এয়ারটেল কোম্পানির কর্মীদের উষ্ণ অভ্যর্থনা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৩ নভেম্বর, বুধবার: এয়ারটেল থেকে একীভূত কোম্পানি রবিতে যোগ দেওয়া কর্মীদের উষ্ণ অভ্যর্থনায় বরণ করে নিলো আজিয়াটা ও রবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) রাজধানীতে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় বলে বুধবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায় রবি।robi
নতুন কর্মীদের স্বাগত জানানোর জন্য অনুষ্ঠানে রবির সব ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সঞ্চালক হিসেবে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন রবির চিফ করপোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ।
অনুষ্ঠানে একীভূত কোম্পানি রবির উদ্দেশে দেওয়া ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, বিভাগের সচিব ফয়জুর রহমান চৌধুরী এবং বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক কমিশনের চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদের ভিডিও বার্তা প্রচার করা হয়।
এছাড়া ভিডিও বার্তার মাধ্যমে আজিয়াটার ম্যানেজিং ডিরেক্টর/প্রেসিডেন্ট এবং গ্রুপ সিইও তান শ্রী জামালুদিন ইব্রাহিমও রবির উদ্দেশে তার বক্তব্য রাখেন।
নতুন উদ্যমে নতুন যাত্রা শুরু করায় ভিডিও বার্তায় রবি পরিবারকে ধন্যবাদ জানান প্রতিমন্ত্রী।
২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন প্রধানমন্ত্রীর অন্যতম স্বপ্ন উল্লেখ করে তিনি বলেন, রবি সারা দেশে নেটওয়ার্ক বিস্তারের মাধ্যমে এ রূপকল্প বাস্তবায়নে এখনই কাজ শুরু করবে বলে আমার প্রত্যাশা। যেন দেশের প্রতিটি মানুষ এমনকি প্রত্যন্ত অঞ্চলের লোকজনও রবি নেটওয়ার্কের আওতায় আসে।
দেশের টেলিযোগাযোগ খাতের প্রথম একীভূতকরণ সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য ভিডিও বার্তায় রবিকে অভিবাদন জানান বিটিআরসির চেয়ারম্যান।
তিনি বলেন, আমার দৃঢ় বিশ্বাস এ একীভূতকরণের ফলে দেশের টেলিযোগাযোগ বাজারে প্রতিযোগিতা বাড়বে। যাতে গ্রাহকরাই উপকৃত হবেন। তারা আরও ভালো সেবা পাবেন।
একীভূতকরণের ফলে মূলত গ্রাহকরাই উপকৃত হবেন বলে টেলিযোগাযোগ সচিব ফয়জুর রহমান চৌধুরীও তার ভিডিও বার্তায় উল্লেখ করেন।
আজিয়াটার প্রধান তার ভিডিও বার্তায় বলেন, বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ বাজার যথেষ্ট প্রতিযোগিতাপূর্ণ। একীভূতকরণের ফলে আরও উদ্ভাবনী পণ্য ও সেবা চালুর মাধ্যমে আমরা ব্যবসা প্রসারের সুযোগ পাবো। আমি নিশ্চিত, ভিন্নধারার মানসম্পন্ন সেবা দিয়ে একীভূত কোম্পানিটি গ্রাহকদের মন জয় করতে পারবে।
অনুষ্ঠানে আজিয়াটার রিজিওনাল সিইও ফর সাউথ এশিয়া ও ডায়লগ আজিয়াটা পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির (শ্রীলঙ্কায় টেলিযোগাযোগ সেবা প্রদানকারী শীর্ষ কোম্পানি) গ্রুপ সিইও ড. হানস বিজয়সুরিয়া এবং ডেপুটি চিফ এক্সিকিউটিভ ও মনোনীত সিইও সুপুন বীরাসিংহে উপস্থিত ছিলেন। ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ডায়লগ’র গ্রুপ সিইও হিসেবে হানস’র স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি।
নতুন কর্মীদের উদ্দেশে দেওয়া বক্তব্যে ড. হানস একীভূত হওয়ার পেছনে আজিয়াটার রূপকল্প তুলে ধরেন। কর্মীদের ২০২১ সালের মধ্যে রবিকে নতুন প্রজন্মের ডিজিটাল কোম্পানি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে অনুপ্রাণিত করেন তিনি।
অন্যদিকে সুপুন তার বক্তব্যে একীভূতকরণ নিয়ে কাজের অভিজ্ঞতা জানানোর পাশাপাশি এ পদক্ষেপকে সার্থক করে তোলার আহ্বান জানান।
রবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, এয়ারটেলের বেশিরভাগ কর্মী একীভূত কোম্পানি রবিতে যোগ দেওয়ায় আমরা গর্বিত। আমি নিশ্চিত, আপনাদের কঠোর পরিশ্রম ও একাগ্রতায় আমরা শিগগিরই মার্কেট লিডারে পরিণত হতে পারবো।
রবি’র ম্যানেজমেন্ট কাউন্সিলের (এমসি) সদস্যরা এবং এয়ারটেল থেকে রবিতে যোগ দেওয়া নতুন কর্মীরা বিলুপ্ত এয়ারটেল বাংলাদেশের সিইও পিডি শর্মাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানান। রবি ও এয়ারটেলের সফল একীভূতকরণ নিশ্চিত করতে তার অক্লান্ত প্রচেষ্টার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানানো হয়। এসময় শর্মার হাতে প্রশংসাসূচক স্মারকচিহ্ন তুলে দেওয়া হয়।
চলতি বছরের ১৬ নভেম্বর থেকে একীভূত কোম্পানি হিসেবে যাত্রা শুরু করে রবি। বাংলাদেশে একীভূত হয়ে ব্যবসা পরিচালনার সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের লক্ষ্যে ২০১৫ সালের ৯ সেপ্টেম্বর উভয়পক্ষের আলোচনা শুরুর ঘোষণার মধ্যদিয়ে একীভূতকরণের প্রক্রিয়াটি শুরু হয়েছিল।
একীভূতকরণ প্রক্রিয়া শেষে রবির সিংহভাগ অর্থাৎ ৬৮ দশমিক ৭ শতাংশ মালিকানায় রয়েছে আজিয়াটা যেখানে ভারতী এয়ারটেলের শেয়ার ২৫ শতাংশ। বাকি ৬ দশমিক ৩ শতাংশের মালিকানায় রয়েছে জাপানের এনটিটি ডোকোমো।

Leave a Reply