চট্টগ্রামে ৫০ দিনব্যাপী ট্রেড ভিত্তিক প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ০৯ এপ্রিল, ২০১৭, রবিবার: সমাজসেবা অধিদফতর চট্টগ্রাম আয়োজিত হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন শীর্ষক কর্মসূচীর আওতায় ৫০ দিনব্যাপী বিভিন্ন ট্রেড ভিত্তিক প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর উদ্বোধন ও সেমিনার আজ ৯ এপ্রিল ১৭ইং রবিবার সকাল ১০ টায় আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, মুরাদপুর চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হয়। সমাজসেবা অধিদফতর চট্টগ্রামের উপপরিচালক বন্দনা দাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইটি) হাবিবুর রহমান। বিশেষ অতিথি মানসিক প্রতিবন্ধী শিশুদের প্রতিষ্ঠান রউফাবাদ চট্টগ্রামের উপপরিচালক মো: শহীদুল ইসলাম, সিভিল সার্জন চট্টগ্রাম এর প্রতিনিধি ডাঃ ওয়াহেদ চৌধুরী অভি, চসিক মহিলা কাউন্সিলর জেসমিন পারভীন জেসী ও আবিদা আজাদ। সেমিনারে সমাজসেবা অফিসার পারুমা বেগম, অভিজিৎ সাহা, কামরুল পাশা ভূঁইয়া, মো: জসিমউদ্দিন, মো: ওয়াহীদুল আলম, মো: সফিউদ্দিন, মো: আশরাফ উদ্দিন, আফতাব উদ্দিন চৌধুরী, মো: আলমগীর, মো: আবুল কাশেম, ফাহমিদা আফরোজসহ প্রশিক্ষণার্থী হিজড়া উপস্থিত ছিলেন। জেলা সমাজসেবা কার্যালয় চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক ওমর ফারুকের সঞ্চালনায় শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন পটিয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মো: শফিউদ্দিন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয় চট্টগ্রামের উপপরিচালক বন্দনা দাশ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কবিতা হিজড়া, কর্ণফুলী হিজড়া সংঘের সভাপতি পায়েল হিজড়া, বন্ধু সোস্যাল ওয়েলফেয়ার সংস্থার সমন্বয়ক নাজমুল হক, সমাজসেবা অফিসারের পক্ষে পারুমা বেগম প্রমুখ। সেমিনারে বক্তারা বলেন, এক জরিপে দেখা যায়, বাংলাদেশে প্রায় ১০ হাজার হিজড়া জনগোষ্ঠী রয়েছে তাদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে বর্তমান সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর হিজড়াদের প্রশিক্ষণ বিভিন্ন ভাতা কার্যক্রমসহ ব্যাপক উন্নয়ন ও আত্মকর্মসংস্থানমূলক কর্মসূচী গ্রহণ করেছেন। ২০১২-২০১৬ অর্থ সাল হতে হিজড়াদের জন্য ৫০ জন করে প্রতি জেলায় ট্রেড ভিত্তিক বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মসূচী প্রদান করে আসছে। প্রশিক্ষণার্থীদের দৈনিক ৩ শত টাকা হারে ভাতাসহ প্রশিক্ষণ শেষে কর্মসংস্থানের জন্য জনপতি ১০ হাজার টাকা এককালীন সাহায্য প্রদান করা হবে। হিজড়াদের সামাজিকভাবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিসহ মানসিক পরিবর্তন ঘটাতে হবে। সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে তাদেরকে তৃতীয় লিঙ্গ হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করতে হবে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে সামাজিক সীমাবদ্ধতায় হিজড়াদের সামাজিকভাবে পুনর্বাসন করে তাদেরকে সমাজের মূল ধারায় সম্পৃক্ত করতে পারলেই তাদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি  প্রশিক্ষণার্থীদের মনোযোগ সহকারে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেদেরকে স্বাবলম্বী হয়ে আত্মকর্মসংস্থানের জন্য অনুরোধ জানান। তিনি হিজড়াদের দোকানে দোকানে বা রাস্তায় রাস্তায় টাকা না তুলে আত্মকর্মসংস্থানের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়ে সমাজে বেঁচে থাকাসহ টাকা তোলার দৃষ্টি পরিবর্তন করার জন্য হিজড়াদের পরামর্শ প্রদান করেন। হিজড়াদের বিভিন্ন সমস্যাসমূহ চিহ্নিত করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রস্তাব আকারে জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে লিখিতভাবে দাবী পেশ করার জন্য অনুরোধ জানান। উল্লেখ্য, সমাজসেবা অধিদফতর চট্টগ্রামের আয়োজনে ৯ এপ্রিল হতে ৫০ দিনব্যাপী পোশাক, বিউটিফিকেশন, মোবাইল সার্ভিসিং ও কম্পিউটার এবং হস্তশিল্প ট্রেডের উপর ৫০ জন হিজড়া প্রশিক্ষণ কোর্সে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান শেষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক কাপড় কেটে প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

Leave a Reply