অলিম্পিক ২০২৪ এর প্রস্তুতি ইউনূসের “তিন শূন্য” কে কেন্দ্র করে

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১৪ নভেম্বর, সোমবার: প্যারিসের ২০২৪ সালের অলিম্পিক এর জন্য ইউনূসের “তিন শূন্য” কে কেন্দ্রিয় বাণী হিসেবে নিয়ে অগ্রসর হবার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ২০২৪ সালের অলিম্পিক আয়োজনের জন্য প্যারিসের প্রার্থীতার একটি অন্যতম স্তম্ভ হিসেবে সামাজিক ব্যবসাকে অন্তর্ভূক্ত করতে নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস, প্যারিসের মেয়র মিস অ্যান হিদালগো এবং “ক্যানডিডেট সিটি ফর দ্য অলিম্পিকস”-এর প্রেসিডেন্ট ৮ নভেম্বর ২০১৬ একটি ত্রিপক্ষীয় চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছেন।1
প্রার্থী নগরী প্যারিস প্রফেসর ইউনূসের “তিন শূন্য” র লক্ষ্য অর্থাৎ শূন্য দারিদ্র, শূন্য বেকারত্ব ও শূন্য নীট কার্বন নিঃস্বরণকে ২০২৪ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক গেম্স আয়োজনে কেন্দ্রিয় ভুমিকায় রেখে সমোস্ত পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে বলে প্যারিসন মেয়র ঘোষণা করেছেন।
প্যারিসের মেয়র অ্যান হিদালগোর আয়োজনে প্যারিসের ঐতিহাসিক ভবন হোটেল দ্য ভিল (টাউন হল)-এ অবস্থিত মেয়রের অফিসে অনুষ্ঠিত একটি সাংবাদিক সম্মেলনে মেয়র হিদালগো, প্রফেসর ইউনূস এবং ২০২৪ সালের অলিম্পিক গেমস আয়োজনে প্যারিসের প্রার্থিতার লক্ষ্যে গঠিত কমিটির সভাপতি এতিয়েন থবোয়া আনুষ্ঠানিকভাবে এই ত্রিপক্ষীয় চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।
সাংবাদিক সম্মেলনে তার বক্তব্যে মেয়র হিদালগো ঘোষণা করেন যে, প্যারিসের সর্বত্র সামাজিক ব্যবসা কর্মসূচি প্রসারের উদ্যোগের অংশ হিসেবে তিনি আগামী বছর প্যারিসে গ্লোবাল সোশ্যাল বিজনেস সামিট অনুষ্ঠানের জন্য প্রফেসর ইউনূসকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। নভেম্বর ৬-৭, ২০১৭ তারিখে এই শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।
প্যারিসের মেয়র পৃথিবীর ৪০টি নেতৃস্থানীয় নগরীর মেয়রদের এই সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানাবেন। মেয়র হিদালগো এই ৪০টি নগরীর সংগঠন সি-৪০ -এর সভাপতি। তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন যে, তার এই উদ্যোগ প্যারিসকে সামাজিক ব্যবসার কেন্দ্রে পরিণত করার উদ্দেশ্যে একটি দীর্ঘমেয়াদী কর্মসূচির অংশ।
গত মাসে প্রফেসর ইউনূসের উপস্থিতিতে প্যারিসের নয়নাভিরাম ভবন “ল্য ক্যানঅ”-র উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে তার এই উদ্যোগ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়। “সামাজিক ব্যবসা ভবন” নামে “ল্য ক্যানঅ”-র নামকরণ করা হয় এবং ভবনটিকে সামাজিক ব্যবসা সৃষ্টি ও প্রসারের উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করা হয়।
