নগরীর রামপুর ওয়ার্ডে ২০ তম বৈশাখী মেলা উদ্বোধন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১০ এপ্রিল, ২০১৭, সোমবার: বাঙালির ইতিহাস ও ঐতিহ্যের উপর ভিত্তি করে বাঙালি জাতি বৈশাখকে বরন করে। ১৪২৪ বঙ্গাব্দ বরন উপলক্ষে চট্টগ্রাম নগরীর ২৫নং রামপুর ওয়ার্ডে সপ্তাহ ব্যাপি বৈশাখী মেলা ১০ এপ্রিল থেকে শুরু হলো। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন গোলপুকুর পাড়ে আয়োজিত বৈশাখী মেলা ১০ এপ্রিল ২০১৭ খ্রি. সোমবার, সকালে ফিতা কেটে ও বেলুন উড়িয়ে শুভ উদ্বোধন করেন। মেলা উদ্বোধন পূর্বে অনুষ্ঠিত সুধী সমাবেশে মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত সহ কোন বাধাই তার চলার পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে রাখতে পারবে না। নগরবাসীকে দেয়া প্রতিটি ওয়াদা অক্ষরে অক্ষরে বাস্তবায়ন করাই তার অঙ্গীকার। এ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাসন আমলে নানামুখী চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র এর মধ্য দিয়ে তার উন্নয়নের ধারাকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করেছিল। বিফল হয়ে বঙ্গবন্ধুকে ১৯৭৫ সনের ১৫ আগষ্ট নির্মমভাবে হত্যা করে উন্নয়নের চাকাকে বাধাগ্রস্ত করা হয়। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা না করলে তাকে থামানোর মত কোন ক্ষমতা ষড়যন্ত্রকারীদের ছিল না। এ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, মানুষের দোয়া ও ভালবাসা থাকলে কোন চক্রান্তই সফল হবে না। মেয়র অতিতের তিক্ত অভিজ্ঞতা বাস্তব কিছু চিত্র উপস্থাপন করে বলেন, যারা নালা-নর্দমা ও ফুট-পাত দখল, প্লট বরাদ্দের নামে ধোকাবাজি, আয়বর্দ্ধক প্রকল্পের নামে সরকারী সম্পদ অপচয়, নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য অবৈধ দখল সহ ভোগ বিলাসের জন্য বহুমুখী অবৈধ পন্থা অবলম্বন করেছিল তাদের মধ্যে কেউ কেউ অন্তরের জ্বালা প্রশমিত করার জন্য নগরবাসীর সামনে মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত। জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, অতিতে অনেক দু:সময় ও প্রতিকুলতা মোকাবেলা করে জনগনের রায় নিয়ে ঈমানি দায়িত্ব হিসেবে সততার সাথে সেবা করার মানসিকতায় দায়িত্ব পালন করছি। এ ক্ষেত্রে কোন অপশক্তি সফল হবে না। ৩ অর্থ বছরের মধ্যে নাগরিক সেবা শতভাগ নিশ্চিত করা হবে। উন্নয়ন, আলোকায়ন ও পরিচ্ছন্ন পরিবেশ নিশ্চিত করে চট্টগ্রামকে বিশ্বমানের নগরীতে উন্নিত করা হবে। জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, পৌরকর নাগরিক সেবার একমাত্র উৎস। সরকারের বিধি-বিধান, আইন-কানুন, নিয়ম-নীতি অনুসরন করে নাগরিকদের কাছ থেকে পৌরকর আদায় করার দায়িত্ব সিটি কর্পোরেশনের।মেয়র ও তার পরিষদের পক্ষে পৌরকর ধার্য করার বা বৃদ্ধি করা কোন একতিয়ার নেই। উত্তরাধিকার সূত্রে ১৯৮৫ সন থেকে পৌরকর ধার্যকৃত হারে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন বর্তমানে কর পুন:মূল্যায়ন করছে মাত্র। এ বিষয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের মত অন্তর জ্বালা প্রশমিত করার কোন সুযোগ নেই। জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, পহেলা বৈশাখ বাঙালির জাতীয় জীবনে ঐতিহ্যবাহী একটি দিন। এ দিনকে সামনে রেখে শপথ নিয়ে ইতিহাস ও ঐতিহ্য রক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। বৈশাখী মেলার উদযাপন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান কাজলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন। এ ছাড়াও এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এস এম এরশাদুল্লাহ, হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহফুজুর রহমান। বক্তব্য রাখেন নিয়াজ মোহাম্মদ আজাদ, আবদুল লতিফ, সুমন দেবনাথ, শাহব উদ্দিন চৌধুরী, মেলা কমিটির আহবায়ক মো. নজরুল ইসলাম, সদস্য সচিব আবদুল আহাদ, অন্যদের মধ্যে সাইদুল আলম, জহুর মিয়া, মঞ্জুরুল আলম দুলাল, ছাত্রনেতা মাকসুদুর রহমান মাসুদ, সায়েম, আমানত উল্লাহ, বাবলু, মো. ইসমাঈল, মো. সায়েম, রুবেল, কাদের, বোরহান, মানিক, মো. জাবেদ, আমিনুল ইসলাম রুবেল, মনিরুল্লাহ খান, সাজ্জাদ হোসেন বিজয়, রবিন খান, নুরে আলম ইমন, মুসলেহ উদ্দিন তুহিন, মাসুক সহ অন্যরা।

Leave a Reply