রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভা

মো:আব্দুল মালেক সুমন: রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেছেন, পরিষদে হস্তান্তরিত বিভাগ সবগুলোই গুরুত্বপূর্ণ এবং জনকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান। কর্মকর্তাদেরকে পরিষদের প্রতিটি মাসিক সভায় উপস্থিত থেকে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের কাজের অগ্রগতি, সমস্যা ও monthly-meeting-pic-20-11-16-01সম্ভাবনার বিষয়গুলো তুলে ধরতে হবে। এতে উন্নয়ন কাজের পাশাপাশি সমগ্র জেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সামগ্রিক অগ্রগতি পরিবীক্ষণ সহজ হবে। তিনি বলেন, এলাকার মানুষের কল্যাণ ও উন্নয়নের স্বার্থে সরকার আমাদেরকে নিয়োগ দিয়েছেন। তাই অর্পিত দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করতে পরিষদ ও হস্তান্তরিত বিভাগের সকল কর্মকর্তাদের আহবান জানিয়েছেন তিনি।
রবিবার (২০নভেম্বর) রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত পরিষদের মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব ছাদেক আহমদ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় সিভিল সার্জন ডাঃ ¯েœহ কান্তি চাকমা বলেন, জেলায় কনসালটেন্ট, মেডিকেল অফিসার ও নার্সের শূণ্যপদ পূরণের লক্ষ্যে মন্ত্রণালয়ে নিয়মিত যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতাল এলাকা সংলগ্ন, নানিয়ারচর, বিলাইছড়ি ও বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সীমানার মধ্যে যে সমস্ত অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠেছে সেগুলো উচ্ছেদের বিষয়ে প্রশাসন কর্তৃক উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে।
জনস্বাস্থ্য বিভাগের প্রকৌশলী বলেন, বর্তমানে নতুন প্রকল্পের কাজের জন্য ই-টেন্ডার আহক্ষান করা হয়েছে এবং আগামী ২২ নভেম্বর আরেকটি ই-টেন্ডার আহক্ষান করা হবে। এছাড়া শহরের যেসমস্ত এলাকায় পানি সরবরাহের লাইন লিকেজ রয়েছে সেগুলো মেরামত করা হচ্ছে।
কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক বলেন, শীত মৌসুম এসে যাওয়ায় বিভিন্ন শাক-সবজি চাষ চলছে । এছাড়া জেলা পরিষদের অর্থায়নে স্ট্রবেরী, চা ও কফি চাষ প্রকল্প যথারীতি চলছে।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, চেলাছড়া ও আটারকছড়া আবাসিক বিদ্যালয়গুলো নির্মাণের পরও খাই-খরচের জন্য বরাদ্দ না থাকায় বিদ্যালয় দুটি চালু করা যাচ্ছেনা। এই বিদ্যালয় দুটি রাজস্বখাতে স্থানান্তরের জন্য মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে।
মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে গতমাসে জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, পরিচালনা কমিটি ও অভিভাবকদের সমন্বয়ে সভা করা হয়েছে। এই সভায় শিক্ষার মান উন্নয়নে নানামুখী প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়েছে। প্রস্তাবগুলো রেজুলেশন আকারে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হবে। তিনি জানান, ৭ম শ্রেণী বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ৩হাজার বৃত্তি ফরম বিতরণ হয়েছে।
বর্তমানে শীত মৌসুমে মাছের নানা ধরনের রোগের সমস্যা দেখা দেয়। তাই ব্যক্তিগত বা প্রাতিষ্ঠানিকভাবে যাদের মাছের পুকুর বা ক্রীক রয়েছে সেখানে চুন নিক্ষেপের জন্য সভায় মৎস্য র্কমকর্তা আহক্ষান রাখেন। তিনি আরো জানান, যে সমস্ত এলাকায় জেলেরা এখনো নিবন্ধন করেনি সেসমস্ত জেলেরা সংশ্লিষ্ট উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করে নিবন্ধন করার জন্য আবেদন করতে পারবে।

জেলা সমাজ সেবা বিভাগের কর্মকর্তা বলেন, সমাজসেবা কর্তৃক তালিকাভুক্তদের মাঝে ক্ষুদ্রঋণ, বয়স্ক ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, প্রতিবন্ধী শিক্ষা ভাতা যথানিয়মে প্রদান করা হচ্ছে।
প্রাণী সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা জানান, বর্তমানে জেলার ৭টি উপজেলায় ভেড়া চাষীদের মাঝে ভেড়া বিতরণ করা হয়েছে এবং আগামী ৬ ডিসেম্বর জুরাছড়ি, বরকল ও বাঘাইছড়ি উপজেলাগুলোতেও ভেড়া বিতরণ করা হবে। তিনি জানান, সম্প্রতি কাপ্তাই উপজেলায় ৯১লক্ষ টাকা ব্যয়ে উপজেলা প্রাণী সম্পদ কার্যালয় নির্মিত হয়েছে। এতে সে উপজেলায় প্রাণী সম্পদ বিভাগের সেবা পেতে এলাকার মানুষের সুবিধা হবে।
জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা বলেন, আগামী ডিসেম্বর মাস হতে গ্রাফিক্্র ডিজাইন বিষয়ে এলাকার বেকার যুবদের ২মাসব্যাপী কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। এছাড়া অন্যান্য প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলছে।
সভায় হস্তান্তরিত অন্যান্য বিভাগের কর্মকর্তারা তাদের বিভাগের স্ব স্ব কার্যক্রম উপস্থাপন করেন।

Leave a Reply