ব্যথায় করণীয়

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১২ নভেম্বর, শনিবার: বয়স বাড়ার সাথে সাথে শুরু হয় হাঁটু ও কোমরসহ শরীরের নানা জায়গায়, নানারকম ব্যথা৷ এসব ব্যথাকে দূরে রাখতে কী করবেন তা জেনে নিন একজন জার্মান অর্থপেডিক্সের কাছ থেকে৷1
অবাক হলেও সত্যি: জার্মানিতে হাঁটু ও কোমরের ব্যথায় ভুগছেন অন্তত ৫০ লাখ মানুষ৷ মিউনিখ শহরের অর্থপেডিক্স ডা. কনরাড শয়ারার জানান, ‘‘শুনতে অবাক লাগলেও ব্যথাকে দূরে রাখার সবচেয়ে বড় উপায় হচ্ছে হাঁটা-চলা এবং শরীর দুলিয়ে নৃত্য করা৷ কারণ একমাত্র শরীরকে ঠিকমতো সচল রাখলেই এ অসুখ কাছে ঘেষতে পারে না৷’’
ব্যথা শুরুর প্রথম লক্ষণ শারীরিক কোনো পরিশ্রম বা ব্যায়াম না করলে বয়স বাড়ার সাথে সাথে শরীরে তার প্রভাব পড়ে, ব্যথাও হয়৷ অনেকের অবশ্য কম বয়সেও এ সব ব্যথা হয়ে থাকে৷ হাঁটা-চলা করার সময় শরীরে সবচেয়ে বেশি চাপ পড়ে কোমর এবং হাঁটু দু’টোয়৷ ডা. শয়ারার জানান, এই দু’টো অঙ্গে যখন ব্যথা অনুভব হয় তখন অনেকেরই হাঁটা-চলার আগ্রহ কমে যায়৷ আর এটাই হচ্ছে ব্যথা শুরুর প্রথম লক্ষণ৷
নিয়মিত ব্যায়াম: ‘‘হাঁটা-চলা বন্ধ করলেই ব্যথা কমে যাবে – এটা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা৷ বরং নিয়মিত হাঁটা-হাঁটি এবং বিশেষ কিছু ব্যায়াম করে ব্যথা কমানো সম্ভব৷’’ বলেন ডা. কনরাড শয়ারার৷ তাছাড়া জোড়ে হাঁটার সময় পেশিতে চাপ পড়ে, যা পেশির জন্য খুবই ভালো৷ তবে এতে দুর্ঘটনা ঘটার কিছুটা ভয় থাকে৷ এক্ষেত্রে হাতে লাঠি বা ‘স্টিক’ থাকলে হাঁটু ও নিতম্বে চাপ খানিকটা কম পড়ে৷
নাচ ব্যথা কমায়: গান মনের দুঃখ-কষ্ট ও চাপ কমিয়ে দিয়ে মেজাজ ভালো করে৷ আর গানের সাথে ইচ্ছেমতো নাচলে কমে শরীরের ব্যথা৷ কারণ নাচার সময় শিরা এবং কোমরের ব্যথা কমে যায়৷ নাচ শুরুর পর পরই হাঁটু বা নিতম্বে ব্যথা হতে পারে৷ কিন্তু তখন না থেমে গিয়ে নিয়মিত ‘নাচ’ চালিয়ে যান৷ একসময় দেখবেন ‘ব্যথা’ উধাও!
সাইকেল চালান: বাতের ব্যথা অথবা ‘রিউম্যাটিক পেইন’-এর জন্য সাইকেল চালানো খুবই উপকারি৷ আর রাস্তায় সাইকেল চালানো সম্ভব না হলে বাড়িতে, অর্থাৎ ‘হোমট্রেইনার’-এর মাধ্যমে সাইকেল চালাতে পারেন৷ তবে লক্ষ্য রাখবেন যেন পা দু’টোকে বেশি বড় বা ফাঁক করতে না হয়৷ সূত্র: ডিডব্লিউ

Leave a Reply