শ্যাম্পু ও সানস্ক্রিন লোশন স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়

নিউজগার্ডেন ডেস্ক, ২৯ অক্টোবর: প্যারাবেন নামে এক ধরনের রাসায়নিক উপাদান নারীদের স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বৃদ্ধি করে বলে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের shampoo and conditioner breast cancer riskএক নতুন গবেষণায় উঠে এসেছে। এই রাসায়নিক উপাদানটি শ্যাম্পু, বডি লোশন ও সানস্ক্রিন লোশনে ব্যবহার করা হয়। প্রসাধন সামগ্রিতে প্যারাবেন ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হয়। প্যারাবেনকে ইস্ট্রোজেনিক (হরমোন তৈরিকারী) হিসাবে বিবেচনা করা হয়। কারণ প্রাকৃতকভাবে তৈরি হরমোন ইস্ট্রোডিওলের মতই প্যারাবেন একই ইস্ট্রোজেন রিসেপ্টর তৈরি করে। গবেষকরা ইস্ট্রোডিয়াল হরমোনের সঙ্গে ইস্ট্রোজেন হরমোনের একটি যোগসূত্র পেয়েছেন যা স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়। তাছাড়া প্রজনন সংক্রান্ত সমস্যাও তৈরি করতে পারে। গবেষণার প্রধান কর্মকর্তা যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ডেইল লিটম্যান বলেন, যদিও প্যারাবেন ব্রেস্ট ক্যান্সার কোষে এক ধরনের নকল ইস্ট্রোজেন তৈরি করে। তবে কেউ কেউ মনে করেন এই ধরনের ইস্ট্রোজেন ক্ষতি করার মত যথেষ্ট শক্তিশালী নন। কিন্তু এটা সত্য নাও হতে পারে যে, প্যারাবেন অন্য হরমোনের সঙ্গে যুক্ত হয়ে কোষ বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করে। বিদ্যমান রাসায়নিক উপাদান নিরাপত্তা পরীক্ষায় দেখা যায়, একমাত্র প্যারাবেন শরীরের কোষের অন্যান্য অনুর সঙ্গে মিলিত হয়ে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বৃদ্ধি করে। গবেষণায় আরও বলা হয়, দুই ধরনের রিসেপ্টরের (এক ধরনের অঙ্গ বা কোষ) কারণে স্তন ক্যান্সার হয়। একটি হচ্ছে ইস্ট্রোজেন অন্যটি হচ্ছে হিউম্যান ইপিডারমাল গ্রোথ ফ্যাক্টর ২ (এইচইআর২)। প্রায় ২৫ শতাংশ স্তন ক্যান্সার প্রচুর এইচইআর-২ হরমোন তৈরি করে। এইচইআর-২ পজিটিভ টিউমার দ্রুত বৃদ্ধি পায় ও ছড়িয়ে পড়ে। প্যারাবেন এইচইআর-২ হরমোনের সঙ্গে মিশে স্তন ক্যান্সারের কোষগুলোকে উদ্দীপ্ত করে। গবেষণায় বলা হয়, প্যারাবেন উপাদানটি আগে যত কম ক্ষতিকর ভাবা হতো আসলে তা নয়। এখন চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের পুনরায় বিষয়টি নিয়ে ভাবার সময় এসেছে প্যারাবেন স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি বৃদ্ধিতে দায়ী কতটুকু? সূত্র: ঢাকাটাইমস

Leave a Reply