দুর্নীতির দায়ে আবদুর রহমান বদি এমপিকে ৩ বছর কারাদণ্ড

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২ নভেম্ববর, বুধবার: দুর্নীতির দায়ে সরকার দলীয় সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদিকে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। তাকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। ঢাকার ৩ নম্বর বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদার বুধবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে এ রায় ঘোষণা করেন।1
কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে নির্বাচিত আলোচিত-সমালোচিত সংসদ সদস্য বদির বিরুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসাসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। এই মামলায় তিনি উচ্চ আদালতে আপিল করতে পারবেন। উচ্চ আদালতের রায়ে দণ্ড বহাল থাকলে তার সংসদ সদস্য পদ থাকবে না বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। এর আগে গত ১৯ অক্টোবর মামলাটির যুক্তিতর্কের শুনানি শেষে রায় ঘোষণার দিন ঠিন করেন বিচারক। মামলাটিতে ১৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৩ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করে আদালত।
মামলাটিতে ২০১৫ সালের ৯ সেপ্টেম্বর বদির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে আদালত। ২০১৪ সালের ২১ আগস্ট এমপি বদির বিরুদ্ধে দুদকের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুস সোবহানের দায়ের করা ওই মামলা নির্বাচন কমিশনে জমা দেয়া হলফনামার বাইরে ১০ কোটি ৮৬ লাখ ৮১ হাজার ৬৬৯ টাকা অবৈধ সম্পদ থাকার অভিযোগ পাওয়া যায়। সম্পদ ৩৫১ গুণ বৃদ্ধি পাওয়া। পাঁচ বছরে তার আয় ৩৬ কোটি ৯৬ লাখ ৯৯ হাজার ৪০ টাকা। হলফনামা অনুসারে তার বার্ষিক আয় সাত কোটি ৩৯ লাখ ৩৯ হাজার ৮০৮ টাকা। আর বার্ষিক ব্যয় দুই কোটি ৮১ লাখ ২৯ হাজার ৯২৮ টাকা।
২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে জমা দেয়া হলফনামায় তার বার্ষিক আয় ছিল দুই লাখ ১০ হাজার ৪৮০ টাকা। ব্যয় ছিল দুই লাখ ১৮ হাজার ৭২৮ টাকা। ওই সময় বিভিন্ন ব্যাংকে তার মোট জমা ও সঞ্চয়ী আমানত ছিল ৯১ হাজার ৯৮ টাকা। ২০১৫ সালের ৭ মে দুদকের উপ-পরিচালক মঞ্জিল মোর্শেদ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলাটিতে তিনি ২০১৪ সালের ১২ অক্টোবর ঢাকা সিএমএম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান। পরবর্তী সময়ে তিনি হাইকোর্ট থেকে জামিন পান।

Leave a Reply