চট্টগ্রাম নগর ২২ মহল্লা সর্দার কমিটির মতবিনিময় সভা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১ ফেব্রুয়ারী ২০১৭, বুধবার: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন এর সাথে ০১ ফেব্রুয়ারি দুপুরে নগরভবনের সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রাম নগর বাইশ মহল্লা সর্দার কমিটির নেতৃবৃন্দ মতবিনিময় করেন। মতবিনিময়ে নগর বাইশ মহল্লার নেতৃবৃন্দ মেয়রের সেবাধর্মী সকল কর্মকান্ডে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। তারা নগরবাসীর পৌর কর পূনঃমূল্যায়নে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে এবং হতদরিদ্র জনগোষ্টিকে ট্যাক্সের আওতার বাইরে রাখায় মেয়রকে সাধুবাদ জানান। তারা এসেসম্যান্ট শেষে গঠিত আপিল বোর্ডে নগর মহল্লা সর্দার কমিটির প্রতিনিধি রাখার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দিত করেন। এ ছাড়াও অস্বচ্ছল নগরবাসীর পৌরকর ধার্য্যরে বিষয়ে মেয়রের ইতিবাচক ভূমিকারও প্রশংসা করেন। মতবিনিময় সভায় সিটি মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, সরকারী গেজেট ও আইনের আওতায় প্রকাশিত গেজেটের ভিত্তিতে পৌরকর পূনঃমূল্যায়ন কার্যক্রম চলছে। মেয়র এর ট্যাক্স ধার্য্য করা বা বাড়ানোর কোন এখতিয়ার নেই। তিনি বলেন, নগরবাসী’র প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান রেখেই বাড়ী বাড়ী গিয়ে কর পূনঃমূল্যায়ন কার্যক্রম চলছে। কারোর প্রতি অশোভন আচরন বা ভয়ভীতি প্রদর্শনের কোন নমুনা ও আলামত পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্টদের শাস্তির আওতায় আনা হবে। মেয়র বলেন, নগরবাসী নিজেই নিজের পৌরকর ধার্য করতে পারবে। হতদরিদ্র, রাষ্ট্রীয় খেতাবপ্রাপ্ত, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাগণের মালিকানাধিন ইমারত বা জমিতে তাদের নিজস্ব বসবাসকৃত অংশের উপর হোল্ডিং কর এবং প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাগণের বসবাসের নিজস্ব মালিকানাধীন হোল্ডিং এ অবস্থিত ইমারত বা জমির উপরস্থিত এক হাজার বর্গফুট আয়তন পর্যন্ত ফ্ল্যাটের উপর হোল্ডিং কর আরোপ করা হবে না। জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বিশ্ব মানের দৃষ্টিনন্দন নগর গড়তে নগরবাসীর সহযোগিতা প্রয়োজন। চট্টগ্রামকে বিউটিফিকেশনের আওতায় আনা হচ্ছে এবং ডোর টু ডোর বর্জ্য সংগ্রহ কার্যক্রম চলছে। যাবতীয় উন্নয়ন কর্মকান্ডে সকল শ্রেনী ও পেশার প্রতিনিধিদের মতামতের প্রাধান্য দেয়া হবে। তিনি বলেন, শতভাগ সততা, স্বচ্ছতা ও জবাবদীহিতার উপর ভিত্তি করে নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা হবে। এক্ষেত্রে কোন ধরনের ব্যতয় হবে না। এসেসম্যান্ট সম্পাদনের পর প্রত্যেক ষ্টেক হোল্ডার আপিল করার সুযোগ পাবেন। আপিলকারী আপিল বোর্ডে সুবিধা-অসুবিধা স্বাধীনভাবে উপস্থাপন করার সুযোগ পাবে। আপিল নিষ্পত্তির পরই ট্যাক্স ধার্য্য হবে। মতবিনিময় সভায় প্যানেল মেয়র-৩ নিছার উদ্দিন আহমদ মঞ্জু, নগর বাইশ মহল্লা সর্দার কমিটির সভাপতি মো. ইউসুফ, সহ সভাপতি আবু মোহাম্মদ মুছা চৌধুরী,সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী আলী বক্স, মো. তারেক, সলাহ উদ্দিন ইবনে আহমেদ, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য শেখ জাহিদ হোসেন, জাগির আহমদ সর্দার, মোহাম্মদ জাহেদ হোছাইন, সাহাব উদ্দিন সর্দার, হাজী নাসির আহমদ ও হাজী সাহাব উদ্দিন আহমদ সহ নগর বাইশ মহল্লার সর্দার কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply