নাসিরনগর অভিমুখী লংমার্চ পুলিশি বাধায় স্থগিত

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৮ নভেম্বর, শনিবার: সারা দেশে হিন্দুদের মন্দির ও বাড়িঘরে হামলার প্রতিবাদে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর অভিমুখী লংমার্চ পুলিশি বাধায় স্থগিত করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালিয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশ 1থেকে যাত্রা শুরু করে ঢাবির হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সংগঠন মাইনোরিটি রাইটস মুভমেন্ট। পরে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে কর্মসূচি স্থগিত করে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।
লংমার্চযাত্রী স্বাধীন ঘোষ ঢাকাটাইমসকে বলেন, সংগঠনের সমন্বয়ক মানিক রক্ষিতের নেতৃত্বে তিনটি মাইক্রোবাসে করে ৩০-৩৫ জন নাসিরনগরের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে। টিএসসি থেকে জগন্নাথ হলের সামনে আসার পর একটি বাস তাদের সঙ্গে যোগ দেয়। পরে সেখানে গিয়ে বাধা দেয় পুলিশ। এর ফলে নাসিরনগরে যেতে না পেরে কর্মসূচি স্থগিত করা হয়।
পরে রাজু ভাস্কর্যের সামনে এসে সংগঠনের সমন্বয়ক মানিক রক্ষিত সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের আন্দোলন চলতেই থাকবে। নিরাপত্তার অজুহাতে পুলিশ আজকের কর্মসূচি থামালেও ৩০ নভেম্বরের মধ্যে আমাদের দাবি মানা না হলে আমরা দেশব্যপী বিক্ষোভসহ লংমার্চে নামব।’
এদিকে ঢাবির সচেতন শিক্ষার্থীদের ব্যানারে আন্দোলনের ডাক দেয়া হলেও তাতে অংশ নেন জাগো হিন্দু, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্ট্রান ঐক্য পরিষদ, হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতি, সনাতন বিদ্যার্থী সংসদসহ বিভিন্ন সংগঠনের বেশ কিছু নেতাকর্মী।
নাসিরনগরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দুদের মন্দির ও বাড়িঘরে হামলায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টামূলক শাস্তির দাবিতে গত শুক্রবার সাড়ে ছয় ঘণ্টা শাহবাগ অবরোধ করেছিল শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। ওই দিন তারা সরকারকে নাসিরনগরের ঘটনার বিষয়ে দৃশ্যমান ব্যবস্থা নিতে তিন দিনের সময় বেঁধে দেন।
কিন্তু বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে পদক্ষেপ না নেওয়ায় গত মঙ্গলবার দ্বিতীয়বারের মতো শাহবাগ অবরোধ করে মাইনোরিটি রাইটস মুভমেন্ট। দুই ঘণ্টা অবরোধের পর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের আশ্বাসে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা অবরোধ তুলে নেয়। পরে তারা নাসিরনগরের উদ্দেশ্যে লংমার্চ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

Leave a Reply