প্যারিস সফরকালে প্রফেসর ইউনূস প্যারিসে অনুষ্ঠিত “সোশ্যাল বিজনেস অ্যাকাডেমিয়া কনফারেন্স ২০১৬” উদ্বোধন করেন। প্যারিসের সন্নিকটে জুয়ি অঁ জোসায় অবস্থিত প্রখ্যাত বিজনেস স্কুল এইচইসি প্যারিস ও ইউনূস সেন্টারের আয়োজনে নভেম্বর ৯-১০, ২০১৬ এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ১৫টি দেশ থেকে ১২৫ জন শিক্ষাবিদ এই বাৎসরিক সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। এ বছরের সম্মেলনে ৬৬টি প্রবন্ধ জমা পড়ে যার মধ্যে ৪৪টি উপস্থাপনার জন্য গৃহীত হয়।
এগুলোর মধ্যে ছিল- সামাজিক ব্যবসা ও শিক্ষা, প্রযুক্তি, স্বাস্থ্যসেবা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, ব্যবসায়িক উদ্যোগ, বিপনন ও অন্যান্য বিষয়ের উপর লিখিত প্রবন্ধ।
এ ছাড়াও পৃথিবীর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিষ্ঠিত ২৮টি ইউনূস সোশ্যাল বিজনেস সেন্টারের মধ্যে ১১টি সেন্টার এই সম্মেলনে তাদের উপস্থাপনা প্রদান করে।
পৃথিবীব্যাপী এই ইউনূস সোশ্যাল বিজনেস সেন্টারগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচিতে সামাজিক ব্যবসাকে মূলধারায় নিয়ে আসতে ও গ্র্যাজুয়েশনের পর ছাত্রদেরকে সামাজিক ব্যবসায়ে জড়িত হবার সুযোগ করে দিতে গবেষণা, কোর্স তৈরি এবং সামাজিক ব্যবসার উপর প্রকল্প গ্রহণ করে থাকে।
সম্মেলনের প্রথম দিন সন্ধ্যায় সম্মেলনের অন্যতম আয়োজক প্যারিসের নেতৃস্থানীয় বিজনেস স্কুল এইসইসি প্যারিস এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতৃত্বে সহস্রাধিক দর্শকের উপস্থিতিতে ও ফ্রান্সের নেতৃস্থানীয় কোম্পানিগুলোর অংশগ্রহণে একটি সামাজিক ব্যবসা আন্দোলন আরম্ভ করে।
এই আন্দোলনের পুরোধারা দর্শকদের নিকট তাদের পরিকল্পনা তুলে ধরেন এবং ইতোমধ্যে এই আন্দোলনে যোগদানকারী কর্পোরেশনগুলোর প্রধান নির্বাহীদের পরিচয় করিয়ে দেন। এদের মধ্যে রয়েছে বিশ্বখ্যাত কোম্পানি ড্যানোন, ভিওলিয়া, স্নাইডার ইলেকট্রিক, রেনল্ট, সডেক্সো, টোটাল প্রমুখ।
প্রফেসর ইউনূস এই অনুষ্ঠানে মূল বক্তা হিসেবে ভাষণ দেন। তার ভাষণে তিনি তরুণ সমাজকে চাকরির পেছনে না ছুটে বরং উদ্যোক্তা হবার চ্যালেঞ্জ নিতে আমন্ত্রণ জানান এবং পৃথিবীব্যাপী শান্তি ও স্থিতিশীলতার প্রতি হুমকী হয়ে দাঁড়ানো সম্পদ কেন্দ্রীকরণের প্রক্রিয়াকে রুদ্ধ করার উপায় হিসেবে সামাজিক ব্যবসা শুরু করতে বলেন। ড্যানোনের প্রধান নির্বাহী ইমানুয়েল ফেইবারও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।
প্রফেসর ইউনূস প্যারিসে ড্যানোন কমিউনিটিস্ আয়োজিত বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও অংশ নেন। ড্যানোন কমিউনিটিস্ হচ্ছে ড্যানোন কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত একটি তহবিল যা আফ্রিকা ও এশিয়ার কয়েকটি দেশে অপুষ্টি ও নিরাপদ পানির অভাব মোকাবেলার উদ্দেশ্য বিভিন্ন সামাজিক ব্যবসায়ে বিনিয়োগ করে থাকে। পৃথিবীর সমস্যাসঙ্কুল বিভিন্ন এলাকায় উদ্যোক্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে উত্তর আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে একটি বিশেষ কর্মসূচিতে প্যারিসে আসা একদল উদ্যোক্তার সাথেও তিনি বৈঠক করেন।

Leave a Reply