জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সক্রিয় হলো ছাত্রদল

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৫ এপ্রিল, ২০১৭, শনিবার: দীর্ঘদিন পর পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ক্যাম্পাসে সক্রিয় হলো বিএনপির সহযোগী সংগঠন ছাত্রদল। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগের জগন্নাথ শাখার নেতাকর্মীদের অনুপস্থিতির সুযোগে ছাত্রদলের কর্মীরা প্রভাব বিস্তারও শুরু করেছেন ক্যাম্পাসে।
ছাত্রলীগের বিরোধিতা ও রাজনৈতিক বৈরী পরিবেশের কারণে কোণঠাসা ছাত্রদল ইতিমধ্যে পুরো ক্যাম্পাসে সংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে শোডাউন এবং সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত ক্যাম্পাস বিনির্মাণের দাবিতে লিফলেট বিতরণ করে।
জানা গেছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি না দেয়ায় অনেকটা ঝিমিয়ে পড়েছে এই ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের কার্যক্রম।
এই অনুকূল পরিবেশে গত মঙ্গলবার সকালে হঠাৎ করেই শাখা ছাত্রদলের নেতারা নিজেদের কর্মীদের নিয়ে ক্যাম্পাসের মূল ফটক দিয়ে প্রবেশ করে পুরো ক্যাম্পাস শোডাউন দেয় এবং সাধারণ শিক্ষার্থীগের মাঝে সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত ক্যাম্পাস বিনির্মাণের দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে লিফলেট বিতরণ করেন তারা।
জানা যায়, ২০১২ সালের ৩ অক্টোবর এফ এম শরিফুল ইসলামকে সভাপতি এবং এস এম সিরাজুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছরের জন্য কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল। এক বছরের কমিটি প্রায় সাড়ে চার বছর পার করলেও নতুন কমিটি দেয়া সম্ভব হয়নি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের। বহু আলোচনা-সমালোচনার পর কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ওবায়দুল কাদেরকে প্রধান অতিথি করে গত ৩০ মার্চ নতুন কমিটির জন্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু ছাত্রলীগের সিন্ডিকেট ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে সমঝোতা না হওয়ায় ১২ দিন পার হলেও এখনো জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি দিতে পারেনি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।
নতুন কমিটিতে পদ পেতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতা ও ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতাদের বাড়ি ও অফিসে ধরনা দিচ্ছেন। এই কারণে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ছাত্রলীগশূন্য হয়ে পড়েছে। আর এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ক্যাম্পাসে তাদের আধিপত্য বিস্তার করছেন।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতা জানান, ছাত্রলীগের সিন্ডিকেটের বিভিন্ন নেতা ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় এখনো জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। কোনো নেতাই নিজেদের পছন্দের বাইরে অন্য নেতার কর্মীদের পছন্দ করছে না। এই অসমঝোতার কারণেই মূলত কমিটি আটকে আছে।
সাধারণ শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা যায়, ১২ দিন ধরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ কর্মীরা অভিভাবকহীন অবস্থায় পার করছে। ক্যাম্পাসে কোনো ছাত্রলীগের নেতাকে সক্রিয় দেখা যাচ্ছে না। তারা নতুন কমিটির পদ-পদবি পাওয়ার জন্য লবিং করতে ক্যাম্পাসের বাইরে সময় দিচ্ছে। এতে ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের নেতৃত্বের অভাব অনুভূত হচ্ছে। এই সুযোগে শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা সক্রিয় হচ্ছেন।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রফিক ও সাধারণ সম্পাদক আসিফ রহমান বিপ্লবের নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে শোডাউন দিয়ে বিজ্ঞান ভবন, শহীদ মিনার, ভাষা শহীদ রফিক ভবন, কলা ভবন, ভাস্কর্য চত্বর, নতুন ভবনে সন্ত্রাস ও দুর্নীতিমুক্ত ক্যাম্পাস বিনির্মাণের দাবিতে লিফলেট বিতরণ করেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক দিয়ে বের হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে গিয়ে তাদের এই কর্মসূচি শেষ হয়।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সহসভাপতি আব্দুল জলিল, মিরাজ রহমান, আবু বক্কর ছিদ্দিক শুভ, মিজানুর রহমান নাহিদ, মনিরুজ্জামান খান, এস এম আল-আমিন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, আসাদুজ্জামান আসলাম, জাকির হোসেন উজ্জল, আব্দুল মান্নান, মিজানুর রহমান শরিফ, ইব্রাহিম কবির মিঠুসহ শতাধিক নেতাকর্মী।
এদিকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রদলের উপস্থিতি টের পেয়ে ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মী দুপুরে ক্যাম্পাসে আসে। কিন্তু কোনো ছাত্রদল নেতাকর্মীকে পাননি তারা।

Leave a Reply