সকালে ও রাতে শীত শীত আমেজ বিরাজ

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১০ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার: আবহাওয়ায় এখন বিশেষ করে সকালে ও রাতে শীত শীত আমেজ বিরাজ করছে রাজধানীতে। ঘুমোতে গেলে একজনে ফ্যান ছাড়ছে তো আর একজন বন্ধ করছে। ভোররাতের দিকে প্রয়োজন পড়ছে পাতলা কাঁথার। তবে সকালে ঠান্ডা ঠান্ডা লাগলেও গায়ে চাপাতে হচ্ছে না শীতের কাপড়। গ্রামদেশে অবশ্য চিত্রটা ভিন্ন। বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলে বিরাজ করছে শীতের পুরো আমেজ।
বাংলা বার মাসের মধ্যে পৌষ ও মাঘ হলো এ দেশের শীত ঋতু। কার্তিকের এই শেষ পর্যায়ে হিম হিম আবহাওয়া যেন শীতের আগমনী বার্তা। ভোরের কুয়াশা আর শিশির বিন্দু বলছে প্রকৃতিতে কড়া নাড়ছে শীত।1
আবহাওয়া অধিদপ্তরের উপপরিচালক কালামও তা-ই মনে করেন। শীত নেমে গেছে এমনটা বলা যাচ্ছে এখনই। তিনি বলেন, ‘কার্তিক-আগ্রহায়ণে গ্রামবাংলায় শীত শীত অনুভূতি হয়। তবে আমরা সাধারণত ১ ডিসেম্বরকে শীতের শুরু বলে মনে করি। এখন শহরে যেখানে জলাশয় অথবা গাছগাছালি আছে, তার আশপাশে শিশির দেখা যায় ঠিকই। কিন্তু শীতের যে ঠান্ডা, তা এখনো শুরু হয়নি।’
উপপরিচালক কালাম বলেন, বিহার ও পশ্চিমবঙ্গে এখন শীতের আবহাওয়া বিরাজ করছে। আর বাংলাদেশে উত্তর, উত্তরপশ্চিম আঞ্চল দিয়ে ঠান্ডা বাতাস আসছে। এতে সেই অঞ্চলে শীত অনুভূত হচ্ছে। বুধবার যেমন দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল চুড়াডাঙ্গায়, ১৬.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
সাধারণত ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচের তাপমাত্রাকে শীত বলা যায় উল্লেখ করে উপপরিচালক বলেন, এখন তাপমাত্রা ওঠানামা করছে ১৭-২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। আমরা যখন শীতাতপনিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের তাপমাত্রার সূচক ২৪ ডিগ্রিতে নির্ধারণ করি, তখনো কিন্তু ঠান্ডা অনুভব হয়। তবে দক্ষিণের অঞ্চলের বাতাসে আর্দ্রতা রয়েছে এখনো। আজ চাঁদপুরে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়।
রাজধানী ঘুরে দেখা গেছে, বৃক্ষবহুল এলাকাগুলোতে বেশি ঠান্ডা পড়ছে। রমনা পার্ক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা, মিন্টো রোড, চন্দ্রিমা উদ্যান এলাকা, ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় রাতের প্রথম প্রহর থেকেই শীত অনুভূত হয়। সকালে ঘাস আর বৃক্ষলতায় চিকচিক করে শিশিরবিন্দু। মনে গুনগুন করে ওঠেন রবীন্দ্রনাথ- দেখা হয় নাই চক্ষু মেলিয়া/ঘর হতে শুধু দুই পা ফেলিয়া/একটি ধানের শীষের উপরে/একটি শিশিরবিন্দু।”
বুধবার সকালে রমনা পার্কের ঘাসে যখন হাঁটি, শিশিরে সিক্ত হয় পা। পরম মমতায় শিশির মিশে গেছে সবুজের সঙ্গে। ওদিকে কুয়াশার চাদরে মুড়ি দিয়েছে চন্দ্রিমা উদ্যান। প্রকৃতিতে লেগেছে শীতের ছোঁয়া। আর তাই সবখানে চলছে শীতের প্রস্তুতি।
শীতে চাই উষ্ণতার পরশ। এ জন্য প্রয়োজন শীতের পোশাক। ফুটপাত থেকে ছোট বড় বিপণি-বিতান, সবাই পসরা সাজিয়েছে শীতের নানা পোশাকে। এ যেন শীতকে ওমে জড়িয়ে নেয়ার আয়োজন।

Leave a Reply