বিদায়ী ও বর্তমান নির্বাচন কমিশন মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ: রিজভী

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, সোমবার: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে আয়েশী জীবন-যাপনে থেকে মানুষের কান্না ও হাহাকার টের পান না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী। বগুড়ায় জনসভায় বিএনপির সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যা বলেন জনগণ তার উল্টোটা ধরে রাখেন। কারণ তিনি কখনোই সত্য বলেন না।’
সোমবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বিএনপি নয়, মানুষ কষ্টে থাকে আওয়ামী লীগের আমলে।
রবিবার বগুড়ার সান্তাহার স্টেডিয়ামে জনসভায় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী নির্বাচনেও নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় আসলে দেশ পিছিয়ে পড়বে। তারা আগের মতোই লুটপাট করবে, উন্নয়ন প্রকল্পগুলো বন্ধ করে দেবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, নৌকায় ভোট দিয়ে মানুষ স্বাধীন দেশ পেয়েছে। আবার নৌকায় ভোট দেয়ার কারণেই অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে মানুষ পেট ভরে ভাত খায় আর ধানের শীষে ভোট দিলে মানুষ ধানের চিটা পায়।’
এর প্রতিক্রিয়ায় রিজভী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জনগণকে বিশ্বাস করেন না। জনগণকে তিনি তালাক দিয়েছেন। তাই তিনি এসব কথা বলেন। রিজভী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী অনেক কথা বলেছেন, অথচ তাদের শাসনামলেই মাছ ধরার জাল পড়ে মানুষ লজ্জা নিবারণ করেছে। কলাপাতা চিবিয়ে খেয়েছে।’
এক প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, ‘বিদায়ী নির্বাচন কমিশন ও বর্তমান নির্বাচন কমিশনকে মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। নতুন নির্বাচন কমিশনও (ইসি) রক্তাক্ত পথে হাঁটতে শুরু করেছে।
রবিবার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে সহিংসতায় সিলেটে একজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিয়েও কথা বলেন রিজভী। তিনি বলেন, ‘নতুন সিইসি যে বড় বড় বুলি ছেড়েছেন, তা বাস্তবায়নের সম্পূর্ণ উল্টো চিত্রই দেশবাসী দেখেছে। গতকাল সিলেটের ওসমানীনগরে নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত ও ২৫ জন আহত হয়েছেন।’
বিএনপি নেতা বলেন, ‘ক্ষমতাসীনদের সঙ্গে বর্তমান সিইসির কানেকশন সম্পর্কে আমরা যা বলেছি, তা অক্ষরে অক্ষরে ফলতে শুরু করেছে। সুতরাং, পরবর্তী জাতীয় নির্বাচনে গিয়ে আওয়ামী লীগের সঙ্গে সিইসির যে মধুর কানেকশনের প্রতিফলন ঘটবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।’
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, আবুল খায়ের ভুইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ, মাহবুবুর রহমান শামিম, সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল প্রমুখ।

Leave a Reply