ইউআইটিএস এ “নারী উদ্যোক্তা উন্নয়ন” শীর্ষক সেমিনার

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৭ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার: বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত প্রথম তথ্য ও প্রযুক্তি ভিত্তিক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেসimg_1960 (ইউআইটিএস) এর বিজনেস স্কুলের উদ্যোগে “নারী উদ্যোক্তা উন্নয়ন” শীর্ষক সেমিনার আজ ১৬ নভেম্বর ২০১৬ তারিখ বুধবার সকাল ০৯:৩০ টায় বিশ্ববিদ্যালয় এর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেমিনারে প্রধান অতিথি ইউআইটিএস এর প্রতিষ্ঠাতা, বোর্ড অব ট্রাস্টিজ ও পিএইচপি ফ্যামিলির মাননীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সুফি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এ দেশের প্রত্যেকটি নারীকেই উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। ব্যবসা তথা যে কোন মহৎ উদ্যোগে পুরুষ ও নারীর মাঝে কোন পার্থক্য নেই- এ সত্য আজ সুপ্রতিষ্ঠিত। তিনি আরও বলেন, প্রত্যেক মানুষ তার প্রয়োজনের অতিরিক্ত কতটুকু কাজ করছে, তার ওপর নির্ভর করে তার জীবনের সফলতা। জীবনে সফল হতে হলে একই সঙ্গে প্রয়োজন ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি, আত্মবিশ্বাস, নিয়মানুবর্তিতা, কঠোর পরিশ্রম করার মানসিকতা ও সততা। আর একজন মানুষ যখন এসকল গুণাবলী অর্জন করে তা পরিপূর্ণরূপে বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হন, তখনই তার জীবনে উন্নতি ঘটে এবং তার অভিষ্ঠ লক্ষে সে পৌঁছে যায়। আর এ অভিষ্ট লক্ষে পৌঁছে দিতে এবং সুদক্ষ ও সফল মানুষ করে গড়ে তুলতে ইউআইটিএস অল্প খরচে দেশের সন্তানদের শিক্ষা দান করে আসছে দীর্ঘ এক যুগেরও বেশী সময় ধরে। তিনি উল্লেখ করেন যে, ইতিহাসে অন্যতম সফল নারী উদ্যোক্তা ছিলেন হযরত খাদিজাতুল কুবরা (রা:)। তিনি আরবের একজন শ্রেষ্ঠ সফল ব্যবসায়ী ছিলেন।
বিশেষ অতিথি ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লি: এর এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক সৈয়দ আহসানুল আলম পারভেজ বলেন, সুশাসনের ফলে যে কোন ধরনের প্রশাসনের প্রতিটি ক্ষেত্রে নানাবিধ সুফল পাওয়া যায় এবং কাজের প্রতিটি পর্যায়ে গতিশীলতা সৃষ্টি হয়। স্বচ্ছতা, দায়িত্ববোধ, জবাবদিহিতা, অংশগ্রহন এবং সংবেদনশীলতার ক্ষেত্রেও লক্ষনীয় উন্নতি সাধিত হয়। উল্লেখযোগ্য যে, এই পাঁচটি বৈশিষ্ট্য সুশাসনের মূল স্তম্ভ হিসেবে বিবেচিত হয়।
সেমিনারের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশের স্বনামধন্য অভিনেত্রী, নারী উদ্যোক্তা, মানবাধিকার কর্মী ও সাবেক সংসদ সদস্য সারাহ বেগম কবরী। তিনি বলেন, বর্তমানে অগ্রসরমান যে সমাজ তার উন্নয়নের সম অংশিদার নারীরা। সারা পৃথিবীর মত বাংলাদেশেও
নারী উদ্যোক্তাদের সংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশ্বমাত্রিক বিবেচনায় শতকরা ৩৪ জন নারী উদ্যোক্তা আজ ব্যবসা ক্ষেত্রে সুপ্রতিষ্ঠিত। বাংলাদেশের নারীরাও সমানতালে এগিয়ে চলেছে।
নারীরা পরিবারকে এগিয়ে নেয়ার সাথেসাথে সমাজের উন্নয়নে সক্রিয়ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ফলে বাংলাদেশে নারী উদ্যোক্তাদের সংখ্যা ও গুনগতমান উভয়ই বৃদ্ধি পাচ্ছে।
এছাড়াও প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ফর সফ্টওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিস (বেসিস) এর ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ইউওয়াই সিস্টেম্স লিমিটেড এর সিইও ফারহানা এ রহমান, কারিগর এর ম্যানেজিং পার্টনার তানিয়া ওয়াহাব এবং ইনটেরিয়র ডিজাইনার ও নারী উদ্যোক্তা দুর্দানা হোসেন এবং ফ্যাশন ডিজাইনিং উদ্যোক্তা ও রিলাজ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক
মানতাসা আহমেদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সোলায়মান। সভাপতির বক্তব্যে ড. মোহাম্মদ সোলায়মান বলেন, ইউআইটিএস দেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে প্রথমবারের মত নারী উদ্যোক্তা উন্নয়ন বিষয়ক একটি সেমিনারের আয়োজন করলো। তিনি আরও বলেন যে, ইউআইটিএস বারিধারাস্থ তার একটিইমাত্র ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে এবং দেশের উচ্চ শিক্ষা লাভকারি শিক্ষার্থীদের যুগোপযোগী শিক্ষা দিয়ে যাচ্ছে। তিনি নারী উদ্যোক্তাদের উত্তরোত্তর সফলতা ও সমৃদ্ধি কামনা করেন।
অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন বিজনেস স্কুলের ডীন ও ইউআইটিএস-এর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক আ.ন.ম. শরীফ। অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সকল আমন্ত্রিত অতিথিদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে সমাপনী বক্তব্য দেন বিজনেস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ফারহানা রহমান। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন রিসার্চ সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক মুহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন খান, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ কামরুল হাসান, সকল ডীন, বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীগন।

Leave a Reply