৩৯ কোটি ৬০ লাখ ফিচার ফোন বাজারে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, মঙ্গলবার: ফিচার ফোন আর চলবে না—এটা স্রেফ কথার কথা। গত বছরেই তো বিশ্বজুড়ে ৩৯ কোটি ৬০ লাখ ফিচার ফোন বাজারে এসেছে।
ইতিমধ্যে ‘৩৩১০’ মডেলের ফিচার ফোন বাজারে আনার কথা বলে ফিচারফোন প্রেমীদের মধ্যে শোরগোল তুলেছে নকিয়া। ফিচার ফোনের বাজারে নকিয়ার অবস্থান আগের চেয়ে আরও শক্তিশালী হবে বলে মনে করছেন প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা। পুরোনো ফোন নতুন করে ছাড়ায় ফিচার ফোনের বাজার আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।
বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্ট্র্যাটেজি অ্যানালাইটিকসের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালে নকিয়া ব্র্যান্ডের সাড়ে তিন কোটি ইউনিটের বেশি ফিচার ফোন বিক্রি হয়েছে। বর্তমানে নকিয়া ব্র্যান্ডের ফোন তৈরি করছে ফিনল্যান্ডের এইচএমডি গ্লোবাল।
ফিচার ফোনের বাজারে বর্তমানে শীর্ষে আছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। গত বছরে পাঁচ কোটি ২৬ লাখ ইউনিট ফিচার ফোন বিক্রি করেছে স্যামসাং।
বাজার বিশ্লেষকেরা বলছেন, ৩৩১০ মডেলের ফোনটি আবার বাজারে আসায় স্যামসাংয়ের কাছ থেকে বাজারের দখল আবার নকিয়ার দিকে ঘুরে যেতে পারে।
বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্ট্র্যাটেজি অ্যানালাইটিকসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বজুড়ে নকিয়ার দখলে বাজারের আট দশমিক নয় শতাংশ ও স্যামসাংয়ের দখলে ১৩ দশমিক দুই শতাংশ।
২০১৬ সালে নকিয়া ব্র্যান্ড নাম ব্যবহারের লাইসেন্স নিয়েছে এইচএমডি গ্লোবাল। এরপর নকিয়া ১৫০ নামের ফিচার ফোন বাজারে ছাড়ে। এর আগে নকিয়া মোবাইল ফোন বিভাগটি মাইক্রোসফটের অধীনে ছিল। তারাও নকিয়া নামে ফিচার ফোন বাজারে ছেড়েছে। অর্থাৎ ওই দুটি প্রতিষ্ঠান মিলে গত বছরে নকিয়া ব্র্যান্ডের তিন কোটি ৫৩ লাখ ইউনিট ফোন বিক্রি করেছে।
ফিচার ফোনের ক্ষেত্রে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে টিসিএল অ্যালকাটেল। দুই কোটি ৭৯ লাখ ইউনিট ফোন বিক্রি করেছে টিসিএল। অন্যান্য ফিচারফোন নির্মাতা মিলে ২৮ কোটি ৫ লাখ ফিচার ফোন বিক্রি করেছে।
বাজার গবেষকেদের মতে, ২০১৬ সালে মোট ১৮৮ কোটি ইউনিট মোবাইল ফোন বিক্রি হয়েছে যার মধ্যে ২১ শতাংশ ফিচার ফোন। বর্তমান বিশ্বে বিক্রি হওয়া প্রতিটি পাঁচটি ফোনের মধ্যে একটি ফিচার ফোন। তথ্যসূত্র: এনডিটিভি।

Leave a Reply