রেকর্ডটিও ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল মুমিনুলের।
সেটি যদিও হয়নি। তবে মুমিনুল যে ইনিংসটা খেলেছেন সেটি স্মৃতিতে থেকে যাবে বহুদিন। গায়ে ‘টেস্ট বিশেষজ্ঞ’ তকমা লেগে যাওয়া বাঁহাতি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান স্ট্রোকের পসরা সাজিয়ে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত চড়াও হয়েছেন প্রাইম দোলেশ্বরের বোলারদের ওপর।
মুমিনুল ৫৪ বলে ফিফটি, ৮৯ বলে করেছেন সেঞ্চুরি। আর শেষ ৩১ বলে ৫২ রান—ফরহাদ রেজার বলে আবদুল মজিদের ক্যাচ হওয়ার আগে মুমিনুল করে গেলেন ১৫২ রান, লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে যেটি তাঁর সর্বোচ্চ। মুমিনুলের উইকেট থাকা মানেই তো চোখের প্রশান্তি এনে দেওয়া ব্যাটিংয়ের নিশ্চয়তা! স্লগ সুইপ, রিভার্স সুইপ, স্কয়ার ড্রাইভ, ডাউন দ্য উইকেটে এসে উড়িয়ে মারা—দেখার মতো সব শটে ১৬টি চারের সঙ্গে ৬টি ছক্কা, মুমিনুলের স্ট্রাইকরেট—১২৬.৬৭!
মুমিনুলের দিনে জ্বলে উঠেছেন নাসির হোসেনও। এবার প্রিমিয়ার লিগে ধারাবাহিক ভালো খেলা নাসির অবশ্য আটকে গেছেন ৬৪ রানে। আরাফাত সানিকে সুইপ করতে গিয়ে এলবিডব্লু হয়েছেন জাতীয় দলের এই অলরাউন্ডার। তৃতীয় উইকেট জুটিতে মুমিনুল-নাসিরের ১৫৩ রানের জুটিই গাজীকে পথ দেখিয়েছে। নাসির ফিরলে চতুর্থ উইকেটে মুমিনুল-পারভেজ রসুলের ১০১ রানের জুটি গাজীকে রানের পাহাড় গড়ার স্বপ্নই দেখিয়েছে।
কিন্তু মুমিনুল ফিরতেই গাজী আর এগোতে পারেনি স্বচ্ছন্দে। ৪৪ রানের মধ্যে শেষ ৭ উইকেট হারিয়ে ৪৮.২ ওভারে তারা অলআউট ৩০৭ রানে। ৪১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে দোলেশ্বরের বোলারদের মধ্যে যা একটু সফল ফরহাদ রেজা।
বিকেএসপির অন্য মাঠে কলাবাগান ক্রীড়াচক্র-লিজেন্ডস অব রপগঞ্জের ম্যাচ শুরু হয়েছে চার ঘণ্টা দেরিতে! গত কদিনের ঝড়-বৃষ্টিতে উইকেট ও মাঠ তৈরি না হওয়ায় ম্যাচ শুরু হয়েছে দুপুর ১টায়। ম্যাচ নেমে এসেছে ২৭ ওভারে।
ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সর্বোচ্চ ইনিংস
ম্যাচ ভেন্যু মৌসুম
১৬১* চামারা কাপুগেদারা ভিক্টোরিয়া-প্রাইম ব্যাংক ফতুল্লা ২০১৪-১৫
১৫৭* রবি বোপারা প্রাইম ব্যাংক-মোহামেডান ফতুল্লা ২০১৩-১৪
১৫৭ তামিম ইকবাল মোহামেডান-কলাবাগান কেসি বিকেএসপি ২০১৬-১৭
১৫২ মুমিনুল হক গাজী ক্রিকেটার্স-প্রাইম দোলেশ্বর বিকেএসপি ২০১৬-১৭

Leave a Reply