ইসলামের শান্তি, সম্প্রীতি ও মানব কল্যাণের শিক্ষা জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে হবে: মোঃ রুহুল আমীন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৩ এপ্রিল ২০১৭, সোমবার: ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমী চট্টগ্রাম কেন্দ্রে ৮৯৯ তম দলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইমামদের সনদ বিতরণ অনুষ্ঠান ৩ এপ্রিল ২০১৭ খ্রিঃ তারিখ ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমী মিলনায়তনে উপ-পরিচালক, জনাব বোরহান উদ্দীন মোঃ আবু আহসান-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কমিশনার, চট্টগ্রাম জনাব মোঃ রুহুল আমীন প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে চট্টগ্রাম বিভাগের ৯টি জেলা থেকে আগত ৯৫ জন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইমামদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন। তিনি ইমামদের উদ্দেশ্যে বলেন, ইমামগণ হচ্ছেন ধর্মীয় নেতা। তাঁদেরকে মসজিদে খুতবা ও অন্যান্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ইসলামের সুমহান আদর্শ এবং কুরআন হাদিসের শিক্ষা জনগণের কাছে পৌঁছানোর জন্য গুরত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে হবে। তিনি বলেন, মহানবী হযরত মুহাম্মদ(স.)কে আল্লাহ দুনিয়াতে প্রেরণ করেছিলেন শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য। তিনি নবী হওয়ার পূর্বেই ‘হিলফুল ফুযুল’ নামক শান্তি সংঘ প্রতিষ্ঠা করে তৎকালীন সমাজ থেকে রক্তপাত, হানাহানি ও সংঘাত দূরীভূত করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। মক্কা থেকে মদীনায় হিযরত করার পরপরই তিনি মদিনায় বসবাসকারী সকল সম্প্রদায়, ইহুদী, খৃষ্টান, পৌত্তলিক ও মুসলমানদেরকে নিয়ে সাম্প্রদায়িক শান্তি, সম্প্রীতি, ঐক্য,পারস্পরিক দায়িত্ব ও কর্তব্য এবং জনগনের নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করার জন্য ঐতিহাসিক মদিনা সনদ প্রণয়ন করেছিলেন। ইসলাম শান্তির ধর্ম, এখানে জোর জবরদস্তি, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের কোন স্থান নেই। ইসলামের নামে যারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি এবং শান্তি শৃঙ্খলা বিনষ্ট করতে চায় তারা ইসলাম, দেশ ও মানবতার শত্রু। ইসলামিক ফাউন্ডেশন পরিচালিত ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমী ইমামদেরকে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে বিভিন্ন বিষয়ে যে যুগোপযোগী প্রশিক্ষণ দিয়ে যাচ্ছে তিনি তার ভূয়সী প্রশংসা করেন।  অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমী চট্টগ্রামের উপ-পরিচালক জনাব বোরহান উদ্দীন মোঃ আবু আহসান বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইসলামের সঠিক আদর্শ প্রচার-প্রসার এবং জনগনের মাঝে নৈতিক মূল্যবোধ সৃষ্টির লক্ষ্যে ১৯৭৫ সালের ২২ মার্চ ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি ইমামদের প্রতি ইসলামের সঠিক জ্ঞানার্জন এবং জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি মাঠ পর্যায়ে প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান কাজে লাগিয়ে স্বাবলম্বী হওয়ার পাশাপাশি দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ডে নিজেদেরকে সম্পৃক্ত করে সরকারের সার্বিক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে সক্রিয় ভূমিকা পালনের জন্য ইমামদের প্রতি আহবান জানান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমীর সমাজ বিজ্ঞান প্রশিক্ষক জনাব মোঃ আকতার হোসেন। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব নুরুজ্জামান চৌধুরী। অনুষ্ঠান পরিচালনাসহ দেশ ও জাতির উত্তরোত্তর শান্তি, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করে মিলাদ এবং মুনাজাত পরিচালনা করেন ধর্মীয় প্রশিক্ষক জনাব মোহাম্মদ এনায়েত হোসাইন।

Leave a Reply