হতদরিদ্রদের নামে বরাদ্দ করা চাল লুটপাটে আমরা স্তম্ভিত: বিএনপি চেয়ারপারসন

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ৪ নভেম্ববর, শুক্রবার: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া অভিযোগ করে বলেছেন, “হতদরিদ্রদের নামে বরাদ্দ করা ১০ টাকা কেজি দরের চাল সারাদেশে আওয়ামী লীগের স্বচ্ছল লোকেরা লুটেপুটে খাওয়ার সংবাদে আমরা লজ্জিত ও স্তম্ভিত।” সরকারি এই চাল বিতরণে অনিয়মের নানা খবর গণমাধ্যমে দেখার প্রতিক্রিয়ায় বৃহস্পতিবার এক টুইটার বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন।1
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ৭ সেপ্টেম্বর ‘খাদ্যবান্ধব’ কর্মসূচির আওতায় দেশের ৫০ লাখ পরিবারকে ১০ টাকা কেজিতে চাল বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। হতদরিদ্র পরিবারগুলো মার্চ, এপ্রিল এবং সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর- এই পাঁচ মাস ১০ টাকা কেজি দরে মাসে ৩০ কেজি করে চাল কিনতে পারবেন।
এই চাল কালোবাজারি থেকে শুরু করে বিতরণে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ক্ষমতাসীন দলের স্বচ্ছল নেতারাও হতদরিদ্র হিসেবে নিজেদের নাম তালিকায় উঠিয়ে চাল নিচ্ছেন বলে গণমাধ্যমে খবর এসেছে। নিজে প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় হতদরিদ্রের জন্য বিনামূল্যে খয়রাতি সাহায্যের পাশাপাশি কম দামে চাল খোলা বাজারে বিক্রি বা ওএমএস চালু করার কথা বলেন তিনি।
খালেদা বলেন, “এখন শুধু কার্ডধারীদের জন্য ১০ টাকা কেজিতে চাল দেয়ার নিয়ম করে সেই কার্ড শাসক দলের স্বচ্ছল লোকদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। এতে চলেছে হরিলুট। গরিবরা বঞ্চিত হচ্ছে। তাদের মুখের গ্রাস এভাবে কেড়ে নিয়ে লুটে খাওয়ার সুবিধা বিনাভোটের সরকার করে দিয়েছে। আমরা এর নিন্দা জানাই।” এই চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ ওঠার পর কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি গত ৫ অক্টোবর সংসদে বক্তব্যে দেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর ৮ বিভাগের জন্য ৮টি তদন্ত দল গঠন করে অনুসন্ধান চালিয়ে ৪৪ ব্যবসায়ীর ডিলারশিপ বাতিল করে খাদ্য মন্ত্রণালয়।

Leave a Reply