সাতকানিয়ায় মোটর সাইকেল চোর সক্রিয়

সাতকানিয়া প্রতিনিধি, ১ এপ্রিল ২০১৭, শনিবার: গরু চোর থমকে গেলে ও সাতকানিয়ায় আবার মোটর সাইকেল চোর সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তারা ভাল মানুষ ছদ্ম বেশে মার্কেট ও প্রতিষ্টানের কাছে ঘুরে বেড়ায়। সুযোগ পেলে চোখের পলকে মোটর সাইকেলের তালা খোলে চম্পট দেয় বলে জানা গেছে। চুরিকৃত এসব মোটর সাইকেল উদ্ধার করা মালিকের পক্ষে দুষ্কর হয়ে পড়ে। এক্ষেত্রে মালিকেরা তেমন আইনের আশ্রয় নেন না বলে জানা যায়। এদিকে গত সোমবার কেওঁচিয়া ইউনিয়নের তেমুহনি এলাকায় সংঘবদ্ধ মোটর সাইকেল চোরের সক্রিয় ৩ সদস্য মানিকের ঘরে চুরি করতে যায়। এসময় চোরেরা তার ঘরের কলাপসিবল গেইট বন্ধ করে মোটর সাইকেলের তালা ভাঙ্গার সময় তিনি টের পেয়ে ঘর থেকে বাইর হতে না পেরে শৌর চিৎকার করলে আশ পাশের লোকজন এগিয়ে এসে ৩ চোরকে আটক করে। এরপর মালিকসহ জনতা তাদের স্থানীয় বোর্ড অফিসে নিয়ে যাওয়ার পথে ২জন পালাতে দৌড় দেয়। কিন্তু জনতা ১জনকে ধরতে সক্ষম হলে ও অন্যজন পালিয়ে যায় বলে যায়। আটকৃত ২ জনের নাম ছদাহা’র আজিমপুর এলাকার মৃত পেঠানের ছেলে মোঃ রাসেল (২৮) একই এলাকার মৃত আবদুল খালেকের ছেলে দিদারুল আলম (২৬)। তাদেরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। এছাড়া কেরানীহাট অল কেয়ার হাসপাতালের সামনে থেকে ২৩ মার্চ দিন দুপুরে চোরের দল একটি মোটর সাইকেল নিয়ে যায়। উক্ত মোটর সাইকেলের মালিক পল্লী চিকিৎসক শম্ভু কুমার নাথ। তার ডিসকভার মোটর সাইকেল নংÑ চট্টমেট্টো-খ- ১৪Ñ১৬৬০। গাড়ীটির মূল্য ১লক্ষ ৬০ হাজার টাকা বলে জানা গেছে। তিনি থানায় একটি অভিযোগ করেন। চুরিকৃত মোটর সাইকেল গুলো গ্যারেজে বিক্রি করে বলে সূত্রেপ্রকাশ। কতিপয় গ্যারেজের মালিকের আশ্রয় প্রশ্রয়ে চোরেরা মোটর সাইকেল চুরি করার উৎসাহ হয় বলে অভিযোগ এলাকায় উঠেছে। কারণ তারা চুরিকৃত মোটর সাইকেল চোর থেকে কিনে নেয়।পরে তারা নাম্বার ও রঙ পাল্টিয়ে বিক্রি বলে জানা যায়। স্বল্প দামে কিনে চড়া দামে বিক্রি করে অল্পদিনে পয়সাওয়ালা বনে যায়। তারা আরামে চললে ও মাথায় হাত দেয় মোটর সাইকেলের মালিকেরা। এসব চোরকে চিহ্ন করার জন্য ভুক্তভোগীরা দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Reply