সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ দমনে কোরআন সুন্নাহর শাসন ব্যবস্থার বিকল্প নেই: আল্লামা নূরী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১২ এপ্রিল, ২০১৭, মঙ্গলবার: বায়তুশ শরফ মজলিসুল ওলামা বাংলাদেশের মহাসচিব প্রখ্যাত আলেমেদ্বীন আল্লামা মামুনুর রশীদ নূরী বলেছেন, আল কোরআন হচ্ছে মানবজাতির হিদায়াতের জন্য সর্বশেষ আসমানী কিতাব, সুস্পষ্ট পথ নির্দেশিকা, পরিপূর্ণ জীবন ব্যবস্থা, পরিচ্ছন্ন জীবন যাপনের ম্যানুয়েল এবং আল্লাহ প্রদত্ত একমাত্র সংবিধান। যেটা অবতীর্ণ হয়েছে শান্তিও সাফল্যের বার্তা নিয়ে যাতে রয়েছে নৈতিক ও উন্নত গুণাবলীর ভান্ডার।
বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও আলেমেদ্বীন মাওলানা ফৌজুল কবির হেলালীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাহফিলে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের যুব সমাজ কোরআন হাদিসের চর্চা ও শিক্ষা থেকে বিমুখ হওয়ার কারণে সমাজ ও রাষ্ট্র বিধ্বংসী দুষ্টক্ষত সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের মত ঘৃণিত কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েছে যে টা দেশ জাতি স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের জন্য মারাত্মক হুমকী হয়ে দাড়িয়েছে। অথচ ইসলাম সকল ধরনের হত্যাকান্ড, নৈরাজ্য ও অরাজকতার সম্পূর্ণ বিরোধী। মাওলানা নূরী আরো বলেন, ইসলামের শিক্ষা হচ্ছে মানুষ মানুষ হৃদ্যতা ও পারস্পরিক সৌহার্দ্য স্থাপনের মাধ্যমে শান্তি ও সমৃদ্ধির পৃথিবী গড়ে তোলা।
তিনি আরো বলেন, আল কোরআন আরব উপাত্যকায় মেষপালকদের বিশ্ব বিজয়ী জাতির আসনে বসেয়েছিল এবং গোত্রীয় কলহে বিধ্বস্ত ও বর্বরতার অন্ধকারে নিমর্জিত নিরক্ষর ক্রীতদাসদের মত বিচ্ছিন্ন জনগোষ্ঠিকে শাশ্বত জ্ঞানের জ্যোতির্ময় আলোকে উদ্ভাসিক করে ঈমানী নিবিড় বন্ধনে ঐক্যবদ্ধ করে দিয়েছিল। তিনি দূর্নীতি, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ মুক্ত একটি শান্তি ও সৌহর্দপূর্ণ সোনার দেশ গড়ার জন্য কোরআন সুন্নাহর শাসন প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন।
গতকাল সন্ধ্যায় সাতকানিয়া ছদাহা পূর্ব খোর্দ্দকেঁওচিয়া বহদ্দার ফোরকানিয়া মাদরাসার বার্ষিক সভা ও ওয়াজ মাহফিলে প্রধান বক্তার বক্তব্যে মাওলানা মামুনুর রশীদ নূরী উপরোক্ত কথা বলেন।  মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন ছদাহা ইউপির চেয়ারম্যান মো: মোসাদ হোসাইন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব মোহাম্মদ সবুজ, মাহমুদুল হক। বিশেষ বক্তা ছিলেন মাওানা আবদুস ছোবহান, মাওলানা ইলিয়াছ মুহাম্মদ আজাদ, মাওলানা নোমানুর রহমান নূরী, মাওলানা আমির হোসেন, মাওলানা নুরুল আমিন, মাওলানা মহি উদ্দিন হেলালী, মাওলানা আজিজুল হক, মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সহসভাপতি দেলোয়ার হোসেন ও দিদারুল আলম প্রমুখ।

Leave a Reply