পটিয়ার দৌলতপুর হযরত সুমাইয়্যা মহিলা মাদ্রাসায় সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৮ এপ্রিল ২০১৭, শনিবার: চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের হযরত সুমাইয়া (রা.) মহিলা মাদ্রাসার শ্রেণী কক্ষ, টয়লেট, অফিস রুমে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করেছে সন্ত্রাসীরা। গত ৫ এপ্রিল বিকাল ৩ টায় দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে  ১০/ ১২ জনের একটি সশস্ত্র গ্রুপ অতর্কিত মাদ্রাসায় হামলা চালায়। তারা মাদ্রাসায় ব্যাপক ভাংচুর চালায়। তারা মাদ্রাসার চারিদিকে ভাউন্ডারী ভেড়া, মাদ্রাসার ছাত্রীদের শ্রেণী কক্ষ, মাদ্রাসার ৬ টি টয়লেট ভেঙ্গে ফেলে এবং অফিস রুমেও হামলা চালায় এ সময় ছাত্রী ও শিক্ষকরা প্রতিবাদ করলে তাদেরকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে প্রাণে মেরে ফেলার ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে। বর্তমানে শ্রেণী কক্ষের অভাবে ছাত্র-ছাত্রীদের পাঠদান বন্ধ রয়েছে। মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মাওলানা হাফেজ মোহাম্মদ সোলাইমান এর সাথে পারিবারিক পূর্ব শত্রুতার রেশ ধরে একই গ্রামের মৃত ছালে আহমদের পুত্র গং মোহাম্মদ ইউনুছ (৪৫) এবং একই গ্রামের মৃত মোহাম্মদ রফিক এর ছেলে আবদুল হক মুন্সি এর নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা এই জগন্য ঘটনাটি করেছে।
মোহাম্মদ ইউনুছ তার ভাইসহ সাঙ্গ-পাঙ্গ সন্ত্রাসী দল নিয়ে হামলা চালিয়ে সুমাইয়্যা (রা.) মহিলা মাদ্রাসার ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে। উল্লেখ্য যে, মাদ্রাসায় ভাংচুর ও হামলা চালানোর সময় একদল মহিলাকেও ব্যবহার করে। এই ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানা যায়।
এই ঘটনার পর হযরত সুমাইয়্যা (রা.) মহিলা মাদ্রাসায় প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মাওলানা হাফেজ সোলায়মান নিজে বাদী হয়ে পটিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ নং ৮৮৭/১৭ তাং ৫/৪/১৭ ইং। এলাকার শান্তিপ্রিয় জনগণ এবং ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকরা এই সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন এবং দ্রুত হামলাকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ও মাদ্রাসার ক্ষয়ক্ষতি পূরণ করার দাবী জানিয়েছেন। এদিকে দৌলতপুর মহিলা মাদ্রাসায় হামলার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছেন বাংলাদেশ শিক্ষা পর্যবেক্ষণ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান কলামিস্ট মাহমুদুল হক আনসারী, মহাসচিব সাংবাদিক কে.এম. আলী হাসান। নেতৃবৃন্দ বলেন আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেফতার করে মাদ্রাসার লেখাপড়ার ব্যবস্থা করার দাবী জানিয়েছেন। অন্যথায় চট্টগ্রামের উর্ধ্বতন প্রশাসনের সাথে সাক্ষাতের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান।

Leave a Reply