ঝিনাইদহে রুমা খাতুন নামে এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ১ নভেম্ববর, মঙ্গলবার: ঝিনাইদহ শহরের পল্লী বিদ্যুৎ অফিস এলাকার রাউতাইল গ্রামে রুমা খাতুন নামে এক গৃহবধূকে বেধড়ক পিটিয়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে স্বামী ও তার পরিবার। মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

স্থানীয়রা জানায়, ৭ বছর আগে সদর উপজেলার ধোপাবিলা গ্রামের নুর ইসলামের মেয়ে রুমা খাতুনের বিয়ে হয় রাউতাইল গ্রামের মোজাম হোসেনের ছেলে ফিরোজ হোসেনের সাথে।
আহত গৃহবধূর বড় বোন রিনা খাতুন জানান, ১ম স্ত্রীর সন্তান না হওয়ায় স্বজনদের ফুসলিয়ে ৮ম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় রুমাকে বিয়ে করে ফিরোজ হোসেন। বিয়ের পর রুমার কোল জুড়ে ফুটফুটে ২টি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। এরপর থেকে শুরু হয় তার উপর নির্যাতন। সন্তান দুটি মায়ের কাছে না দিয়ে ঝিঁয়ের মত ব্যবহার শুরু করে সতিন নাজমা খাতুন, শ্বাশুড়ি মনোয়ারা খাতুন ও স্বামী ফিরোজ হোসেন। রুমা খাতুনের কোন অভিভাবক না থাকায় দিনের পরদিন এ নির্যাতন সহ্য করে আসছিল। পরবর্তীতে মঙ্গলবার সকালে শ্বাশুড়ি মনোয়ার খাতুন, সতিন নাজমা খাতুন, স্বামী ফিরোজ হোসেন তাকে ঘরে আটকিয়ে বেধড়ক মারপিট শুরু করে। পরে হত্যার উদ্দেশ্যে গায়ে কেরোসিন ঢেলে দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। সেখান থেকে রুমা খাতুন জীবন বাঁচানোর জন্য দৌড়ে পালিয়ে ঝিনাইদহ শহরের একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পরে তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে জানিয়েছেন গৃহবধূ রুমার স্বজনরা।

Leave a Reply