মিশরের সিনাই উপত্যকার উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ থেকে কপটিক খ্রিস্টানরা পালিয়ে যাচ্ছে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, শনিবার: মিশরের সিনাই উপত্যকার উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ থেকে কপটিক খ্রিস্টানরা পালিয়ে যাচ্ছে। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে সন্দেহভাজন ইসলামপন্থী জঙ্গিদের বেশ কয়েকটি হত্যাকাণ্ডের পর প্রাণভয়ে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে তারা পালিয়ে যাচ্ছে।
এদের মধ্যে অনেক কপটিক খ্রিস্টান এখন ইসমাইলিয়া নগরীর সুয়েজ খালের তীরে অবস্থিত এভাঙ্গেলিকাল চার্চে আশ্রয় নিয়েছে বলে জানায় বিবিসি। শুক্রবার ওই চার্চের পক্ষে নাবিল সুকরাল্লাহ বলেন, প্রায় আড়াইশো খ্রিস্টান ওই চার্চে আশ্রয় নিয়েছেন। তারা তাদের সন্তানদের নিয়ে এখানে এসে উঠেছেন। খুব কঠিন সময়। আশা করছি আরও ৫০-৬০ জন এখানে আসতে পারেন।
এদিকে ঘরবাড়ি ছেড়ে আসা এসব শরণার্থীরা বলছে, ‘আমরা মাথার ওপরে নিরাপত্তার অভাববোধ করছি। খুব কুৎসিত ভাবে আমাদের লক্ষ্যবস্তু বানানো হচ্ছে।’
পালিয়ে আসাদের বেশিরভাগই আল-আরিশ শহরের বাসিন্দা। শুধুমাত্র এই শহরের সাতজন খ্রিস্টানকে হত্যা করে জঙ্গিরা।
কপটিক চার্চে হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছে, মিশরীয়দের মধ্যে বিভেদ তৈরির জন্যই এ হামলা চালানো হয়েছে।
রবিবার ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা একটি ভিডিওতে মিশরের সংখ্যালঘু খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষের ওপর আবারো হত্যার হুমকি দেয়ছে।
মিশরের নয় কোটি মানুষের মধ্যে ১০ শতাংশ কপটিক খ্রিস্টান। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইসলামপন্থী জঙ্গিরা তাদের লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে।

Leave a Reply