প্রমাঅবন্তী ও তাঁর দল নাচবে ঢাকায় ৮ ও ৯ এপ্রিল

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৩ এপ্রিল ২০১৭, সোমবার: প্রমাঅবন্তী ওড়িশী নৃত্যজগতে অপরিহার্য একনৃত্যশিল্পী। বাংলাদেশে প্রথম প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ওড়িশী নৃত্যের উপর উচ্চমাধ্যমিক, বি. এ (অনার্স), এম. এ (ওড়িশী) ডিগ্রী করেন রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কলকাতা থেকে চট্টগ্রামের প্রমাঅবন্তী। উচ্চাঙ্গ ওড়িশী নৃত্য চর্চায় তিনি নিজেকে সীমাবন্ধ রাখেননি পাশাপাশি তিনি তৈরি করছেন এক ঝাঁক প্রতিশ্রুতি সম্পন্ন ওড়িশী নৃত্যশিল্পী। যে প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি শিল্পী তৈরি করেছেন, তাঁরই হাতেগড়া অনুশীলন কেন্দ্র ‘ওড়িশী এন্ড টেগোর ডান্স মুভমেন্ট সেন্টার, চট্টগ্রাম। এই প্রতিষ্ঠানে ১৬ বছর পার করেছেন, ষষ্ঠদশ বর্ষপূর্তি উপলক্ষে তিনি ঢাকা শিল্পকলা একাডেমী’র জাতীয় নৃত্যশালায় আগামী ৮ ও ৯ এপ্রিল আয়োজন করেছেন আন্তর্জাতিক নৃত্য উৎসবের। এ নৃত্য উৎসবে মোট ৬৫জন ওড়িশী নৃত্যশিল্পী উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অর্থাৎ ৮ তারিখ ওড়িশী নৃত্য প্রদর্শন করবেন। এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন ভারত বর্ষের বিখ্যাত ওড়িশীশিল্পী গুরু পৌষালী মুখার্জী। গুরু পদ্ম-বিভূষণ গুরু কেলুচরণ মহাপাত্রের হাতে প্রমাঅবন্তী প্রতিষ্ঠা হলেও, হাতেখড়ি গুরু পৌষালী মুখার্জীর হাতে। দীর্ঘ ২০ বৎসর যাবৎ তিনি তাঁর সান্নিধ্যে ওড়িশী নৃত্যচর্চা ও অনুশীলন করে চলেছেন। দু’দিন ব্যাপি অনুষ্ঠানমালায় ২য় দিন অর্থাৎ ৯ এপ্রিল তিনি ও তাঁর দল পরিবেশন করবে নজরুলের গান, কবিতা, চিঠি ও জীবনের উপর ভিত্তি করে নৃত্যালেখ্য ‘বাঁশরী ও তূর্য হাতে কবি’। এ নৃত্যালেখ্য নজরুলের গানে ‘মুদ্রা’ ও ‘কোরিওগ্রাফী’র এক নতুন নৃত্যভাবনা সৃষ্টি করেছেন। নজরুলের গানের ‘মুদ্রা’ ও কোরিওগ্রাফী’র যে অর্ন্তনিহিতভাব সে ভাবনাকে এই নৃত্যনাট্যে তুলের আনার প্রয়াস লক্ষ্য করা যায়। যা শুধু অভিনব নয়, নৃত্যে নজরুলের গানের নৃত্যাঙ্গিক পুন:আবিষ্কার পরিলক্ষিত হয়। দু’দিন ব্যাপি অনুষ্ঠানে ১ম দিন ৮ এপ্রিল সন্ধ্যা ৬.৩০টায় দেশবরেণ্য নৃত্যশিল্পীদের সম্মাননা জ্ঞাপন অনুষ্ঠান ও ওড়িশী নৃত্যানুষ্ঠান। অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কামাল লোহানী, গুঞ্জন পরিচালক গুরু পৌষালী মুখার্জী, ঢাকাস্থ ইন্দিরাগান্ধী কালচারাল সেন্টারের পরিচালক জয়শ্রী কু-ু। এতে সভাপতিত্ব করবেন ওড়িশী এন্ড টেগোর ডান্স মুভমেন্ট’র সভাপতি ড. অনুপম সেন। ২য় দিন ৯ এপ্রিল সন্ধ্যা ৬.৩০টায় অতিথি হিসেবে থাকবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস প্রফেসর অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। সন্ধ্যা ৭টায় কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা ও সঙ্গীত অবলম্বনে ও নৃত্যালেখ্য ‘বাঁশরী ও তূর্য হাতে কবি। দু’দিন ব্যাপি অনুষ্ঠানের গ্রন্থনা, পরিকল্পনা ও নৃত্যনির্মিতি প্রমাঅবন্তী। অনুষ্ঠান সহযোগিতায় ভারতীয় সহকারী হাই কমিশন-চট্টগ্রাম, গণপ্রজান্ত্রী বাংলাদশ সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী।

Leave a Reply