শাহ আমানত সেতুর ওপাড়ে বিজিসি ট্রাস্ট শিক্ষার্থীদের অবরোধ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৬ নভেম্বর, বুধবার: চট্টগ্রাম নগরীর কর্ণফুলী থানার মইজ্জ্যারটেক এলাকায় শাহ আমানত সেতুর একপাশ অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী। এসময় তারা ইউনিক পরিবহনের এটি বাস ভাংচুর করেছে। বুধবার (১৬ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে।1
বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের চন্দনাইশ ক্যাম্পাসে প্রতিদিন সকালে নগরী থেকে শিক্ষার্থীদের নিয়ে বাসে করে নিয়ে যাওয়া হয়। বিকেলে ছুটির পর আবারও বাসে করে শিক্ষার্থীদের নগরীতে ফিরিয়ে আনা হয়। কর্ণফুলী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, প্রতিদিন কমপক্ষে ১২টি বাস একসঙ্গে নগরী থেকে বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে যায় এবং ফিরে আসে।
বুধবার বিকেলে বাসগুলো ফিরে আসার সময় পটিয়ার শান্তিরহাট এলাকায় একটির সঙ্গে ইউনিক পরিবহনের একটি বাসের ধাক্কা লাগে। এসময় বিজিসি ট্রাস্টের বাসগুলো থেকে শিক্ষার্থীরা নেমে ইউনিক পরিবহনের বাসটিতে হামলা চালাতে উদ্যত হলে স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদ জানায়। এসময় স্থানীয় লোকজন জড়ো হয়ে বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থীকে মারধর করে।
এর প্রতিবাদে বাসগুলো মইজ্জ্যারটেক এলাকায় শাহ আমানত সেতুর প্রবেশমুখে আসার পর শিক্ষার্থীরা একযোগে সেখান থেকে নেমে যায় এবং সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে শুরু করে।
কর্ণফুলী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রায় ২-৩’শ শিক্ষার্থী একযোগে নেমে রাস্তায় বসে পড়ে। এসময় তারা ইউনিক পরিবহনের একটি বাস ভাংচুর করে। প্রায় আধাঘণ্টা বিক্ষোভের পর আমরা গিয়ে তাদের সরিয়ে দিই।
অবরোধের কারণে সেতুর উপর এবং আশপাশের সড়কে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে বিকেল সোয়া ৫টা থেকে যানবাহন চলাচল আবারও স্বাভাবিক হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি।

Leave a Reply