বান্দরবানে সুকৌশলে পাহাড় কাটছেন ধনা বাবু, ঝুঁকিতে ২০পরিবার

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১ এপ্রিল ২০১৭, শনিবার: বান্দরবানে পরিবেশ আইন অমান্য করে অভিনব কায়দায় পাহাড় কাটছেন হাফেজঘোনার নতুন বাসষ্টেশন এলাকার ওয়ার্কশপ মালিক সমীর ভট্টাচার্য্য প্রকাশ ধনা বাবু। বান্দরবানের হাফেজঘোনার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিপরীত পাশে উন্নয়ণ বোর্ডের রেষ্টহাউজ ঘেসে নতুন টিনের ঘেরাও দিয়ে কৌশলের আশ্রয় নিয়ে প্রশাসনের চোখকে ফাঁকি দিয়ে প্রকাশ্যে পাহাড় কাটছে দীর্ঘদিন ধরে। সরেজমিনে দেখা গেছে, প্রথমে চারদিকে নতুন টিনের বেড়া দিয়ে পাহাড় কেটে কোন প্রকার গাইড ওয়াল না দিয়েই চারদিকে মাটি আলগা ভাবে ফেলে রাখা হয়েছে। মাটির বস্তা দিয়ে পাহাড়ের মাটি চাপা দেয়ার ফলে উন্নয়ণ বোর্ডের রেস্ট হাউজের ওয়ালটিও রয়েছে ঝুঁিকতে। অপরদিকে অপরিকল্পিত পাহাড় কাঁটার ফলে পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসরত ২০টিরও অধিক পরিবার বর্ষায় পাহাড় ধ্বসের ঝঁকিতে রয়েছে। এ ব্যাপারে ঝুঁকিতে বসবাসরত কয়েকটি পরিবার জানান, আমরা অনেকবার বাঁধা দেবার পরও ধনাবাবু আমাদের কথার তোয়াক্কা করছেননা।এছাড়া প্রতিদিনই পাহাড়টি আস্তে আস্তে কেটে বড় করছেন। কোন প্রকার নিরাপত্তার বেষ্টনী না দেয়ায় সামনের বর্ষায় আমাদের জীবন ঝুঁকিতে থাকবে। এ ব্যাপারে আমরা প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি। পাহাড় কাটার বিষয়ে সমীর ভট্টাচার্য্য প্রকাশ ধনা বাবু বলেন, পার্বত্য এলাকায় বসত বাড়ি করতে হলে পাহাড় কাটতেই হবে। পাহাড় না কাটলে ঘর করব কিভাবে? আরো অনেকেই পাহাড় কেটে ঘর বানাচ্ছে আগে তাদের ধরেন।
বান্দরবান সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজন চৌধুরী বলেন, হাফেজ ঘোনায় যে ঘর বানানোর জন্য পাহাড় কাটা হয়েছে তা আমার জানা নাই। আমি খবর নিয়ে অবশ্যই ব্যবস্থা নিচ্ছি।

Leave a Reply